ছুটির আগেই অফিস বন্ধ করে বাড়ি গেছেন কর্মকর্তা-কর্মচারীরা

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি লালমনিরহাট
প্রকাশিত: ১২:১২ এএম, ১৩ মে ২০২১ | আপডেট: ১২:১৪ এএম, ১৩ মে ২০২১

সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের নিজ কর্মস্থল ত্যাগ না করার নির্দেশ দেয়া হলেও লালমনিরহাটের হাতীবান্ধা ও কালীগঞ্জে ছুটির একদিন আগেই অফিসে তালা দিয়ে বাড়ি গেছেন স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদফতর (এলজিইডি), উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা, প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা এবং মৎস্য কর্মকর্তাসহ বিভিন্ন দফতরের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা।

বুধবার (১২ মে) বেলা সাড়ে ১১টা থেকে দুপুর ১টার মধ্যে দেখা যায়, হাতীবান্ধা ও কালীগঞ্জ উপজেলা স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদফতর (এলজিইডি) অফিসের সব কক্ষে তালা ঝুলছে। অথচ ওই ভবনে নির্বাহী অফিসও রয়েছে।

হাতীবান্ধা উপজেলা এলজিইডি অফিসে ১৯ কর্মকর্তা-কর্মচারী বিপরীতে সাতজন কর্মরত থাকলেও সবাই সরকারি নির্দেশনা অমান্য করে ছুটির একদিন আগেই কর্মস্থল ত্যাগ করেছেন। ফলে ওই অফিসের সেবা গ্রহীতারা ফিরে গেছেন।পরে জাগো নিউজের প্রতিনিধিকে দেখে তরিকুল রহমান নামে এক কর্মচারী তাড়াহুড়া করে অফিসের তালা খুলতে থাকেন।

jagonews24

এ সময় তিনি জানান, ‘বেলা সাড়ে ১১টায় কী কারণে অফিস সহায়ক তালা খোলেননি তা জানি না। আমি এসে দেখি কেউ নেই। তাই আমার কাছে যে চাবি ছিল তা দিয়ে তালা খুলছি। বাকি কর্মকর্তা-কর্মচারীরা কী কারণে অফিসে নেই তা বলতে পারব না। তবে দুই একজন মাঠে থাকতে পারে।’

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, ওই অফিস প্রধান উপজেলা প্রকৌশলী নজির হোসেন কয়েকদিন ধরে অফিসে আসেন না। কর্মস্থলে নিয়মিত থাকেন না তিনি। অফিস টাইম শুরুর অনেক পরে আসেন এবং শেষ হওয়ার আগেই চলে যান।

এ বিষয়ে হাতীবান্ধা উপজেলা প্রকৌশলী নজির হোসেন জানান, ১৬ মেপ র্যন্ত লকডাউন, তাই অফিসে এ অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে। অফিসের সাতজন কর্মকর্তা-কর্মচারীর মধ্যে তিনজনের একটু সমস্যা ছিল। তাই চলে গেছেন তারা।

এদিকে বুধবার দুপুরে সরেজমিনে দেখা গেছে, কালীগঞ্জে স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদফতরের (এলজিইডি) কর্মকর্তা, উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা, প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা এবং মৎস্য কর্মকর্তার অফিসের সব কক্ষে তালা ঝুলছে।

এ বিষয়ে জানতে কালীগঞ্জ উপজেলা প্রকৌশলী আবু তৈয়ব শামসুজ্জামানের সঙ্গে একাধিকবার যোগাযোগ করলেও তিনি ফোন ধরেননি।

এছাড়া এ বিষয়ে কথা বলতে হাতিবান্ধা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সামিউল আমিনের সঙ্গে একাধিকবার যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে তিনিও ফোন ধরেননি।

তবে কালিগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আব্দুল মান্নান ভুঁইয়া বলেন, ‘গত দুই দিন আগে যোগদান করেছি। বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হবে।’

এ বিষয়ে লালমনিরহাট স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদফতরের (এলজিইডি) নির্বাহী প্রকৌশলী আশরাফ আলী খান বলেন, কী কারণে অফিসে কেউ নেই তা তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

মো. রবিউল হাসান/এএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]