প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগে সুবিধা দেয়ার নামে প্রতারণা, আটক ২

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি যশোর
প্রকাশিত: ০৯:৪৫ এএম, ০১ জুলাই ২০১৯

প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক নিয়োগে পরীক্ষার হলে সুবিধা দেয়ার কথা বলে ৮০ হাজার টাকা হাতিয়ে নেয়ার ঘটনায় দুইজনকে আটক করেছে পুলিশ।

এ ঘটনায় ভুক্তভোগী পরিবার বাদী হয়ে কোতোয়ালি মডেল থানায় মামলা করেছে। গত ২০ জুন যশোর সরকারি এমএম কলেজ মাঠে টাকা লেনদেনের পর ৩০ জুন এ ঘটনায় মামলা হয়।

আটককৃতরা হলেন যশোর শহরের খড়কির শাহ আব্দুল করিম লেনের আজিজুর রহমানের ছেলে আনিছুর রহমান এবং মণিরামপুরের যোগিপোল গ্রামের বিল্লাল হোসেনের ছেলে মেহেদী হাসান ফিরোজ।

মামলার বিবরণে জানা যায়, আসামিদের সঙ্গে কেশবপুর উপজেলার বেগমপুর গ্রামের মোশারফ হোসেন গাজীর মেয়ে পারভীনা খাতুন লাকির পূর্বপরিচয় ছিল। গত ২১ জুন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষার দিন ছিল। আসামিরা লাকিকে পরীক্ষার হলে সুযোগ-সুবিধা দেয়ার জন্য আশ্বস্ত করে। একপর্যায়ে গত ২০ জুন লাকিকে যশোর সরকারি এমএম কলেজ মাঠে ডেকে নিয়ে আসে। সেখানে বসে লাকিকে পরীক্ষার হলে সুবিধা দেয়ার জন্য আসামিরা তার কাছে ৮০ হাজার টাকা দাবি করে। সেখানে বসেই তাদের ৮০ হাজার টাকা দেয়া হয়। কিন্তু ২১ জুন সরকারি এমএম কলেজে পরীক্ষার হলে কোনো সুযোগ-সুবিধা করে দিতে পারেনি তারা। পরে পরীক্ষার্থী লাকি টাকা ফেরত চান। কিন্তু তারা টাকা দেয়নি। বিষয়টি লাকি কোতোয়ালি মডেল থানা পুলিশকে অবহিত করেন। পুলিশ রোববার ওই দুইজনকে আটকের পর আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠায়।

যশোর কোতোয়ালি মডেল থানা পুলিশের ওসি সমীর কুমার সরকার বলেন, প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগে সুবিধা দেয়ার নামে প্রতারণা করায় তাদের আটক করা হয়েছে। পরে তাদেরকে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।

মিলন রহমান/এএম/এমকেএইচ