পাগলকে পেটালেন মসজিদের ইমাম, চিকিৎসা মিলল না হাসপাতালে

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি গোপালগঞ্জ
প্রকাশিত: ০৯:২৯ পিএম, ০১ এপ্রিল ২০২১

গোপালগঞ্জের কাশিয়ানী উপজেলায় এক পাগলকে পিটিয়ে গুরুতর আহত করেছেন স্থানীয় মসজিদের এক ইমাম। বৃহস্পতিবার (১ এপ্রিল) উপজেলার ভাটিয়াপাড়া উড়াল সেতুর নিচে এ ঘটনা ঘটে।

এদিকে গুরুতর আহত হওয়া সত্ত্বেও অভিভাবক না থাকায় কাশিয়ানী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে তাকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে হাসপাতাল থেকে ছেড়ে দেয়া হয়েছে। ওই সময় তিনি অচেতন ছিলেন এবং তার পা দিয়ে রক্ত ঝরছিল।

বিকেলে অজ্ঞাত ওই পাগলকে পিটিয়ে গুরুতর আহত করেন পিংগলিয়া দক্ষিণ-পূর্ব পাড়া বাইতুন নূর জামে মসজিদের ইমাম রফিকুল ইসলাম (২৭)। তিনি গোপালগঞ্জ সদরের কাজুলিয়া গ্রামের আব্দুল ওয়াদুদ দাড়িয়ার ছেলে।

মসজিদটি নতুন হওয়ায় ইমামতির পাশাপাশি তিনি টাকা আদায় করেন বলে অভিযোগ করেন এলাকাবাসী।

স্থানীয়রা জানান, এলাকাবাসী পাগলকে গুরুতর আহত অবস্থায় কাশিয়ানী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে এলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে দায়সারা চিকিৎসা দিয়ে ভ্যানে ফেলে রাখেন।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, ভ্যানচালক ওই ব্যক্তিকে নিয়ে হাসপাতাল থেকে বের হয়ে যাচ্ছেন। তিনি জাগো নিউজকে বলেন, ‘ডাক্তারসাব একটা ইনজেকশন দেছে। পাগলের কেউ না থাকায় ভর্তি না নিয়ে চলি যাতি কইছে।’

jagonews24

হাসপাতাল গেটের চায়ের দোকানদার রফিকুল ইসলাম মন্টু বলেন, ‘পাগল হলিও সে মানুষ। তারে চিকিৎসা দিতি হবে। ঘটনাডা ভালো হয় নাই। আমি এর বিচার চাই।’

জানতে চাইলে কর্তব্যরত চিকিৎসক আবরার নাদিম বলেন, ‘আমি তাকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়েছি। অভিভাবক না থাকায় তাকে ভর্তি করা সম্ভব হলো না।’

কাশিয়ানী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ভারপ্রাপ্ত আবাসিক মেডিকেল অফিসার ওমর আলী বলেন, কর্তব্যরত চিকিৎসক যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করতে পারেননি। তিনি সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের সঙ্গে কথা বলে ব্যবস্থা গ্রহণ করতে পারতেন।

কাশিয়ানী থানার উপপরিদর্শক (এসআই) জুনায়েদ হোসেন জাগো নিউজকে বলেন, ‘একজন পাগলকে মারধরের খবর পেয়ে আমরা ঘটনাস্থলে যাই। পাগলকে মারধর করায় উত্তেজিত এলাকাবাসী ইমামকে মারতে উদ্যত হলে তাদের হাত থেকে ইমামকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসি। পরে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে গিয়ে ভিকটিমের শারীরিক অবস্থা দেখতে গেলে তাকে আমরা হাসপাতালে পাইনি।’

কাশিয়ানী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) রথীন্দ্র নাথ রায় মোবাইল ফোনে জাগো নিউজকে বলেন, ‘পাগল হলেও তাকে চিকিৎসা সেবা দিতে হবে। আমি হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের সঙ্গে কথা বলে এ বিষয়ে ব্যবস্থা গ্রহণ করছি।’

এসআর/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]