জমি নিয়ে দু’পক্ষের সংঘর্ষ, চেয়ারম্যান প্রার্থীসহ আহত ৮

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি মাদারীপুর
প্রকাশিত: ০৯:১৫ এএম, ২৩ এপ্রিল ২০২১

মাদারীপুরের শিবচরে জমি নিয়ে কথা কাটাকাটির জেরে দু’পক্ষের সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে ইউপি নির্বাচনের চেয়ারম্যান প্রার্থীসহ আটজন আহত হয়েছেন। আহতরা ঢাকা ও শিবচর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি রয়েছেন।

বৃহস্পতিবার (২২ এপ্রিল) বিকেলে মাদবরচর ইউনিয়নের বেইলি ব্রিজ এলাকায় এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

জানা যায়, স্থগিত হওয়া শিবচর উপজেলার মাদবরচর ইউপি নির্বাচনের চেয়ারম্যান প্রার্থী হারুন আকনের সঙ্গে অপর চেয়ারম্যান প্রার্থী ফজলুল হক মুন্সীর সমর্থক আইয়ুব আলী মাস্টারের প্রায় এক সপ্তাহ আগে জমি নিয়ে কথা কাটাকাটি ও হাতাহাতি হয়। এরই জেরে বৃহস্পতিবার বিকেলে মাদবরচর ইউনিয়নের বেইলি ব্রিজ এলাকায় আবারও হারুন আকন ও আইয়ুব আলী মাস্টারের সংঘর্ষ বাঁধে।

এসময় দু’পক্ষের লোকজনও সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়েন। এতে চেয়ারম্যান প্রার্থী হারুন আকন ও তার দুই-তিনজন সমর্থক আহত হন। আর অপরপক্ষের মাওলাকাত ফকির (৬৫), তার ছেলে শাহাদাৎ ফকির (৩০), মেয়ে খাদিজা বেগম (২০), ছোট ভাই বাবুল মাস্টার ও আইয়ুব আলী মাস্টার (৫০) আহত হন।

আহতদের শিবচর হাসপাতালে আনার পথে পৌরসভার কলেজ মোড় এলাকায় হারুন আকনের লোকজন আবারও হামলা চালায় বলে অভিযোগ করেন আহতরা।

আহত চেয়ারম্যান প্রার্থীকে ঢাকায় ও অপর আহতদের শিবচর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

madarepur1

আহত মাওলাকাত ফকির বলেন, আমার ভাই বাবুল মাস্টার আর আইয়ুব আলী মাস্টার বেইলি ব্রিজ এলাকার ভিআইপি মোড়ে দাঁড়িয়ে গল্প করছিলেন। এসময় হারুন আকনের নেতৃত্বে তার লোকজন হঠাৎ করে তাদের ওপর হামলা চালায়।

তিনি আরো বলেন, হামলার কথা শুনে আমি ও আমার ছেলে বাধা দিতে গেলে তারা আমাদের মারধর করে। এরপর আমার বাড়িতে হামলা চালিয়ে ঘর ভাঙচুর করেছে। বাধা দেয়ায় আমার মেয়েকেও মারধর করে আহত করেছে।

চেয়ারম্যান প্রার্থী হারুন আকন বলেন, বিকেলে মসজিদ থেকে নামাজ শেষে বের হলে চেয়ারম্যান প্রার্থী ফজলুল হক মুন্সীর সমর্থক আইযুব আলী মাস্টারসহ কয়েকজন আমার ওপর হামলা চালিয়ে মাথা ফাটিয়ে দেয়। এতে আমিসহ তিন সমর্থক আহত হয়েছেন।

চেয়ারম্যান প্রার্থী ফজলুল হক মুন্সী বলেন, কয়েকদিন আগে জমি নিয়ে বিরোধে আমার সমর্থক আইয়ুব আলী মাস্টারকে হারুন আকন মারধর করেন। সে সূত্র ধরেই আজ আবার আমার লোকজনের ওপর হামলা চালানো হয়।

শিবচর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মিরাজুল হোসেন বলেন, জমি সংক্রান্ত বিরোধের জেরে দু’পক্ষের সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। এখনো কোনো পক্ষ মামলা করেনি। মামলা পেলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এ কে এম নাসিরুল হক/এসএমএম/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]