দীঘিনালার ইউএনওর বদলি আদেশ প্রত্যাহারের দাবি

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি খাগড়াছড়ি
প্রকাশিত: ০৫:৫৪ পিএম, ৩০ অক্টোবর ২০১৮

খাগড়াছড়ির দীঘিনালার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) শেখ শহিদুল ইসলামের বদলির আদেশ প্রতাহারের দাবিতে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মিছিল করেছেন স্থানীয়রা।

মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মিছিল থেকে এ বদলির আদেশ প্রত্যাহার করা না হলে দীঘিনালাকে অচল করে দেয়ারও হুমকি দেয়া হয়। ‘দীঘিনালার সর্বস্তরের সাধারণ জনগণ’ ব্যানারে এ কর্মসূচি পালিত হয়।

মঙ্গলবার সকাল থেকে গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টি উপেক্ষা করে রাজনীতিক, শিক্ষক, সাংবাদিক, জনপ্রতিনিধি, শিক্ষার্থী ও দিনমজুর শতশত মানুষ রাস্তায় নেমে আসেন। এ সময় ইউএনওর বদলির আদেশ বাতিলের দাবিতে বিভিন্ন স্লোগান সংবলিত প্ল্যাকার্ড ও ফেস্টুন প্রদর্শন করেন তারা।

তিন ঘণ্টাব্যাপী মানববন্ধন শেষে বিক্ষোভ মিছিলটি দীঘিনালা কলেজ মোড় থেকে শুরু করে উপজেলা চত্বরে গিয়ে শেষ হয়। এ সময় আগামী ২৪ ঘণ্টার মধ্যে বদলির আদেশ প্রত্যাহারের আল্টিমেটাম দেয়া হয়। আদেশ প্রত্যাহার না হলে বুধবার সড়ক অবরোধের ঘোষণা দেন বিক্ষুদ্ধ জনতা। তারা বলেন আমাদের দাবি একটাই, ‘ইউএনওর বদলি ঠেকাও’।

Dighinala2

উপজেলা পরিষদ চত্বরে অনুষ্ঠিত বিক্ষোভ সমাবেশে দীঘিনালা সরকারি ডিগ্রি কলেজের প্রভাষক মো. দুলাল হোসেন ও দীঘিনালা প্রেস ক্লাবের সভাপতি মো. জাহাঙ্গীর আলম রাজু বক্তব্য রাখেন।

প্রসঙ্গত, ২০১৭ সালের ২০ ফেব্রুয়ারি দীঘিনালা উপজেলা নির্বাহী কমকর্তা হিসেবে যোগদানের পর তার একের পর এক জনবান্ধব উদ্যোগে বদলে যায় দুর্গম দীঘিনালা উপজেলার দৃশ্যপট। প্রায় দেড় বছরে তিনি একজন প্রশাসক নয়, নিজেকে ‘দীঘিনালাবাসীর একজন’ হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করেন। প্রশাসনিক কাজে নিজের কর্মদক্ষতার পরিচয় দিয়েছেন। দীঘিনালাবাসীর যেকোনো দুর্যোগে নিজেকে বিলিয়ে দিয়েছেন। জীবনের ঝুঁকি নিয়ে বন্যাদুর্গতদের পাশে দাঁড়িয়েছেন।

দায়িত্ব গ্রহণের দেড় বছর পর সোমবার সন্ধ্যায় এক সরকারি আদেশে দীঘিনালার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) শেখ শহিদুল ইসলামকে কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামে বদলি করা হয়। বিষয়টি জানাজানি হলে ফুঁসে ওঠে দীঘিনালার সর্বস্তরের জনগণ।

মুজিবুর রহমান ভুইয়া/এএম/এমএস