মুক্তিযোদ্ধাকে কোপানোর পর মামলা তুলে নিতে হুমকির অভিযোগ

উপজেলা প্রতিনিধি উপজেলা প্রতিনিধি কুয়াকাটা (পটুয়াখালী)
প্রকাশিত: ০৯:৫৩ পিএম, ০৫ ডিসেম্বর ২০২০

চাঁদা না পেয়ে বীর মুক্তিযোদ্ধা শাহ আলম হাওলাদারকে কুপিয়ে জখমের ঘটনায় দায়ের হওয়া মামলা তুলে নিতে হুমকির অভিযোগ উঠেছে। গত ২৯ নভেম্বর পটুয়াখালীর কলাপাড়া উপজেলার চাকামইয়া ইউনিয়নের ইসলামপুর গ্রামে এ হামলার ঘটনা ঘটে। পরে সেই রাতেই মামলা দায়ের করেন আহত বীর মুক্তিযোদ্ধার স্ত্রী আকলিমা বেগম।

আর এই মামলা দায়েরের পর থেকেই প্রতিপক্ষের লোকজন বিভিন্নভাবে হুমকি-ধামকি দিচ্ছেন বলে অভিযোগ করেছেন এই বীর মুক্তিযোদ্ধার স্বজনরা। এ নিয়ে শনিবার (৫ ডিসেম্বর) দুপুরে কলাপাড়া রিপোর্টার্স ক্লাব হলরুমে সংবাদ সম্মেলন করে বীর মুক্তিযোদ্ধা শাহ আলম হাওলাদারের পরিবার।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন বীর মুক্তিযোদ্ধা শাহ আলম হাওলাদারের ভাতিজা (শ্যালকের ছেলে) মো. ছগীর হোসেন।

তিনি বলেন, ‘গত ২৯ অক্টোবর টিয়াখালী ইউনিয়ন চেয়ারম্যান সৈয়দ মশিউর রহমান শিমু’র সন্ত্রাসী “ভাইয়া” বাহিনীর ২০/২৫ জন সন্ত্রাসীরা দেশীয় অস্ত্রসস্ত্র নিয়ে বীর মুক্তিযোদ্ধা শাহ আলম হাওলাদারের বাড়িতে ও বিসমিল্লাহ্ ব্রিক ফিল্ডে হামলা চালায়। এ সময় তারা আমার ফুফা এবং ভাইকে কুপিয়ে ও পিটিয়ে জখম করে। পরে এ ঘটনায় আমরা ১০ জনের বিরুদ্ধে কলাপাড়া থানায় একটি মামলা করি।’

সংবাদ সম্মেলনে ছগীর হোসেন অভিযোগ করে বলেন, ‘মামলা করার পর ভাইয়া বাহিনী আমার ফুফু আকলিমা বেগমসহ আমাদেরকে মামলা তুলে নেয়ার জন্য হুমকি দেয়। তারা আমার বাবাকে বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে যায় এবং মামলা প্রত্যাহারের জন্য জীবননাশের হুমকি দেয়।’

ভুক্তভোগীর ভাতিজা বলেন, ‘দীর্ঘদিন ধরে ওই চক্রটি টিয়াখালী ইউনিয়নে মাদক বিক্রি ও মাদক সেবন করে মোটরসাইকেল শোডাউন দিয়ে স্কুলগামী ছাত্রীদের কুপ্রস্তাব ও সাধারণ মানুষের ওপর অত্যাচারসহ নানা অপকর্মে লিপ্ত রয়েছে।’

লিখিত বক্তব্যে তিনি আরও বলেন, ‘টিয়াখালী ইউনিয়ন চেয়ারম্যান সৈয়দ মশিউর রহমান শিমু’র স্ত্রী বিএনপি নেত্রী খাদিজা আক্তার এলিজা আসন্ন চাকামইয়া ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন প্রার্থী হবে। তাই এলিজার নেতৃত্বে যারা চলবে না তাদেরকে তার সন্ত্রাসী বাহিনী দিয়ে প্রতিদিন নির্যাতন করছে। এই অন্যায়-অত্যাচার থেকে চাকামইয়া ইউনিয়নের মানুষ মুক্তি চায়।’

সংবাদ সম্মেলনে চাকামইয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আ. বারেক হাওলাদার, ইউনিয়ন কৃষকলীগ সভাপতি মিজানুর রহমান, ইউনিয়ন ছাত্রলীগ সভাপতি ও বর্তমান ইউপি সদস্য আল আমিন হাওলাদার, ৩ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ সভাপতি আনোয়ার হোসেন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

কাজী সাঈদ/এমআরআর/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]