ভোলায় তথ্য গোপন করে ২ এনআইডি নেয়া সেই নারী গ্রেফতার

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি ভোলা
প্রকাশিত: ০৪:৪৮ এএম, ১২ জুন ২০২১

ভোলায় তথ্য গোপন করে নুর নাহার এবং তামান্না আক্তার নামে দুইটি জাতীয় পরিচয়পত্র গ্রহণ করা সেই নারীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

শুক্রবার (১১ জুন) রাত ৯টার দিকে ভোলা শহরের পৌর ৭ নম্বর ওয়ার্ডের সাগর বেকারির সামনে থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

ভোলা মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. এনায়েত হোসেন জানান, গ্রেফতার ওই নারী নুর নাহার, পিতার নাম রফিকুল ইসলাম, মাতার নাম হনুফা বিবি, স্বামী মো. মহিউদ্দিন, বর্তমান ও স্থায়ী ঠিকানা আমির হোসেন ডাক্তার বাড়ি, গ্রাম কালুপুর, ১ নং ওয়ার্ড ইলিশা ইউনিয়ন, ভোলা সদর, ভোলা পরিচয়ে আইডি নং ৬৪০১৩৫৮২১০ জাতীয় পরিচয়পত্র গ্রহণ করেন। এরপর তথ্য গোপন করে আরেকবার নিজের নাম তামান্না আকতার, পিতা- শামসুল হক দুলাল, মাতা- মনোয়ারা বেগম, বর্তমান ও স্থায়ী ঠিকানা মুসলিম পাড়া সড়ক, ৮নং ওয়ার্ড পশ্চিম উকিল পাড়া, ভোলা সদর, ভোলা পরিচয় ব্যবহার করে ভোটার আইডি নং ৯৫৭৮৭৬২৯০৯ আরেকটি জাতীয় পরিচয়পত্র গ্রহণ করেন।

পরে গত বুধবার (৯ জুন) জাতীয় পরিচয় নিবন্ধন আইন ২০১০-এর ধারা ১৪ ও ১৫ অনুযায়ী মিথ্যা তথ্য প্রদান এবং একাধিক পরিচয়পত্র গ্রহণের অপরাধে ভোলা সদর উপজেলার নির্বাচন অফিসার মো. মিজানুর রহমান খান বাদী হয়ে মামলা দায়ের করেন।

তিনি আরও জানান, ওই মামলার পরিপ্রেক্ষিতে আমরা শুক্রবার রাতে অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেফতার করি। শনিবার তাকে আদালতে প্রেরণ করা হবে।

এদিকে গ্রেফতার ওই নারীর বিরুদ্ধে গত বছর ২৬ অক্টোবর ভোলা প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করেন মোহাম্মদ মহিউদ্দিন নামে তার এক স্বামী। তিনি সংবাদ সম্মেলনে অভিযোগ করেন নুর নাহার নাম ব্যবহার করে তাকে বিয়ে করেন ওই নারী। বিয়ের পর তার এবং তার পরিবারের বিরুদ্ধে ১০টি মিথ্যা মামলা দায়ের করে প্রায় ৩০ লাখ টাকা হাতিয়ে নেন তিনি।

এছাড়াও তিনি ওই নারীর বিরুদ্ধে একাধিক জাতীয় পরিচয়পত্র ব্যবহার করে একাধিক বিয়ের অভিযোগও করেন তিনি।

জুয়েল সাহা বিকাশ/এআরএ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]