সাংবাদিক মুজাক্কির হত্যা মামলা নিয়ে ষড়যন্ত্র হচ্ছে : কাদের মির্জা

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি নোয়াখালী
প্রকাশিত: ০৮:৪২ পিএম, ০৭ মার্চ ২০২১
ফাইল ছবি

নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জে সাংবাদিক মুজাক্কির হত্যা মামলা ভিন্ন খাতে প্রবাহিত করার ষড়যন্ত্র হচ্ছে বলে অভিযোগ করেছেন বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আবদুল কাদের মির্জা।

রোববার (৭ মার্চ) সন্ধ্যায় বসুরহাটে ৭ মার্চের আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ অভিযোগ করেন।

তিনি বলেন, ‘আজ (রোববার) মুজাক্কির হত্যা মামলায় দু’জনকে গ্রেফতার করে টাকার বিনিময়ে একজনকে ছেড়ে দিয়ে অপরজনকে নাকি গ্রেফতার দেখানো হয়েছে।’

এসময় মামলাটি গোয়েন্দা সংস্থা ডিজিএফআই বা জাতীয় নিরাপত্তা সংস্থা (এনএসআই) অথবা ঢাকা থেকে জুডিশিয়াল ইনকোয়ারি করার দাবি করেন কাদের মির্জা।

তিনি বলেন, ‘ওই তদন্তে যদি আমিও এ হত্যাকাণ্ডে সাথে জড়িত থাকি, তাহলে আমারও বিচার করা হোক।’

কাদের মির্জা বলেন, ‘এখানে প্রশাসনের দুঃশাসন চলছে। একরাম-নিজামের (নোয়াখালী ও ফেনীর এমপি) অস্ত্রবাজরা বসুরহাটে তাণ্ডব চালিয়েছে। আমার বসুরহাট পৌর এলাকায় এসব আমি বরদাশত করবো না।’

উপরে আল্লাহ আর নিচে আমার নেত্রী শেখ হাসিনা ছাড়া আর কারো সাথে আমি নাই উল্লেখ করে কাদের মির্জা বলেন, ‘কে কত বড় নেতা সবাইকে আমি চিনি। ওয়ান ইলেভেনের সময় সব নেতাকে আমি দেখেছি। এখান থেকে ঢাকা পর্যন্ত কে কি করেছেন আমি সব জানি।’

তিনি আক্ষেপ করে বলেন, ‘৪৭ বছরের রাজনীতিতে আমি যাদের পুনর্বাসন করেছি, তারা আজ আমার সাথে নেই। তার কারণ আমি মাদকের বিরুদ্ধে কথা বলেছি। আগামী ইউপি নির্বাচন অবাধ ও সুষ্ঠু হওয়ার বিষয়ে বলে আসছি।’

বামনী ডিগ্রী কলেজের অধ্যক্ষ রাহবার হোসেনের সভাপতিত্বে উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি হাসান ইমাম বাদল (কাদের মির্জা ঘোষিত), সাংস্কৃতিক বিষয়ক সম্পাদক শওকত আজিম জাবেদ, সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব শহীদ উদ্দিন বাবুলসহ সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

আরএইচ/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]