৫০ বছরের জন্য টেকসই প্রকল্প বাস্তবায়ন করতে চাই : উপমন্ত্রী শামীম

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি চাঁদপুর
প্রকাশিত: ০৬:৪৩ পিএম, ২৪ নভেম্বর ২০২০

পানিসম্পদ উপমন্ত্রী এনামুল হক শামীম বলেছেন, চাঁদপুর এবং শরীয়তপুর নদী ভাঙা এলাকা। এসব এলাকা অনেক ঝুঁকিপূর্ণ।

ইতোমধ্যে দেশের সব ঝুঁকিপূর্ণ এলাকা চিহ্নিত করেছি। সবগুলোতেই স্থায়ী প্রকল্প প্রণয়ন করা হয়েছে। ৪২০ কোটি টাকার প্রকল্প আমরা প্রণয়ন করেছি। পাঁচ-দশ বছরের জন্য প্রকল্প করতে চাই না। অন্তত ৫০ বছরের জন্য টেকসই প্রকল্প বাস্তবায়ন করতে চাই।

মঙ্গলবার (২৪ নবেম্বর) বেলা ১১টায় চাঁদপুর শহর রক্ষা বাঁধের হরিসভা এলাকা পরিদর্শন করতে এসে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন।

উপমন্ত্রী বলেন, আমাদের অর্থনৈতিক সক্ষমতা বেড়েছে। দেশের প্রায় ১৬ হাজার ৭০০ কিলোমিটার বাঁধ রয়েছে। তার মধ্যে পাঁচ হাজার ৭৫৭ কিলোমিটার উপকূলীয় অঞ্চলের বাঁধ। আড়াই হাজার কিলোমিটার সাধারণ বাঁধ। সারাদেশে ডেল্টা প্ল্যান বাস্তবায়ন করা হচ্ছে। আশা করছি, ৪২০ কোটি টাকার প্রকল্পের আওতায় চাঁদপুর শহর সংরক্ষণ প্রকল্প পুনরায় নির্মাণ আগামী বর্ষার আগেই সম্পন্ন করতে পারব।

এনামুল হক শামীম বলেন, আমরা মেঘনা টানেল করতে চাই। বর্তমান সরকারের মেয়াদের শেষ দিকে হলেও টানেল অথবা সেতুর ভিত্তিপ্রস্তর উদ্বোধন করতে চাই। সব কিছু বাস্তবতার আলোকে পর্যবেক্ষণ করা হচ্ছে। কোন পয়েন্টে টানেল বা সেতু হবে তা টেকনিক্যাল কমিটি নির্ধারণ করবে। চাঁদপুর এবং শরীয়তপুরে শুধু গাড়ি নয়; রেল সংযোগ স্থাপন করব।

এরপর শরীয়তপুর নরসিংহপুর ফেরিঘাটে উপস্থিত হয়ে শরীয়তপুর-চাঁদপুর ফেরিঘাট এলাকার সংযোগ সড়ক পরিদর্শন করেন উপমন্ত্রী।

এ সময় চাঁদপুরের জেলা প্রশাসক মো. মাজেদুর রহমান খান, পুলিশ সুপার মো. মাহাবুবুর রহমান, পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মামুন হাওলাদারসহ স্থানীয় কর্মকর্তা ও আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

নজরুল ইসলাম আতিক/এএম/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]