সন্তানদের নিয়ে পালিয়েছিলেন মানসিক ভারসাম্যহীন মা

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি পটুয়াখালী
প্রকাশিত: ১২:১৮ পিএম, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২০

ডাবল ডেকার লঞ্চ প্রিন্স আওলাদ-৭ এ উদ্ধার হওয়া দুই শিশু আটক নারীরই সন্তান। শুক্রবার (১৮ সেপ্টেম্বর) সকাল সাড়ে ১০টায় ঢাকার সদরঘাট লঞ্চ টার্মিনালে ওই লঞ্চের নিচতলায় চিকনিকান্দী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সাজ্জাদ হোসেন রিয়াদের কাছে তাদের হস্তান্তর করে লঞ্চ কর্তৃপক্ষ।

প্রিন্স আওলাদ-৭ লঞ্চের সুপারভাইজার মিলন মোল্লা বলেন, সকালে নির্ধারিত সময়ে লঞ্চ ঢাকার সদরঘাট টার্মিনালে পৌঁছায়। লঞ্চের সকল যাত্রী নেমে গেলে চিকনিকান্দী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সাজ্জাদ হোসেন রিয়াদ সদরঘাট থেকে লঞ্চে পৌঁছান। এ সময় শিশুটির বাবা ইমাম খানের ভাগিনা, স্বজন তরিকুল ইসলাম ও বেল্লাল হোসেন উপস্থিত ছিলেন।

তিনি আরও বলেন, ওই নারীর সঙ্গে ইমাম খানের বিচ্ছেদ হয়েছে। ওই শিশু দুটি তারই সন্তান। তিনি মানসিক ভারসাম্যহীন। বিচ্ছেদের পর থেকে ছেলে ও মেয়ে তাদের দাদির কাছে বড় হচ্ছিল। ওই নারী বাচ্চাদের জন্য অনেক কান্নাকাটি করেন। তিনি প্রায় দিনই লুকিয়ে বাচ্চাদের নিয়ে বাড়ি থেকে পালানোর চেষ্টা করেন। কিন্তু মায়ের সঙ্গে শিশুদের অনেক দূরত্ব তৈরি হয়েছে। তাই তারা কাল লঞ্চের যাত্রীদের বলেছিল ওই নারী তাদের মা না।

আজ সকালে লঞ্চের ভিআইপি লাউঞ্জে বসে চিকনিকান্দী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সাজ্জাদ হোসেন রিয়াদ বন্ডসই দিয়ে মানসিক ভারসম্যহীন নারী এবং তার ছেলে জাবের ও মেয়ে জেরিনকে হস্তান্তর করেন।

উল্লেখ্য, গতকাল রাতে ছেলেধরা সন্দেহে ঢাকাগামী ডাবল ডেকার লঞ্চ প্রিন্স আওলাদ-৭ এ দুই শিশু উদ্ধারসহ এক নারীকে আটক করে যাত্রীরা।

মহিবুল্লাহ চৌধূরী/এফএ/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]