নিখোঁজের পর বাড়ির পাশের নদীতে মিলল স্কুলছাত্রীর মরদেহ

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি ঠাকুরগাঁও
প্রকাশিত: ০৩:১৮ এএম, ২৩ নভেম্বর ২০২০

ঠাকুরগাঁওয়ে নিখোঁজের ৩৬ ঘণ্টা পর বাড়ির পাশের নদী থেকে স্বপ্না দাস (১২) নামের এক স্কুলছাত্রীর মরদেহ উদ্ধার করেছে স্থানীয়রা। রোববার (২২ নভেম্বর) ভোরে তার মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

স্বপ্না দাস বালিয়াডাঙ্গি উপজেলার চাড়োল ইউনিয়নের পরদেশী পাড়া গ্রামের রবিন দাসের মেয়ে। সে উপজেলার মধুপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের ৮ম শ্রেণিরর ছাত্রী।

পরিবারের সদস্যরা জানান, গত শুক্রবার সন্ধায় স্বপ্না দাস মাছ রান্নার কাজে মাকে সাহায্য করছিল। এক পর্যায়ে টয়লেটে যাওয়ার কথা বলে সে রান্না ঘর থেকে বের হয়। এরপর আর ঘরে ফেরেনি। তাকে খোঁজার সময় টয়লেটের সামনে জুতা ও পানির পাত্র পড়ে থাকতে দেখা যায়। অবশেষে রোববার সকালে বাড়ির পাশের তিরনই নদী থেকে তার মরদেহ পাওয়া যায় ।

বালিয়াডাঙ্গী চাড়োল ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান দীলিপ কুমার চ্যাটার্জী বলেন, গ্রামবাসীর মধ্যে কেউ কেউ কুসংস্কারের কথা বলছেন যে, মেয়েটিকে জ্বিন বাড়ি থেকে নিয়ে গিয়ে নদীতে ডুবিয়ে মেরেছে। তবে বিষয়টি পুলিশ দেখছে। অবশ্যই এর একটা সঠিক কারণ সামনে আসবে। অপরদিকে স্বপ্নার মা আসন্তা দাস ও বাবা রবিন দাসের দাবি, তার মেয়ের স্বাভাবিক মৃত্যু হয়নি। তাকে হত্যা করা হয়েছে।

বালিয়াডাঙ্গী থানার ওসি (তদন্ত) আব্দুস সবুর বলেন, এটা যে কোনো স্বাভাবিক মৃত্যু নয় তা বোঝাই যাচ্ছে। তদন্ত করার পর বলা সম্ভব হবে স্বপ্নার মৃত্যুর রহস্য।

তানভীর হাসান তানু/এমএসএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]