ছেলেধরা সন্দেহে যুবককে পিটুনির পর পুলিশে সোপর্দ

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি ময়মনসিংহ
প্রকাশিত: ০৩:৩৫ এএম, ২১ জুলাই ২০১৯

ময়মনসিংহের গৌরীপুর উপজেলায় ছেলেধরা সন্দেহে এক যুবককে গণপিটুনির পর পুলিশে দিয়েছে স্থানীয় জনতা। শনিবার (২০ জুলাই) রাত ৮টার দিকে গৌরীপুর ইউনিয়নের হিম্মতনগর বাজার এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

গণধোলাইয়ের শিকার ও আটক যুবকের নাম মো. নাসির উদ্দিন (২৫)। তিনি উপজেলার অচিন্তপুর ইউনিয়নের কৃষ্ণপুর গ্রামের আ. রশিদের ছেলে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, শনিবার রাত আটটার দিকে ওই ব্যক্তিকে গৌরীপুর ইউনিয়নের হিম্মতনগর বাজারে এলাকায় দেখতে পায় স্থানীয়রা। অপরিচিত হওয়ায় তাকে দেখে স্থানীয় লোকজনের সন্দেহ হয়। এক পর্যায়ে উপস্থিত লোকজন ওই ব্যক্তিকে ছেলেধরা সন্দেহে ধাওয়া করে ধরে গণধোলাই দেয়। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার করে তাকে থানায় নিয়ে আসে।

আটক নাসির উদ্দিন জানান, তিনি নরসিংদীতে একটি মুরগির খামারে কাজ করেন। পাশের গ্রামের বন্ধু জুয়েল সাথে দেখা করতে সন্ধ্যা সাড়ে সাতটার দিকে পার্শ্ববর্তী হিম্মতনগর বাজারে আসেন। এ সময় ছেলেধরা সন্দেহে স্থানীয় জনতা তাকে ধাওয়া করে। তিনি গণধোলাই থেকে বাঁচতে দৌঁড়াতে থাকেন। হঠাৎ অন্ধকারে এক বাড়ির সামনে পড়ে যান। এ সময় তাকে একজন জড়িয়ে ধরে ‘গলাকাটা লোক পাইছি’ বলে চিৎকার করে ওঠে। পরিচয় দেয়ার পরও তার কথা না শুনে স্থানীয়রা তাকে বেধড়ক মারধর করে পুলিশের হাতে তুলে দেয়। নিজেকে নির্দোষ বলে দাবি করেন নাসির।

রাতেই এলাকাবাসী, জনপ্রতিনিধি ও তার পরিবারের লোকজন থানায় এসে জানান, নাসির নরসিংদীতে একটি মুরগির খামারে কাজ করেন। সম্প্রতি ছুটিতে বাড়িতে আসেন তিনি। দীর্ঘদিন বাড়িতে না থাকায় এলাকার লোক সেভাবে চেনে না।

গৌরীপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি (তদন্ত) গোলাম মাওলা জানান, ওই যুবক আমাদের কাছে আছে। বিষয়টি তদন্ত করে পরবর্তীতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

রকিবুল হাসান রুবেল/এমএসএইচ

আপনার মতামত লিখুন :