শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ী রুটে তীব্র স্রোত, ১১ ফেরি বন্ধ

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি মাদারীপুর
প্রকাশিত: ০৩:১৯ পিএম, ১৭ জুলাই ২০১৯

অস্বাভাবিক হারে পদ্মা নদীতে পানি বৃদ্ধি পেয়ে শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ী নৌরুটে তীব্র ঘূর্ণিস্রোতের সৃষ্টি হয়েছে। এ কারণে এই রুটে পারাপার বন্ধ করতে বাধ্য হয়েছে ১১টি ফেরি। মাত্র ৬টি ফেরি দিয়ে পারাপার কোনো মতে সচল রাখা হয়েছে।

ফেরি বন্ধ থাকায় উভয় ঘাটে শতাধিক বাসসহ সহস্রাধিক যানবাহন আটকে পড়েছে। এতে চরম ভোগান্তির শিকার হচ্ছেন যাত্রীরা। পদ্মায় অস্বাভাবিক পানি বৃদ্ধির ফলে চারদিন ধরেই এ নৌরুটে ফেরি চলাচল ব্যাহত হচ্ছিল।

Kathalbari

বিআইডব্লিউটিসি কাঁঠালবাড়ী ঘাট সূত্রে জানা যায়, পদ্মা নদীতে পানি অস্বাভাবিক বাড়ায় শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ী নৌরুটে স্রোতের গতিবেগ আরও বেড়েছে। মূল নদী থেকে লৌহজং টার্নিংয়ের প্রবেশ মুখে সৃষ্টি হয়েছে ভয়াবহ ঘূর্ণাবর্ত। তীব্র স্রোতে চলতে না পারায় মঙ্গলবার সন্ধ্যায় এ রুটের সব ডাম্ব ফেরিসহ ১১টি ফেরি বন্ধ করে দিয়েছে কর্তৃপক্ষ। বাকি ৬টি ফেরি দিয়ে কোনো মতে যাত্রী ও যানবাহন পারাপার করা হচ্ছে। তবে এসব ফেরিও ঝুঁকি নিয়ে পদ্মা পাড়ি দিচ্ছে। এতে কাঁঠালবাড়ী ঘাটে ৬ শতাধিক যানবাহনসহ উভয় পাড়ে সহস্রাধিক যানবাহন আটকা পড়ায় চরম দুর্ভোগের শিকার হচ্ছেন যাত্রী ও পরিবহন শ্রমিকরা।

Kathalbari

তীব্র ঘূর্ণিস্রোতের কারণে চারদিন ধরে ফেরিসহ অন্যান্য নৌযান মাঝে মধ্যে চরের সঙ্গে ধাক্কা খেয়ে কোনো মতে লৌহজং টার্নিং পাড়ি দিচ্ছে। শিমুলিয়া থেকে ছেড়ে আসা সব ফেরি, লঞ্চ,স্পিডবোট উজান বেয়ে অতিরিক্ত সময় নিয়ে পদ্মা পাড়ি দিচ্ছে। প্রতিটি ফেরি ও লঞ্চ পারাপারে দীর্ঘ সময় লাগছে। 

বিআইডব্লিউটিসির কাঁঠালবাড়ী ঘাট ম্যানেজার আ. সালাম বলেন, পদ্মায় পানি বৃদ্ধির হার অস্বাভাবিক। ফলে লৌহজং টার্নিংয়ে ঘূর্ণাবর্ত আরও বেগবান হয়েছে, নদীতে স্রোতও বেড়েছে। ডাম্ব ফেরিসহ বেশিরভাগ ফেরি সন্ধ্যা থেকেই বন্ধ। ৫-৬টি ফেরি কোনো মতে চললেও পারাপারে অনেক সময় লাগছে।

এ কে এম নাসিরুল হক/এমএমজেড/জেআইএম

আপনার মতামত লিখুন :