চার মাস পর বন্দিদশা থেকে মুক্ত হলেন গৃহবধূ

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক বগুড়া
প্রকাশিত: ০৭:০৪ পিএম, ১৪ জুন ২০২১
ফাইল ছবি

বগুড়ার শাজাহানপুরে চার মাস গৃহবন্দি থাকার পর দুই সন্তানের জননীকে উদ্ধার করেছে পুলিশ। পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে স্বামী-শ্বশুর পালিয়ে যান।

সোমবার (১৪ জুন) দুপুর দেড়টার দিকে উপজেলার নয়মাইল এলাকায় স্বামীর বিল্ডিং বাড়ির ৩য় তলা থেকে ওই গৃহবধূকে উদ্ধার করা হয়।

ভুক্তভোগী ওই গৃহবধূ বলেন, উপজেলার আড়িয়া ইউনিয়নের নয়মাইল মন্ডলপাড়ার জোলহার মণ্ডলের ছেলে ঢেউটিন ব্যবসায়ী রফিকুল ইসলামের (৩৫) সঙ্গে ওই গৃহবধূর ১১ বছর আগে বিয়ে হয়। বর্তমানে তাদের সংসারে ৯ ও ৫ বছরের দুইটি কন্যা সন্তান রয়েছে। বিয়ের কিছুদিন পর থেকেই তার স্বামী ও শ্বশুর-শাশুড়ি অকারণে শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন করে আসছেন। গত ৪-৫ মাস আগে থেকে বাবার বাড়ির কারো সঙ্গে যোগাযোগ করতে দেননি। এমনকি স্বামীর বাড়ির ৩য় তলায় দুই শিশু সন্তানসহ বন্দি করে রাখা হয়। গোপনে বাবা-মাকে জানালে তাদেরকেও দেখা করতে দেননি তার স্বামী ও শ্বশুর-শাশুড়ি।

গৃহবধূর বাবা আব্দুল গফফার বলেন, মেয়ের দেয়া খবর পেয়ে জামাইয়ের বাড়িতে গেলে তারা মেয়ের সঙ্গে দেখা করতে দেননি। এমনকি খারাপ ব্যবহার করে তাড়িয়ে দেন। পরে থানায় অভিযোগ দিলে পুলিশ মেয়েকে উদ্ধার করে।

এ বিষয়ে স্বামী রফিকুল ইসলামের সঙ্গে মোবাইল ফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে তাকে পাওয়া যায়নি।

শাজাহানপুর থানার উপ পরিদর্শক (এসআই) আব্দুর রহমান বলেন, গৃহবধূকে বন্দি করে রাখার অভিযোগ পেয়ে তাকে উদ্ধার করে স্বজনদের জিম্মায় দেয়া হয়েছে।

আরএইচ/এমকেএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]