এবারের নির্বাচন সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ : খালিদ মাহমুদ

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি দিনাজপুর
প্রকাশিত: ০৪:১০ পিএম, ০৫ ডিসেম্বর ২০১৮

আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক খালিদ মাহমুদ চৌধুরী এমপি বলেছেন, বাংলাদেশে স্বাধীনতার পর যতগুলো নির্বাচন হয়েছে তার মধ্যে এবারের নির্বাচন সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ। ২০১৪ সালে বিএনপি-জামায়াত জোট নির্বাচন বর্জন করেনি, তারা নির্বাচন প্রতিহত করতে চেয়েছিল। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তাদেরকে সে সময় নির্বাচনে আনতে খালেদা জিয়াকে ফোন করেছিলেন। সেদিন বেগম জিয়া প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে কী আচরণ করেছিলেন তা সবাই জানেন।

দিনাজপুর-২ (বোচাগঞ্জ-বিরল) আসনে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থীর বিজয় নিশ্চিত করার লক্ষে বিরল হুসনায় মেয়রের চাতালে বিরল উপজেলা আওয়ামী লীগের উদ্যোগে যৌথ বর্ধিত সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

খালিদ মাহমুদ চৌধুরী আরও বলেন, এর আগে বিএনপি রাজাকারদের গাড়িতে জাতীয় পতাকা তুলে দিয়েছিল। এবার তারা রাকাজার, আলবদর, আলশামসসহ স্বাধীনতা বিরোধীদেরকে ধানের শীষে মনোনয়ন দিয়েছে। এরপর তারা বলবে জামায়াত বাংলাদেশ স্বাধীন করেছে।

তিনি বলেন, হাওয়া ভবন বিলুপ্ত করে আপনারা প্রমাণ করেছেন হাওয়া ভবন ছিল তারেক রহমানের যত অনিয়ম, দুর্নীতি ও সন্ত্রাসের রাজত্ব। তারেক রহমান সে সময় এক লাখ টাকার সিএনজি বিক্রি করেছেন সাত লাখ টাকায়। তাকে টাকা না দিয়ে বগুড়ায় কোনো সিএনজি রাস্তায় নামতে পারেনি। রাস্তার কার্পেটিং চৈত্র মাসের হাওয়ায় উড়ে যেত।

খালিদ মাহমুদ চৌধুরী নেতাকর্মীদের উদ্দেশে বলেন, আগামী ৩০ তারিখ পর্যন্ত আপনারা নির্বাচন করবেন, ভোট দিবেন, কেন্দ্র পাহারা দিবেন। আমি আপনাদেরকে আগামী পাঁচ বছর পাহারা দিব। এই এলাকায় যে উন্নয়ন হয়েছে তাতে আমি আত্মতুষ্টি নিয়ে এবারের নির্বাচন করতে পারছি না। আমি কথা দিলাম আগামী নির্বাচন আপনারা আত্মতুষ্টি নিয়ে করবেন।

বিরল উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ এম আব্দুল লতিফের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক এ কে এম মোস্তাফিজুর রহমান বাবুর পরিচালনায় সভায় আরও বক্তব্য দেন জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আজিজুল ইমাম চৌধুরী, বিরল পৌরসভার মেয়র সবুজার সিদ্দিক সাগর প্রমুখ।

এমদাদুল হক মিলন/আরএআর/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]