ট্রলির ধাক্কায় অটোরিকশা চালক নিহত, আহত ৫

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি টাঙ্গাইল
প্রকাশিত: ০৪:২৩ পিএম, ০৫ ডিসেম্বর ২০২০

টাঙ্গাইলের নাগরপুর উপজেলায় ট্রলির চাপায় মো. সেন্টু মিয়া (৩৫) নামের এক অটোরিকশা চালকের মৃত্যু হয়েছে।

শনিবার (৫ ডিসেম্বর) সকাল সাড়ে ১০টার দিকে টাঙ্গাইল-আরিচা মহসড়কের উপজেলা ফায়ার সাভিস স্টেশনের সামনে এ দুর্ঘটনাটি ঘটে। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন অটোরিকশার পাঁচ যাত্রী ।

নিহত মো. সেন্টু মিয়া উপজেলার চাষাভাদ্রার গ্রামের আব্দুর মজিদ মিয়ার ছেলে।

আহতরা হলেন- ঘিওর উপজেলার হেমন্তি (৬৫), পলাশ (২৪) দৌলতপুর উপজেলার রফিক শেখ (৩৫), কাবিল (৩২) ও টাঙ্গাইল সদরের অমিত (৩২)।

নাগরপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আনিসুর রহমান আনিস জানান, দুর্ঘটনা কবলিত ট্রলি ও অটোরিকশা জব্দ করা হয়েছে। তবে ঘাতক চালক পালিয়ে গেছে।

jagonews24

প্রত্যক্ষ্যদর্শী, পুলিশ ও হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়, শনিবার (৫ ডিসেম্বর) সকাল সাড়ে ১০টার দিকে একটি যাত্রীবাহী অটোরিকশা নাগরপুর থেকে টাঙ্গাইল যাওয়ার পথে উপজেলা ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স স্টেশনের সামনে পৌঁছলে বিপরীত দিক থেকে আসা একটি ইট বহনকারী ট্রলির সঙ্গে অটোরিকশার ধাক্কা লাগে। এতে ট্রলারটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে অটোরিক্সসহ খাদে পড়ে যায়।

নাগরপুর উপজেলা ফায়ার সাভিস স্টেশনের ম্যানেজার মেহেদী হাসান বলেন, ঘটনাস্থল থেকে আহত তিনজনকে নাগরপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পাঠানো হয়েছে। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক সেন্টু মিয়াকে মৃত ঘোষণা করেন।

এছাড়া স্থানীয়রা আহত আরও তিনজনকে উদ্ধার করে নাগরপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। আহত পাঁচ জনের মধ্যে দুই জনের অবস্থা আশংকাজনক হওয়ায় উন্নত চিকিৎসার জন্য তাদের টাঙ্গাইল সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে বলে জানিয়েছেন উপজেলা স্বাস্থ্য ও প.প কর্মকর্তা ডা. রোকনুজ্জামান।

আরিফ উর রহমান টগর/এসএমএম/এমকেএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]