নির্দেশনা মাথায় নিয়েই চলছে পূজার প্রস্তুতি

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি চাঁদপুর
প্রকাশিত: ০৯:৪৮ এএম, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২০

সার্বজনীন ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দুর্গাপূজার বেশি দিন বাকি নেই। সারাদেশের মতো চাঁদপুরেও পূজামণ্ডপগুলোতে চলছে প্রতিমা তৈরির কাজ। যদিও এ বছর মহামারি করোনার প্রাদুর্ভাবের কারণে পূজা উদযাপন নিয়ে কিছুটা সংশয় তৈরি হয়েছিল। পরবর্তীতে সরকার পূজা উদযাপনের কিছু বিধি-নিষেধ বেধে দেয়। আর তাই সরকার প্রদত্ত নির্দেশনা মেনেই পূজা উদযাপনের প্রস্তুতি নিচ্ছে চাঁদপুর পূজা উদযাপন পরিষদ কমিটি।

জানা যায়, এ বছর জেলা কমিটির কাছে কেন্দ্রীয় পূজা উদযাপন পরিষদের পক্ষ থেকে ২৬টি নীতিমালা পাঠানো হয়েছে। যার মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলো, পূজায় কোনোরকম আতশবাজি করা যাবে না, কোনো প্রকার স্পিকার বা শব্দ দূষণকারী বাদ্যযন্ত্র ব্যবহার করা যাবে না, অল্প পরিসরে পূজা উদযাপনের দিকে নজর রাখতে হবে, শোভাযাত্রায় বিসর্জন যতটুকু সম্ভব সীমিতভাবে শেষ করতে হবে।

সরেজমিনে শহরের কালী মন্দির, শীতলা মায়ের মন্দির, হরি সভা মন্দির, গোপাল আখরা, দাসপাড়া সার্বজনীন শ্রী শ্রী দুর্গা মন্দিরসহ বেশ কয়েকটি মন্দির ঘুরে দেখা যায়, দুর্গাপূজা উপলক্ষে প্রতিমা তৈরির কাজ অনেকটাই শেষের পথে। প্রত্যেকটি মন্দিরেই দেখা গেছে কারিগররা সুনিপুণভাবে তৈরি করছেন প্রতিমা।

ফরিদপুর থেকে আগত প্রতিমা তৈরির কাজে নিয়োজিত কারিগর গোবিন্দ পাল, বাসুদেব পাল, চিত্তবাবুসহ আরও বেশ কয়েকজনের সঙ্গে আলাপকালে তারা জানান, অন্যান্য বছরের তুলনায় এ বছর প্রতিমা তৈরির কাজ অনেক কম। আমরা যা কারিগর নিয়ে এসেছিলাম অনেককেই বাড়িতে পাঠিয়ে দিয়েছি কারণ কারিগরের তুলনায় প্রতিমা তৈরির অর্ডার অনেক কম। আর অর্ডার কম থাকায় আমরা খুব সমস্যায় পড়েছি।

এ বিষয়ে চাঁদপুর জেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক তমাল কুমার ঘোষ জানান, গত বছরের তুলনায় এ বছর দুই একটি পূজা মণ্ডপ কমতে পারে তবে বাড়ার কোনো সম্ভাবনা নেই। যদিও উপজেলা ভিত্তিক মণ্ডপের পরিসংখ্যান এখনও আমাদের হাতে এসে পৌঁছায়নি। ইতোমধ্যে আমরা কেন্দ্রীয় পূজা পরিষদ থেকে প্রদত্ত ২৬টি নির্দেশনা উপজেলা কমিটির হাতে হস্তান্তর করেছি। প্রতিটি পূজামণ্ডপে যেন কোনো ধরনের বিশৃঙ্খলার সৃষ্টি না হয় সেজন্য উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের নেতৃবৃন্দকে সজাগ দৃষ্টি রাখার জন্য বলা হয়েছে। আমরা অতি শিগগিরই জেলা প্রশাসন ও পুলিশ সুপারের সঙ্গে শারদীয় দুর্গা উৎসব সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণভাবে উদযাপনের মতবিনিময় সভা করব।

এফএ/পিআর

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]