স্বামী ছেড়ে পরকীয়া প্রেমিকের বাড়িতে গিয়ে দেখেন সবাই উধাও

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি মাদারীপুর
প্রকাশিত: ০৯:০৪ পিএম, ১৭ জুলাই ২০১৮

মাদারীপুরের রাজৈর উপজেলায় স্ত্রীর স্বীকৃতির দাবিতে প্রেমিকের বাড়িতে তিনদিন ধরে অনশন করছেন প্রেমিকা অঞ্জনা মণ্ডল (২২)। রোববার থেকে এ অনশন করছেন অঞ্জনা।

প্রেমিকার অনশনের খবর পেয়ে প্রেমিকসহ মেম্বার পরিবারের লোকজন বাড়ি ছেড়ে পালিয়ে গেছেন। রাজৈর উপজেলার কদমবাড়ি ইউনিয়নের আড়ূয়াকান্দি গ্রামের ইউপি সদস্য বাবুল মজুমদারের বাড়িতে অনশন করছেন প্রেমিকা অঞ্জনা।

স্থানীয় সূত্র জানায়, বাবুল মজুমদারের ছেলে মিহির মজুমদারের (২৫) সঙ্গে একই উপজেলার খালিয়া ইউনিয়নের সেনদিয়া গ্রামের ধর্ম মণ্ডলের মেয়ে অঞ্জনা মণ্ডলের (২২) এক বছর ধরে পরকীয়ার সম্পর্ক চলছে। এরই মধ্যে আগের স্বামীর সঙ্গে ছাড়াছাড়ি হয়ে যায় অঞ্জনার।

গত ২০১৭ সালে ডিসেম্বর মাসে মাদারীপুর জজ কোর্টের মাধ্যমে প্রেমিক মিহির মজুমদারের সঙ্গে বিয়ে বন্ধনে আবদ্ধ হয় অঞ্জনা মণ্ডল। বিয়ের পর বাড়িতে গেলে স্বামী মিহিরের বাবা মা এ বিয়ে মেনে না নিয়ে অঞ্জনাকে শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন করে তাড়িয়ে দেয়।

এ নিয়ে এলাকাবাসী অনেক সালিশ বৈঠক করেও বিষয়টি মীমাংসা করতে না পারায় রোববার বিকেলে অঞ্জনা মণ্ডল স্ত্রীর স্বীকৃতির দাবিতে প্রেমিক মিহির মজুমদারের বাড়ি গিয়ে অবস্থান নেয়। এ সময় প্রেমিকসহ প্রেমিক পরিবারের লোকজন বাড়ি ছেড়ে পালিয়ে যায়।

সোমবার সন্ধ্যায় ওই এলাকার ইউপি চেয়ারম্যান ও স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিদের নিয়ে এক সালিশ বৈঠক বসে। কিন্তু এতে প্রেমিক পরিবারের লোকজন হাজির না হওয়ায় অঞ্জনা মণ্ডলকে ওই বাড়িতে থাকার কথা বলেন তারা।

এ বিষয়ে অঞ্জনা মণ্ডল জানান, তাকে স্ত্রীর মর্যাদা না দেয়া পর্যন্ত এখান থেকে তিনি যাবেন না। স্ত্রীর মর্যাদা না দেয়া হলে আত্মহত্যা করবেন তিনি।

এ ব্যাপারে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান বিধান বিশ্বাস বলেন, আমরা সালিশ বৈঠকে বসেছিলাম। কিন্তু ছেলেপক্ষ হাজির না হওয়ায় সমাধান করতে পারিনি। তবে মেয়েটি স্ত্রীর অধিকার পাক, এটা আমরা কামনা করি।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে রাজৈর থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. জিয়াউল মোর্শেদ বলেন, এ নিয়ে কেউ থানায় অভিযোগ করেনি। অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এএম/এমএস

আপনার মতামত লিখুন :