ধর্ষকদের বিরুদ্ধে কঠোর হতে প্রধানমন্ত্রীর কাছে রাসেলের খোলাচিঠি

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি বরগুনা
প্রকাশিত: ০১:৩৭ এএম, ০৮ মে ২০১৯

ধর্ষকদের বিরুদ্ধে কঠোর হওয়ার অনুরোধ জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে একটি খোলাচিঠি দিয়েছেন সাইফুল ইসলাম রাসেল নামের এক সাংস্কৃতিককর্মী। রাসেল বরগুনার আমতলাপাড় এলাকার বাসিন্দা। জাগো নিউজের পাঠকদের জন্য চিঠিটি তুলে ধরা হলো।

‘আমার এই খোলাচিঠি মাননীয় প্রধানমন্ত্রী মহোদয়ের দৃষ্টি আকর্ষণের জন্য কর্তৃপক্ষ যথাযথ ব্যবস্থা নিলে কৃতার্থ হব।
মাননীয় প্রধানমন্ত্রী,
গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার,
বাংলাদেশ।

জননেত্রী শেখ হাসিনা,
জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর সুযোগ্য কন্যা, বাঙালির ভালোবাসার এবং নির্ভরতার জায়গা। মমতাময়ী মাগো, আপনি একজন সফল নারী। সমাজ বাস্তবতায় প্রমাণ করেছেন, আপনার রাষ্ট্র পরিচালনার মাধ্যমে।

আজ মাহে রমজান শুরু হয়েছে, ইসলাম ধর্মমতে আল্লাহ তাআলা এই মাসে সব শয়তানকে বন্দি করে রাখেন। সকল মৃত মানুষকে তাদের আজাব থেকে মুক্ত করে দেন। ইবাদতের সওয়াব অন্যান্য মাসের চেয়ে বেশি। তাই মহান রাব্বুল আলামিন যদি বান্দাদের এতগুলো পুরস্কার দেন। আপনার কাছে আমি মাত্র একটি বিষয়ে অনুরোধ করব। যেহেতু শয়তান বন্দি তো কোনো মানুষ যদি অপরাধ করে সেটা শয়তানের পাল্লায় পড়ে না, নিজের ইচ্ছায় করবে। রমজানে ইবাদতের সওয়াব যেমন বেশি, তেমনি পাপের শাস্তি একটু বেশি হলে ভালো হবে।

হে বঙ্গকন্যা, একটাই মিনতি-
আজ থেকে যেন বাংলার বুকে একটাও ধর্ষণ না হয়। আমি চাই, আপনি শুধু একবার সব সংবাদ মিডিয়ায় বলুন- যে আপনি ধর্ষণের খবরটা আর শুনতে চান না। আমার মন বলছে আপনার একটি বাক্যতে বাংলার বুকে কোনো কুলাঙ্গার এই কাজ করার সাহস পাবে না।

আপনার ওপর আমার যথেষ্ট আস্থা রয়েছে, আস্থা রয়েছে ১৬ কোটি বাঙালির। আমি জানি আপনি বাঙালি জাতির পিতার আদর্শ সন্তান। পিতা মুজিবের রক্ত আপনার শিরায় শিরায় বহমান। পিতা একটি জাতিকে স্বাধীন সার্বভৌম রাষ্ট্র উপহার দিয়েছেন। আর আপনি সেই রাষ্ট্রকে পৃথিবীতে মাথা উচু করে দাঁড়াবার মতো একটি রাষ্ট্র গড়ে দিতে দুর্বার গতিতে এগিয়ে যাচ্ছেন। মাদক, দুর্নীতি, ধর্ষণ মুক্ত বাংলাদেশ গড়তে, মুজিবীয় আদর্শের আমরা আপনার হাজার হাজার সন্তান এবং সর্বস্তরের জনগণ আপনার পাশে থাকব। সোনার বাংলার জন্য মুক্তিযোদ্ধা বুকের তাজা রক্ত ঢেলে দিয়েছে, আমার এই দেশকে সুন্দর করে সাজাতে শ্রম আর রক্ত দিতে কুণ্ঠিত হব না। আপনার মনের মাধুরী মেশানো মমতা দিয়ে উদীয়মান সূর্যের মতো উন্নয়নের জ্যোতি ছড়াবে। তেমনি সমাজের সব অসঙ্গতি আপনার হাতেই ধ্বংস হবে।

বিশ্বাস করুণ এ জন্য আমি,
#পোশাক #চলাফেরা #শিক্ষা #ধর্মীয় বিষয়
কোনো কিছুই দায়ী করতে পারছি না।
শুধু মনে হয় সমাজের মানুষের মূল্যবোধের অবক্ষয়।
সৃষ্টির সেরাজীব মানুষ, আর সেই মানুষের চেয়ে কোনো খারাপ প্রাণী এমন কাজ করতে পারে না।

এদেশ যতদিন বেঁচে থাকবে এ দেশের মানুষ আপনার নাম তাদের মনের মণিকোঠায় স্বর্ণাক্ষরে লিখে রাখবে। জানিনা মা’ আপনার চরণধূলি আমার হাতে শোভা পাবে কি না? এ জীবনে না পেলেও জন্ম-জন্মান্তর আপনার চরণধূলির আশায় থাকব।

জয় বাংলা।
জয় বঙ্গবন্ধু।
জয় হোক মানবতার।

ইতি
বাঙালির পক্ষে,
মো. সাইফুল ইসলাম রাসেল।
বরগুনা জেলা।

এ বিষয়ে চিঠির লেখক সাইফুল ইসলাম রাসেল জাগো নিউজকে বলেন, দেশের গণমাধ্যমে প্রতিদিনই একাধিক ধর্ষণের সংবাদ প্রকাশিত হয়। দেশের কোথাও না কোথাও প্রতিদিনই কারও মা, কারও বোন আবার কারও সন্তান ধর্ষিত হচ্ছে। প্রতিনিয়ত এমন ঘটনার ফলে দেশের নারীরা আজ নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছে। নারীর অগ্রযাত্রার পথ বাধাগ্রস্ত হচ্ছে। একজন সাংস্কৃতিককর্মী হিসেবে এমন অপরাধ আমার মেনে নিতে বেশ কষ্ট হচ্ছে। তাই আমি মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে চিঠি লিখতে বাধ্য হয়েছি।

মো. সাইফুল ইসলাম মিরাজ/বিএ

আপনার মতামত লিখুন :