দেড় বছর পর দেশে ফিরলেন ৬ নারী

উপজেলা প্রতিনিধি উপজেলা প্রতিনিধি বেনাপোল (যশোর)
প্রকাশিত: ০৯:৩৯ পিএম, ১৭ জুন ২০১৯

ভালো কাজের প্রলোভনে দালালের মাধ্যমে সীমান্তের অবৈধ পথে ভারতে গিয়ে আটকের পর দুই নারী ও চার তরুণীকে স্বদেশ প্রত্যাবর্তন আইনের মাধ্যমে বেনাপোল চেকপোস্ট দিয়ে হস্তান্তর করেছে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী (বিএসএফ)।

সোমবার বিকেলে ভারতীয় বিএসএফ সদস্যরা বেনাপোল চেকপোস্ট বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) সদস্যদের কাছে তাদের হস্তান্তর করেন।

Benapole-6-Nari-Retran

ফেরত আসা নারীরা হলেন- নড়াইলের কালিয়া থানার জয়পুর গ্রামের আমির হোসেন শেখের স্ত্রী আলেয়া খাতুন (৫৫), তার মেয়ে চুমকি খানম (১০), সদর থানার শিংগিয়া গ্রামের হাফিজুর শেখের মেয়ে পপি খাতুন (১৮), খুলনার বটিঘাটা থানার ঝালবাড়ি গ্রামের সেকমত আলীর স্ত্রী ফাতেমা বেগম (৬০), ফরিদপুরের সালথাবাজার থানার কৌলিকান্দা গ্রামের তাজেল মরদারের মেয়ে সীমা আক্তার (১৯) ও বাগেরহাটের রায়েন্দা থানার খোন্তাকান্তা হিরেশ চৌকিদাারের মেয়ে হ্যাপী ইসলাম (১৪)।

Benapole-6-Nari-Retran

বেনাপোল চেকপোস্ট আইসিপি বিজিবি ক্যাম্পের নায়েব সুবেদার বাকি বিল্লাহ বলেন, ভালো কাজের আশায় ভারতের কলকাতায় গিয়ে পুলিশের হাতে ধরা পড়ে তারা। এরপর আদালতের মাধ্যমে ‘সংলাপ’ ও ‘লিলুয়া’ নামের দুটি শেল্টার হোমের হেফাজতে তাদের রাখা হয়। পরে দুই দেশের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের চিঠি চালাচালির পর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন আইনের মাধ্যমে তাদের দেশে ফেরত আনা হয়। আইনি প্রক্রিয়া শেষে তাদের বেনাপোল পোর্ট থানায় হস্তান্তর করা হয়। এ সময় ভারতীয় বিএসএফ, সংলাপ ও লিলুয়া হোমের প্রতিনিধি, যশোর মহিলা আইনজীবী সমিতির প্রতিনিধি, ইমিগ্রেশন পুলিশ ও ফেরত আসা নারীদের অভিভাবকেরা উপস্থিত ছিলেন। পোর্ট থানা পুলিশ ফেরত আসা নারীদের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের নির্দেশে মহিলা আইনজীবী সমিতির কাছে হস্তান্তর করেছেন।

যশোর মহিলা আইনজীবী সমিতির অ্যাডভোকেট নাসিমা খাতুন বলেন, ফেরত আসা নারীদের বেনাপোল পোর্ট থানার আনুষ্ঠানিকতা শেষে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হবে।

জামাল হোসেন/এএম/এমএস

আপনার মতামত লিখুন :