কাঙালি ভোজ থেকে বের করে দেয়া হলো পথশিশুদের

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি ব্রাহ্মণবাড়িয়া
প্রকাশিত: ০৭:২১ পিএম, ১৫ আগস্ট ২০১৮

জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা মুক্তিযোদ্ধা সমন্বয় পরিষদ আয়োজিত কাঙালি ভোজের অনুষ্ঠান থেকে পথশিশুদের তাড়িয়ে দেয়ার অভিযোগ উঠেছে এক মুক্তিযোদ্ধার বিরুদ্ধে।

বুধবার দুপুরে জেলা শহরের ধীরেন্দ্রনাথ দত্ত ভাষা চত্বরে এ ঘটনা ঘটে। তবে ওই পথশিশুদের নাম-পরিচয় জানা যায়নি। আয়োজক সংগঠনের সদস্যসচিব মুক্তিযোদ্ধা আবু হোরায়রাহ দুই পথশিশুকে অনুষ্ঠান থেকে তাড়িয়ে দেন।

কাঙালি ভোজের অনুষ্ঠান থেকে পথশিশুদের তাড়িয়ে দেয়ার একটি ভিডিও ব্রাহ্মণবাড়িয়ার স্থানীয় এক সাংবাদিক তার ফেসবুক ওয়ালে শেয়ার করেছেন। পরে এ নিয়ে অালোচনা-সমালোচনা শুরু হয়।

৩৫ সেকেন্ডের ওই ভিডিওটিতে দেখা যায়, ধীরেন্দ্রনাথ দত্ত ভাষা চত্বরের বারান্দায় বসে সবাই ভোজের বিরিয়ানি খাচ্ছেন। খালি গায়ে দুই পথশিশু বারান্দার সামনে বসে তাকিয়ে দেখছে। দুই পথশিশুকে খাবার না দিয়ে মুক্তিযোদ্ধা সমন্বয় পরিষদের সদস্যসচিব আবু হোরায়রাহ সেখান থেকে তাড়িয়ে দেন।

ভিডিওটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়লে আলোচনা-সমালোচনার শুরু হয়। পথশিশুদের খাবার না দেয়ার ঘটনাটিকে দুঃখজনক হিসেবে মন্তব্য করেছেন অনেকে।

জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক শাহআলম সরকার জাগো নিউজকে বলেন, বঙ্গবন্ধু শিশুদের ভীষণ ভালোবাসতেন। গরিব-অসহায়দের জন্যই ভোজের আয়োজন করা হয়ে থাকে। যদি পথশিশুদের ভোজ থেকে তাড়িয়ে দেয়া হয়ে থাকে তাহলে বিষয়টি দুঃখজনক।

মুক্তিযোদ্ধা আবু হোরায়রাহ বলেন, ভোজটি শুধুমাত্র মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য ছিল। ওই মুহূর্তে মুক্তিযোদ্ধাদের খাবার দেয়া হচ্ছিল। পথশিশুদের বলা হয়েছিল পরে খাবার দেয়া হবে। তাই ওদের সরে যেতে বলেছি। পরে আমি নিজেই ওই দুই শিশুকে খাবার দিয়েছি। তাড়িয়ে দেয়ার ভিডিও ফেসবুকে গেছে অথচ পরে যে আমি তাদের খাবার দিয়েছি সেটি আর ফেসবুকে দেয়া হয়নি বলে জানান তিনি।

আজিজুল সঞ্চয়/এএম/জেআইএম

আপনার মতামত লিখুন :