গুঁড়িয়ে দেয়া হলো চারতলা সুপার মার্কেট

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি মানিকগঞ্জ
প্রকাশিত: ০৬:৪০ পিএম, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯

ঢাকা-পাটুরিয়া মহাসড়কের মানিকগঞ্জ বাসস্ট্যান্ড ঘিরে সড়ক ও জনপথ বিভাগের জমিতে গড়ে উঠেছিল ৩০০ দোকান নিয়ে চারতলা সুপার মার্কেট, বিশাল কাঁচাবাজার ও দোকানপাট। স্থানীয় কয়েকজন উদ্যোগ নিয়েছিলেন একটি মসজিদ স্থাপনের। শনিবার দুপুর থেকে এ সব অবৈধ দখল উচ্ছেদ শুরু করে সড়ক ও জনপথ বিভাগ। পাঁচটি বুলডোজার দিয়ে অবৈধ স্থাপনাগুলো গুঁড়িয়ে দেয়া হয়।

চারদিন ধরে সড়ক ও জনপথ বিভাগ থেকে মাইকিং করে উচ্ছেদ অভিযানের কথা জানিয়ে যার যার স্থাপনা সরিয়ে নেয়ার আহ্বান করা হচ্ছিল। তবে মালপত্র সরালেও স্থাপনাগুলো ছিল দাঁড়িয়ে। বুলডোজার দিয়ে উচ্ছেদ শুরু হলে একে একে ভেঙে পড়ে স্থাপনাগুলো। উচ্ছেদ অভিযান দেখতে শত শত উৎসুখ জনতা ভিড় করেন। এ সময় বাসস্ট্যান্ড এলাকাসহ মানিকগঞ্জ শহরে তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয়।

জেলা প্রশাসন ও জেলা পুলিশের সহায়তায় চলমান এই অভিযানের নেতৃত্ব দেন সড়ক ও জনপথ অধিদফতরের ঢাকা জোনের এস্টেট ও আইন কর্মকর্তা যুগ্মসচিব মো. মাহবুবুর রহমান ফারুকী এবং মানিকগঞ্জ সড়ক ও জনপথ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী আমির হোসেন।

উচ্ছেদ অভিযান চলাকালে মো. মাহবুবুর রহমান ফারুকী জানান, ঢাকা-পাটুরিয়া মহাসড়ক চার লেনে উন্নীতকরণ এবং মানিকগঞ্জ প্রধান সড়কের প্রশস্তকরণের জন্য অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করা হয়। অবৈধ দখলদারদের নোটিশ দিয়ে এবং মাইকিং করেও সতর্ক করে দেয়া হয়েছে। কিন্তু অধিকাংশ দখলদার অবৈধ স্থাপনা সরিয়ে নেয়নি। অবৈধ স্থাপনা যারই হোক তা উচ্ছেদ করা হবে। এ ব্যাপারে সরকার কঠোর অবস্থান নিয়েছে।

Manikagnj

প্রসঙ্গত, প্রায় ৩০ বছর আগে মানিকগঞ্জ পৌরসভা গড়ে তোলে পৌর সুপার মার্কেট। এই মার্কেটে দুটি হাসপাতালসহ বেশ কয়েকটি ক্লিনিক এবং প্রায় ৩০০ দোকান রয়েছে। এটি জেলার সবচেয়ে বড় সুপার মার্কেট। কিন্তু এর বেশির ভাগ অংশই সড়ক ও জনপথের জায়গা দখল করে গড়ে উঠেছে।

এছাড়া ঢাকা-পাটুরিয়া মহাসড়ক সংলগ্ন সড়ক ও জনপথ বিভাগের জমিতে গড়ে তোলা হয় একটি মসজিদ। প্রায় দুই বছর আগে মসজিদ উচ্ছেদ করা হলেও পুনরায় স্থাপনের চেষ্টা করছিল স্থানীয় একটি প্রভাবশালী মহল।

বি.এম খোরশেদ/আরএআর/জেআইএম