কুয়াকাটা সৈকতের বালু ক্ষয় রোধে প্রতিরক্ষার কাজ শুরু

উপজেলা প্রতিনিধি উপজেলা প্রতিনিধি কলাপাড়া (পটুয়াখালী)
প্রকাশিত: ১০:৪৫ এএম, ০২ মার্চ ২০২১

কুয়াকাটা সৈকতের বালু ক্ষয় রোধসহ প্রতিরক্ষার কাজ শুরু হয়েছে। সৈকতের জিরো পয়েন্ট থেকে দুই দিকে দেড় কিলোমিটার এলাকায় জিও টিউব এবং জিও ব্যাগ দিয়ে এই প্রতিরক্ষার কাজ চলছে।

ইতোমধ্যে প্রায় ৭০০ মিটার এলাকার কাজ সম্পন্ন হয়েছে। কাজটি সম্পন্ন হলে কুয়াকাটা সমুদ্র সৈকতের বালু ক্ষয় বন্ধ হওয়া সহ ঝুঁকিমুক্ত হবে পর্যটনকেন্দ্র কুয়াকাটা।

পানি উন্নয়ন বোর্ড কলাপাড়ার নির্বাহী প্রকৌশলী দফতরের উপ-সহকারী প্রকৌশলী সৈয়দ তারিকুর রহমান তুহিন জানান, ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান বিজে জিও টেক্সটাইল লিমিটেড অ্যান্ড আবুল কালাম আযাদ যৌথভাবে এ কাজটি করছে। এ কাজের জন্য প্রকল্পটির ব্যয় ধরা হয়েছে তিন কোটি ৬৪ লাখ টাকা।

কুয়াকাটা সৈকতের জিরো পয়েন্টের পশ্চিম দিকে ৩০০ মিটার এবং পূর্ব দিকে ১২ শ মিটার দীর্ঘ এই প্রতিরোধ দেয়া হবে। দেড় কিমি সৈকত প্রতিরক্ষায় ৩৫ হাজার ২৫০ কেজি জিও ব্যাগ দরকার হবে। ফলে সাগরের উত্তাল ঢেউ থেকে রক্ষা পাবে সৈকতের বেলাভূমি।

পরীক্ষামূলক এই প্রকল্প বাস্তবে টেকসই হলে গোটা সৈকতে পর্যায়ক্রমে এভাবে প্রতিরক্ষা দেয়া হবে। তবে এই টিউব ও জিও ব্যাগের ওপর দিয়ে জেলেরা প্রতিনিয়ত মাছ ধরার ইঞ্জিনচালিত নৌকা ওঠা-নামানোর কাজ করায় বালু বোঝাই জিও টিউব ও ব্যাগ ছিড়ে যাওয়ার শঙ্কা রয়েছে।

কুয়াকাটা পৌর মেয়র জানান, এই প্রকল্পটি বাস্তবায়িত হলে কুয়াকাটার জিরো পয়েন্টসহ আশপাশের এলাকা ঝুঁকিমুক্ত হবে।

কুয়াকাটা বীচ ম্যানেজমেন্ট কমিটির সদস্য সচিব ও কলাপাড়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার আবু হাসনাত মোহাম্মদ শহীদুল হক বলেন, প্রকল্পটি বাস্তবায়িত হলে এটি সংরক্ষণের জন্য সকল ব্যবস্থা নিব। এটি রক্ষায় সকলের যত্নবান হতে হবে।

এসএমএম/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]