এত নেতার দরকার নাই, শাজাহান ভাইসহ দু’চারজন থাকলেই হবে

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি নারায়ণগঞ্জ
প্রকাশিত: ০৮:৩১ পিএম, ০৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮

নৌপরিবহনমন্ত্রী শাজাহান খান বলেছেন, স্বাধীনতাযুদ্ধে যারা বাংলাদেশের নারীদের ধর্ষণ করেছে তাদের নিয়ে রাজনীতি করছেন খালেদা জিয়া। সেসব ধর্ষকদের জাতীয় সংসদে বসিয়ে সংসদকে অপবিত্র করেছিলেন তিনি। খালেদা জিয়াকে আবার ক্ষমতায় বসালে দেশকে সামনে কি করবে আল্লাহ ছাড়া কেউ জানে না।

রোববার বিকেলে নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লার পাগলার মেরি এন্ডারসন ভাসমান রেস্তোরাঁ সংলগ্ন বিআইডব্লিউটিএর জমিতে সাড়ে ৮ কোটি টাকা ব্যয়ে ১০তলা স্টাফ কোয়ার্টারের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন তিনি।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের এমপি শামীম ওসমান। তিনি বলেন, শকুনেরা থাবা দেয়ার জন্য চারদিকে প্রস্তুত হয়ে আছে। বিএনপি-জামায়াত আমাদের কিছুই করতে পারবে না। বাংলাদেশে বিএনপি-জামায়াতের ‘বেইল’ নাই। শেখ হাসিনা ছিলেন আছেন এবং থাকবেন। আগামীতে আবারও আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসবে এবং শেখ হাসিনা প্রধানমন্ত্রী হবেন।

শামীম ওসমান বলেন, বিএনপি-জামায়াত ও শিবিরকে মোকাবেলা করতে আওয়ামী লীগের এত নেতার দরকার নাই। শাজাহান ভাই (নৌমন্ত্রী) আর আমরা দু’চারজন থাকলেই চলবে।

এ সময় শাজাহান খান বলেন, বিএনপির জন্মই হয়েছিল খুনের মধ্য দিয়ে। তারা শুধু জাতির জনককেই সপরিবারে হত্যা করেনি বরং ক্যু ঠেকানোর নামে মুক্তিযোদ্ধা কর্নেল তাহেরকেও হত্যা করেছিল। তারা ক্ষমতায় থাকলে মানুষ হত্যা করে ক্ষমতায় না থাকলেও মানুষ হত্যা করে। ২০১৩ থেকে ২০১৫ সাল পর্যন্ত পেট্রলবোমা মেরে অসংখ্য মানুষকে হত্যা করেছে বিএনপি।

নৌমন্ত্রী বলেন, খালেদা জিয়া অসৎ সঙ্গ অর্থাৎ জামায়াতকে ত্যাগ করতে না পারলে রাজনীতির মাঠ থেকে হারিয়ে যাবে। কারণ যুদ্ধাপরাধী জামায়াত হলো পাপে দুষ্ট। খালেদা জিয়া হলো মিথ্যায় বিশ্বচ্যাম্পিয়ন। তার জন্ম তারিখ ছয়টা। যদি বিএনপি প্রমাণ করতে পারে আমি মিথ্যা বলছি তাহলে আমি প্রকাশ্যে ক্ষমা চাইব।

শাজাহান খান আরও বলেন, আগামী নির্বাচনে মনোনয়ন দেয়ার জন্য আওয়ামী লীগ প্রাথমিকভাবে যে ১০০ জনের তালিকা করেছে অঘোষিতভাবে সেই তালিকায় শামীম ওসমানের নাম রয়েছে। আপনারা ধরে নেন আগামীতে নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনে প্রার্থী হচ্ছেন শামীম ওসমান। কাজেই উন্নয়নের স্বার্থে শামীম ওসমানকে আবারও নৌকা প্রতীকে ভোট দিয়ে জয়যুক্ত করুন।

বিআইডব্লিউটি-এর চেয়ারম্যান কমোডর এম মোজাম্মেল হকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন-অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) জসিম উদ্দিন হায়দার, ফতুল্লা থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি সাইফউল্লাহ বাদল, সাধারণ সম্পাদক শওকত আলী, মহানগর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক শাহ নিজাম, সাংগঠনিক সম্পাদক জাকিরুল আলম হেলাল, নগর যুবলীগের সভাপতি শাহাদাৎ হোসেন সাজনু, বিআইডব্লিউটিএর যুগ্ম পরিচালক আরিফ উদ্দিন ও আলমগীর কবির প্রমুখ।

মো. শাহাদাত হোসেন/এএম/জেআইএম

আপনার মতামত লিখুন :