গৃহবধূর মৃত্যু নিয়ে দুই পরিবারের ঠেলাঠেলি

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি মেহেরপুর
প্রকাশিত: ০১:৩০ পিএম, ১৫ জুন ২০১৯

শাহানাজ খাতুন (৩০) নামে এক গৃহবধূর মৃত্যু নিয়ে দুই পরিবারের মাঝে ঠেলাঠেলি শুরু হয়েছে। স্বামী পক্ষের দাবি আত্মহত্যা আর বাবার পক্ষের দাবি হত্যাকাণ্ড। মৃত্যুর কারণ নিশ্চিত হতে তাই মরদেহ ময়নাতদন্তের সিদ্ধান্ত নিয়েছে পুলিশ।

শুক্রবার রাত ১১টায় মেহেরপুর জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শাহনাজের মৃত্যু হয়। তার ৯ বছর বয়সী একটি মেয়ে রয়েছে। শাহানাজ মুজিবনগর উপজেলার গৌরীনগর গ্রামের সোহেল রানার দ্বিতীয় স্ত্রী।

জানা গেছে, বছর দশেক আগে কুষ্টিয়ার দৌলতপুর উপজেলার বাহিরমাদি গ্রামের শাহনাজকে দ্বিতীয় বিয়ে করেন সোহেল রানা। দাম্পত্য জীবনের শুরু থেকেই তাদের মধ্যে কলহ বিরাজ করছিল।

স্বামীর বাড়ির লোকজনের দাবি, ‘শুক্রবার সন্ধ্যায় নিজ বাড়িতে বিষপান করেন শাহানাজ খাতুন। স্বামীর বাড়ির লোকেরা তাকে মুজিবনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন। শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে রাতেই মেহেরপুর জেলা হাসপাতালে রেফার করেন চিকিৎসকরা।’

মেহেরপুর জেলা হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার (আরএমও) আহসানুল কবির বলেন, মৃত্যুর সঠিক কারণ নির্ণয়ের জন্য ময়নাতদন্তের প্রতিবেদন পাওয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে।

এদিকে শাহনাজের মা মালেকা খাতুন ও ভাই রিপন আলী বলেন, ‘পারিবারিক কলহের জের ধরে স্বামী ও তার পরিবারের লোকজন শাহনাজকে হত্যা করেছে।’

মুজিবনগর থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুল হাসেম বলেন, পুলিশের প্রাথমিক তদন্তে বিষপানে আত্মহত্যা বলেই মনে হচ্ছে। এখনও পর্যন্ত আমাদের কাছে কেউ কোনো অভিযোগ দেয়নি। শুনেছি দুই পক্ষ সমঝোতা করছে। তবে অভিযোগ পেলে যথাযথ আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

আসিফ ইকবাল/এফএ/জেআইএম

আপনার মতামত লিখুন :