ঈদের আগে বাজারে নকল প্রসাধনী ছাড়ার পাঁয়তারা

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি কুষ্টিয়া
প্রকাশিত: ০৫:৪৭ পিএম, ২৬ মে ২০১৮ | আপডেট: ০৫:৪৯ পিএম, ২৬ মে ২০১৮

কুষ্টিয়ায় বিপুল পরিমাণ নকল প্রসাধনী উদ্ধার করা হয়েছে। শুক্রবার রাতে সদর উপজেলার চারা বটতলা এলাকার একটি বাড়িতে যৌথ অভিযান চালিয়ে এসব প্রসাধনী উদ্ধার করে র‌্যাব ও জেলা প্রশাসন।

এ সময় বাড়ির ভেতর তল্লাশি চালিয়ে বিপুল পরিমাণ নকল ডাবর আমলা হেয়ার অয়েল, কুমারিকা ওয়েল, জনসন বেবি লোশন, তেল ও শ্যাম্পু, হিমালয়া ফেসওয়াশ, ফগ স্প্রেসহ এমন ২৮ ধরনের নকল প্রসাধনী উদ্ধার করা হয়। এসব নকল পণ্য রাখার দায়ে বাড়ির মালিক দুলাল শাহকে দুই মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড ও এক লাখ টাকা জরিমানা করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। এ ছাড়া দুলাল শাহের স্ত্রী বুলু খাতুনকে আটক করে র‌্যাব ক্যাম্পে নেয়া হয়। ছেলেসহ তার বিরুদ্ধে সদর থানায় মামলা হয়েছে। তবে ছেলে ওলিউর রহমান পলাতক রয়েছেন। ঈদের আগে এসব প্রসাধনী বাজারে ছাড়ার পাঁয়তারা করছিল তারা।

র‌্যাব-১২ এর কোম্পানি কমান্ডার এস এম মোহাইমেনুর রশিদ জানান, কয়েক মাস ধরে এক শ্রেণির অসাধু ব্যবসায়ী পবিত্র ঈদুল ফিতরকে সামনে রেখে নকল পণ্য বাজারে ছাড়ার পাঁয়তারা করছিলেন। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জেলা প্রশাসন ও র‌্যাব সম্মিলিতভাবে দুলাল শাহের বাড়িতে অভিযান চালায়। অভিযানে বিপুল পরিমাণ নকল প্রসাধনী ও নকল স্টিকার উদ্ধার করা হয়। এ সময় ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন কুষ্টিয়া জেলা প্রশাসনের সহকারী কমিশনার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট এম এ মুহাইমিন আল জিহান। তিনি ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইনের ৫০ ধারায় দুলাল শাহকে কারাদণ্ড ও অর্থদণ্ডের আদেশ দেন।

jagonews24

কমান্ডার এস এম মোহাইমেনুর রশিদ আরও বলেন,পলাতক ওলিউর যশোর থেকে এসব পণ্য এনে বাড়িতে স্টিকার লাগিয়ে তা বাজারে ছাড়ার জন্য প্রস্তুত করছিলেন। এগুলো দেখতে হুবহু আসল পণ্যের মতো। ক্রেতারা এগুলো আসল কি-না বুঝতে মুশকিলে পড়ত।

তিনি জানান, এ ঘটনায় থানায় মামলা হয়েছে। পলাতক ওলিউরকে ধরার জন্য অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

আল-মামুন সাগর/আরএআর/আরআইপি

আপনার মতামত লিখুন :