ঈদের দিন রাস্তা থেকে তুলে নিয়ে কলেজছাত্রীকে গণধর্ষণ

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি পাবনা
প্রকাশিত: ০৩:১৯ পিএম, ২৬ মে ২০২০
ফাইল ছবি

পাবনার চাটমোহরে এক কলেজছাত্রী গণধর্ষণের শিকার হয়েছে। এ সময় এক স্কুলছাত্রীকেও ধর্ষণের চেষ্টা করা হয়। এ ঘটনায় পুলিশ ৩ জনকে আটক করেছে। ধর্ষণের শিকার ওই কলেজছাত্রীর ডাক্তারি পরীক্ষা করা হয়েছে।

ঈদের দিন (২৫ মে) রাত সাড়ে ৮টার দিকে উপজেলার গুনাইগাছা ইউনিয়নের চরপাড়া গ্রামে গণধর্ষণের এ ঘটনা ঘটেছে।

আটকরা হলেন- চরপাড়া গ্রামের জয়নাল হোসেনের ছেলে শুকুর আলী, মকবুল খন্দকারের ছেলে রেজাউল করিম ও শাহজাহান আলীর ছেলে ইসরাইল হোসেন। এ ঘটনায় জড়িত জামাল হোসেনের ছেলে ফারুক হোসেন পলাতক রয়েছেন।

চাটমোহর থানা ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, ঈদের দিন রাত সাড়ে ৮টার দিকে ওই কলেজছাত্রী (১৭) ও এক স্কুলছাত্রী (১২) বাড়ির পাশেই আরেক বাড়ি থেকে ঝাড়ফুঁক নিয়ে বাড়ি ফিরছিল। পথিমধ্যে ফাঁকা রাস্তায় শুকুরসহ অন্য ৪ জন ওই দুই মেয়েকে মুখ চেপে ধরে পাশের পাট খেতে নিয়ে যায়। সেখানে তারা কলেজ পড়ুয়া মেয়েটিকে পালাক্রমে ধর্ষণ করে। পরে স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের চেষ্টা করলে তাদের চিৎকারে লোকজন বেরিয়ে এসে ৩ জনকে আটক করে। এ সময় পালিয়ে যায় একজন।

খবর পেয়ে রাতেই পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে ৩ জনকে গ্রেফতার করে। পরে পুলিশ ধর্ষণের শিকার কলেজছাত্রীর ও সঙ্গে থাকা স্কুলছাত্রীর জবানবন্দি গ্রহণ করে। মঙ্গলবার (২৬ মে) ডাক্তারী পরীক্ষার জন্য ২ জনকেই পাবনা মেডিকেল কলেজে পাঠানো হয়।

চাটমোহর সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার সজীব শাহরীন মঙ্গলবার ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। তিনি জানান, এটা গণর্ধণের ঘটনা। অপরাধীদের বিরুদ্ধে কঠোর আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

চাটমোহর থানার ওসি শেখ মো. নাসীর উদ্দিন জানান, ধর্ষিতার ডাক্তারি পরীক্ষা করা হয়েছে। আটকদের বিরুদ্ধে গণধর্ষণের মামলা হয়েছে।

একে জামান/এফএ/পিআর

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]