ঘূর্ণিঝড়ে মেঘনায় ডুবে ৩৭৫ ভেড়ার মৃত্যু

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি লক্ষ্মীপুর
প্রকাশিত: ০৬:৫৯ পিএম, ১০ নভেম্বর ২০১৯
ফাইল ছবি

লক্ষ্মীপুরের রামগতি উপজেলার মেঘনা নদী বেষ্টিত (দ্বীপ) চর আবদুল্লাহ ইউনিয়নে পানিতে ডুবে ৩৭৫টি ভেড়া মারা গেছে। রোববার (১০ নভেম্বর) দুপুর আড়াইটার দিকে ইউনিয়নের নতুন চর এলাকায় নদীর পানি বৃদ্ধি পেয়ে এ ঘটনা ঘটে। এতে প্রায় ৪০ লাখ টাকার ক্ষতি হয়েছে বলে ব্যবসায়ীদের দাবি।

জানা গেছে, প্রায় ৬ বছর আগে কয়েকজন যুবক চর আবদুল্লাহ ইউনিয়নের নতুন চর এলাকায় মাংস উৎপাদনের জন্য ভেড়ার খামার চালু করেন। তারা হলেন, রামগতি পৌরসভার বাসিন্দা আবুল কাশেম, জসিম, হাসান, আবুল কালাম, নিজাম, দিদার, জামাল, মঞ্জু ও নুরনবী। স্থানীয় বাজারসহ লক্ষ্মীপুরের বাইরেও তারা ভেড়া বিক্রি করে আসছেন। কিন্তু ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাবে বৃষ্টি ও নদীর পানি বৃদ্ধি পেয়ে তাদের খামারের ৩৭৫টি ভেড়া ভেসে যায়। ভেড়া সাঁতার কাটতে পারে না। এতে সবগুলো ভেড়ায় মারা গেছে। প্রত্যেকটি ভেড়া ৯ হাজার থেকে ১২ হাজার টাকা পর্যন্ত মূল্যের ছিল।

জানতে চাইলে খামারি আবুল কাশেম বলেন, ৩৮১টি ভেড়ার মধ্যে ৩৭৫টি মারা গেছে। ঘটনাস্থল থেকে খামারের দুই অংশীদার নিজাম ও মঞ্জু খবরটি আমাদেরকে জানিয়েছে। ভেড়াগুলো মরে আমাদের ৪০ লাখ টাকার মত ক্ষতি হয়েছে। এতে আমাদের সর্বনাশ হয়ে গেছে।

চর আবদুল্লাহ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান কামাল হোসেন মঞ্জুর বলেন, ভেড়া পানিতে ডুবে মারা যাওয়ার ঘটনা শুনেছি। তবে কতটি মারা গেছে তা জানা যায়নি।

রামগতি উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. আব্দুল মোমিন বলেন, ঘটনাটি কেউ আমাকে জানায়নি। তবে উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তাকে এ ব্যাপারে খোঁজ নেয়ার জন্য বলছি। আমি নিজেও খোঁজ নিচ্ছি।

প্রসঙ্গত, ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের প্রভাবে লক্ষ্মীপুরের সর্বত্র বৃষ্টি অব্যাহত রয়েছে। মেঘনা নদীতে ২-৩ ফুট পানির উচ্চতা বৃদ্ধি পেয়েছে। এতে চরাঞ্চলসহ নিন্মাঞ্চল প্লাবিত হয়েছে।

কাজল কায়েস/এমএএস/পিআর