ছাত্রী উত্ত্যক্তকারীকে গণধোলাই, ২ যুবকের অর্থদণ্ড

আরিফ উর রহমান টগর
আরিফ উর রহমান টগর আরিফ উর রহমান টগর টাঙ্গাইল থেকে
প্রকাশিত: ০৮:২৭ পিএম, ২৭ এপ্রিল ২০১৯

টাঙ্গাইল সরকারি সা'দত বিশ্ববিদ্যালয় কলেছের ছাত্রীদের উত্ত্যক্ত করার অভিযোগে রতন মিয়া (৩৬) নামের এক যুবককে গণধোলাই দিয়েছে স্থানীয়রা।

শনিবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের সামনে এ ঘটনা ঘটে। রতন করটিয়া ইউনিয়নের মাদারজানি গ্রামের কালু মিয়ার ছেলে।

স্থানীয়রা জানায়, দীর্ঘদিন ধরে বিশ্ববিদ্যালয় যাতায়াতের পথে দাঁড়িয়ে ছাত্রীদের কুরুচিপূর্ণ কথাবার্তা বলে উত্ত্যক্ত করে আসছিলেন রতন মিয়া। এতে ক্ষুব্ধ ছাত্রীরা প্রতিবাদ করলে তিনি নানাভাবে তাদের ভয়ভীতি দেখাতেন।

শনিবার সকালে বিশ্ববিদ্যালয়গামী কয়েকজন ছাত্রীকে কুরুচিপূর্ণ ভাষায় উত্ত্যক্ত করেন রতন। ওই ছাত্রীরা তাৎক্ষণিকভাবে উত্ত্যক্তের বিষয়টি সহপাঠীদের জানায়। পরে শিক্ষার্থীরা স্থানীয়দের সহায়তায় রতনকে ধরে গণধোলাই দেয়। খবর পেয়ে ঘটনাস্থল এসে আহত রতনকে উদ্ধার করে টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করে পুলিশ।

টাঙ্গাইল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সায়েদুর রহমান জানান, ছাত্রী উত্ত্যক্তের বিষয়টি তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এদিকে ছাত্রী উত্ত্যক্তের ঘটনায় টাঙ্গাইলের ভূঞাপুরে দুই বখাটে যুবককে অর্থদণ্ড এবং অনাদায়ে বিনাশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। শনিবার দুপুরে উপজেলা সহকারি কমিশনার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আসলাম হোসেন এ দণ্ডাদেশ দেন।

দণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন- ঠাকুরগাঁও জেলার মুলানফরি গ্রামের জবিরুল ইসলামের ছেলে রাসেল পারভেজ (২৩) ও একই জেলার তালেশ্বরগাঁও গ্রামের মোজারুল ইসলামের ছেলে রাশেদ হাসান (২২)।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আসলাম হোসেন বলেন, উপজেলার ফলদা ইউনিয়নের ফলদা চরপাড়া-পূর্বপাড়া সড়ক সংলগ্ন লাল মিয়ার পোল্ট্রি খামারে শ্রমিকের কাজ করতেন রাসেল ও রাশেদ। শরিফুন্নেছা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের যাতায়াত পথে দাঁড়িয়ে ছাত্রীদের প্রতিনিয়ত উত্ত্যক্ত করতো তারা।

ক্ষুব্ধ ছাত্রীদের অভিভাবকরা খামারের মালিক লাল মিয়াকে উত্ত্যক্তের বিষয়টি অবহিত করলেও তিনি কোনো ব্যবস্থা নেননি। পরে অভিযোগ পেয়ে রাসেল ও রাশেদকে আটক করে ভ্রাম্যমাণ আদালতে উপস্থিত করে পুলিশ। উত্ত্যক্তের দায়ে রাসেলকে ১৫ হাজার টাকা অনাদায়ে ৭ দিনের বিনাশ্রম কারাদণ্ড এবং রাশেদকে ১০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড অনাদায়ে ৭ দিনের বিনাশ্রম কারাদণ্ড প্রদান করা হয়।

আরিফ উর রহমান টগর/এমএসএইচ/এমএস

আপনার মতামত লিখুন :