প্রাথমিকের শিক্ষক নিয়োগ, পদ একটি আবেদন ১৫ হাজার

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক বরিশাল
প্রকাশিত: ০৪:০৪ পিএম, ২০ জুন ২০১৯

বরিশাল নগরীর ভাটিখানা বিনাপানি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সহকারী শিক্ষকের একটি পদ শূন্য রয়েছে। বরিশাল সদর উপজেলার মধ্যে এই একটি শিক্ষক পদই শূন্য। এই পদের নিয়োগ পরীক্ষায় আগামীকাল শুক্রবার প্রায় ১৫ হাজার চাকরিপ্রত্যাশী অংশগ্রহণ করবেন। এছাড়া জেলার ১০টি উপজেলায় ২০০ শূন্য পদের বিপরীতে চাকরিপ্রত্যাশী পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ৬২ হাজার।

জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিস সূত্রে জানা যায়, ২১ ও ২৮ জুন দুই ধাপে বরিশালের ১০টি উপজেলায় প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা হবে। আগামীকাল ২১ জুন শুক্রবার সদর উপজেলাসহ পাঁচ উপজেলায় চাকরিপ্রত্যাশীদের পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। জেলায় এক হাজার ৫৮১টি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ২০০ সহকারী শিক্ষক পদ শূন্য রয়েছে। এসব পদের বিপরীতে ৬২ হাজার চাকরিপ্রার্থী পরীক্ষায় অংশ নেবেন।

সদর উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা রফিকুল ইসলাম তালুকদার বলেন, সদর উপজেলায় ২০৩টি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে এক হাজার ১৯৩টি সহকারী শিক্ষক পদের মধ্যে শুধুমাত্র নগরীর বিনাপানি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে একটি পদ শূন্য আছে। আগামীকাল শুক্রবার ১৫ হাজার চাকরিপ্রার্থী পরীক্ষায় অংশ নেবেন। তবে একজনকে নিয়োগ দেয়া হবে।

এদিকে, শূন্য একটি পদের তথ্য গোপন রেখে আবেদনপত্র গ্রহণ চাকরিপ্রত্যাশীদের সঙ্গে এক ধরনের প্রতারণা বলে মন্তব্য করেছেন সহকারী শিক্ষক সমিতির বরিশাল সদর উপজেলা সভাপতি আবু জাফর।

তিনি বলেন, অন্য জেলা থেকে বদলি করে বরিশাল সিটি ও সদর উপজেলার শূন্যপদগুলো পূরণ করা হচ্ছে। ফলে নিজ এলাকার চাকরিপ্রত্যাশীরা নিয়োগ সুবিধা থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন। একজন চাকরিপ্রত্যাশীর আবেদন করতে ৪০০-৫০০ টাকা ব্যয় হয়। এটি ভয়ঙ্কর প্রতারণা।

জেলা সহকারী শিক্ষা কর্মকর্তা এ আর মিজানুর রহমান বলেন, চলমান নিয়োগ প্রক্রিয়া সম্পন্ন হতে আরও একবছর সময় লাগবে। এ সময়ের মধ্যে সদর উপজেলায় আরও কয়েকটি পদ শূন্য হওয়ার সম্ভবনা আছে। এসব শূন্যপদে পরীক্ষার্থীদের মধ্যে থেকে পূরণ করা হবে। এছাড়া নিয়োগ বিজ্ঞপ্তিতে শূন্যপদ উল্লেখ করার বিধান নেই। তাই এটি উল্লেখ করা হয়নি।

সাইফ আমীন/এএম/এমকেএইচ

আপনার মতামত লিখুন :