চাঁদা না পেয়ে শিল্পপার্কের কাজে ছাত্রলীগ নেতার বাঁধার অভিযোগ

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি সিরাজগঞ্জ
প্রকাশিত: ০৫:৩৮ এএম, ১১ এপ্রিল ২০২১

সিরাজগঞ্জে বিসিক শিল্পপার্ক প্রকল্প এলাকায় মালামাল প্রবেশে বাঁধা ও চাঁদা দাবির অভিযোগ উঠেছে জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক প্রকৌশলী আব্দুল্লাহ বিন আহমেদসহ তিনজনের বিরুদ্ধে।

গত ২৩ মার্চ বিসিক শিল্পপার্কের (ঢাকা) চেয়ারম্যান মোশ্‌তাক হাসান স্বাক্ষরিত চিঠিতে অভিযোগ করা হয়েছে। যার স্মারক নং-বিশিপা/ সিরাজ/ প্রশা. ও অফিস আদেশ-০৫/২০২০/২১৭১। একইসঙ্গে সিরাজগঞ্জ বিসিক শিল্পপার্ক প্রকল্প বাস্তবায়নে সার্বিক সহযোগিতার জন্য পুলিশের মহাপরিদর্শক, সিরাজগঞ্জ জেলা প্রশাসক, পুলিশ সুপার, র‌্যাব-১২, পৌর মেয়র ও সিরাজগঞ্জ-২ আসনের এমপিকে চিঠির অনুলিপি পাঠিয়েছেন বিসিক চেয়ারম্যান মোশ্‌তাক হাসান।

অভিযোগে বিসিক চেয়ারম্যান উল্লেখ করেছেন, বিসিক কর্তৃক বাস্তবায়িত হচ্ছে সিরাজগঞ্জ শিল্পপার্ক। যেখানে ৪০০ একর জমির উপর নির্মিত শিল্পপার্কটির মাধ্যমে উত্তরাঞ্চলের অর্থনীতিকে শক্তিশালী করতে অগ্রণী ভুমিকা রাখবে। এখানে দেশি-বিদেশি আধুনিক শিল্প স্থাপনের মাধ্যমে অন্তত এক লাখ মানুষের কর্মসংস্থানের মাধ্যমে বেকার সমস্যার সমাধান হবে। এরই ধারাবাহিকতায় প্রকল্পের বাউন্ডারি ওয়াল, রাস্তা, অফিস ভবন, ড্রেন-কালভার্ট নির্মাণে মালামাল প্রবেশে স্থানীয়ভাবে বাঁধা প্রদান, চাঁদাবাজি, অযাচিত উৎপাতের কারণে প্রকল্পের কার্যক্রমে ব্যাহত করছে। সিরাজগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগ নেতা আব্দুল্লাহ বিন আহমেদ, ছোবহান আলী ও রফিক গং বাহিনী এ অপতৎপরতা চালাচ্ছে। তারা বিভিন্ন সময়ে সময় হুমকি-ধামকিসহ মোটা অঙ্কের চাঁদা দাবি করছেন।’

jagonews24.com

বিসিক শিল্পপার্ক সিরাজগঞ্জের সহকারী মহাব্যবস্থাপক মো. সাজিদুল ইসলাম বলেন, ‘শিল্পপার্কের ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান সরাসরি ঢাকা অফিসে অভিযোগ দিয়েছেন। বিষয়টি আমি শুনেছি। ঢাকা অফিস প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেবে।’

জানতে চাইলে অভিযুক্ত ছাত্রলীগ নেতা প্রকৌশলী আব্দুল্লাহ বিন আহমেদ বলেন, ‘প্রকল্পের বাউন্ডারি ওয়াল, রাস্তা, অফিস ভবন, ড্রেন-কালভার্ট কাজের সাব-ঠিকাদার আমি নিজেই। এখানে চাঁদা বা হুমকির প্রশ্নই আসে না। প্রকল্পের মূল ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান মাজেদ অ্যান্ড সন্স আমার বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ দিতে পারে।’

ইউসুফ দেওয়ান রাজু/এএএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]