প্রতিপক্ষের কিল ঘুষিতে মারা গেলেন বৃদ্ধ

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক সিলেট
প্রকাশিত: ০৭:৫৯ পিএম, ১৬ মে ২০২১ | আপডেট: ০৮:১৪ পিএম, ১৬ মে ২০২১

সিলেটের কানাইঘাটে তুচ্ছ ঘটনায় প্রতিপক্ষের কিল-ঘুষিতে আতাউর রহমান (৬০) নামে এক বৃদ্ধ মারা গেছেন।

রোববার (১৬ মে) দুপুরে জলাবদ্ধতার পানি নিষ্কাশনকে কেন্দ্র করে উপজেলার ঝিঙ্গাবাড়ী ইউনিয়নের ওপর ঝিঙ্গাবাড়ী হরিসিংমাটি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনায় তিনজনকে আটক করেছে পুলিশ। তারা হলেন- মীরমাটি গ্রামের কুদরত উল্লাহ (৫০), তার ছেলে লিমন আহমদ (২৩) ও তার বোন মাহদিয়া (২৪)। আটক কুদরত উল্লাহকে পুলিশ হেফাজতে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।

জানা গেছে, বৃষ্টি হলে হরিসিংমাটি গ্রামের আতাউর রহমানসহ অনেকের বাড়িতে পানি নিষ্কাশনের ব্যবস্থা না থাকায় জলাবদ্ধতা দেখা দেয়। রোববার (১৬ মে) বেলা ১১টার দিকে আতাউর রহমান তার ভাতিজাকে নিয়ে বসতবাড়ির পাশে হরিসিংমাটি খাল দিয়ে পানি নিষ্কাশনের জন্য কাজ করছিলেন। এসময় পার্শ্ববর্তী মিরমাটি গ্রামের কুদরত উল্লা ও তার ছেলে লিমন আহমদ, সুমনসহ পরিবারের লোকজন আতাউর রহমানকে পানি নিষ্কাশনের কাজে বাধা দেয়। দুপক্ষের মধ্যে কথাকাটাকাটির জেরে কুদরতের পরিবারের সদস্যরা আতাউর রহমানকে কিল, ঘুষি ও লাথি মারতে থাকলে তিনি মাটিতে লুটিয়ে পড়ে জ্ঞান হারান। পরে পরিবারের সদস্যরা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

খবর পেয়ে পুলিশ লাশের সুরতহাল প্রতিবেদন তৈরি করে ময়নাতদন্তের জন্য সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠায়।

এ ঘটনায় নিহতের স্ত্রী কামরুন নাহার বাদী হয়ে কুদরত উল্লাহসহ তার পরিবারের সদস্যদের বিরুদ্ধে হত্যা মামলার প্রস্তুতি নিচ্ছেন বলে জানা গেছে।

কানাইঘাট থানার পরিদর্শক (তদন্ত) জাহিদুল হক জানান, ময়নাতদন্তের পর জানা যাবে আতাউর রহমান কীভাবে মারা গেছেন। এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে এক নারীসহ তিনজনকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। নিহতের পরিবার মামলা করলে তাদের গ্রেফতার দেখানো হবে।

ছামির মাহমুদ/এএইচ/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]