গাজীপুরে দোকানে পেট্রল ঢেলে আগুন, দগ্ধ যুবকের মৃত্যু

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি গাজীপুর
প্রকাশিত: ১০:১৯ এএম, ২৭ জুলাই ২০২১

গাজীপুরের শ্রীপুরে দোকানে বিতণ্ডার জেরে হামলার পর পেট্রল ঢেলে আগুন দেয়ার ঘটনায় দগ্ধ মো. আরিফ হোসেন (২৬) মারা গেছেন।

সোমবার (২৬ জুলাই) রাতে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের শেখ হাসিনা বার্ন ইউনিটের আইসিইউতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয় বলে জানিয়েছেন আরিফের ভাই সাখাওয়াত হোসেন।

নিহত মো. আরিফ হোসেন উপজেলার তেলিহাটি ইউনিয়নের উদয় খালি গ্রামের জজ মিয়ার ছেলে।

পর আহত জজ মিয়া ও তার ছেলে মোফাজ্জল হোসেন, সাখাওয়াত হোসেন এবং সজিব ক্ষত শরীর নিয়ে ব্যথা বয়ে বেড়াচ্ছেন। আহতদেরকে শ্রীপুর উপজেলার স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।

এ ঘটনায় অভিযুক্ত তেলিহাটি ইউনিয়ন যুবদলের সভাপতি তোফাজ্জল সরকারসহ তিনজনের নামে শ্রীপুর থানায় মামলা হয়েছে। মামলার অপর আসামিরা হলেন- তেলিহাটি গ্রামের ফালু সরকারের ছেলে মোফাজ্জল সরকার ও তাইজু সরকারসহ অজ্ঞাত আরও ১০/১২ জন।

শ্রীপুর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মাহফুজ ইমতিয়াজ ভূঁইয়া মামলার বরাত দিয়ে বলেন, ‘গত বৃহস্পতিবার (২২ জুলাই) রাতে উপজেলার তেলিহাটি মোড়ে ভাই ভাই ট্রেডার্সে গ্যাস সিলিন্ডার কিনতে আসেন স্থানীয় ইউনিয়ন যুবদল সভাপতি তোফাজ্জল সরকার। দাম বেশি চাওয়া হয়েছে এমন অভিযোগে দোকান মালিক মোজাম্মেলের সঙ্গে বাগবিতণ্ডা হয়। একপর্যায়ে খবর পেয়ে তোফাজ্জলের ভাই মোফাজ্জল সরকার ও তাইজু সরকার দলবল নিয়ে এসে দোকানে হামলা করে পেট্রল ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেন। এতে দোকান মালিক ও তার তিন ভাই অগ্নিদ্বগ্ধ হন।’

অভিযুক্ত যুবদল সভাপতি তোফাজ্জল সরকার বলেন, ‘আমরা সবসময় ৯০০ টাকায় গ্যাস সিলিন্ডার ক্রয় করি। সন্ধ্যায় আমি তেলিহাটি চৌরাস্তা যাওয়ার পর দোকান মালিক মোজাম্মেল আমার কাছে এক হাজার ৫০ টাকা দাবি করেন। এ নিয়ে দুইজনের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়। একপর্যায়ে তারা আমাকে মারধর করেন। তারা নিজেরা দোকানের মালামাল ভাঙচুর করে পেট্রল ঢেলে আগুন ধরিয়ে দিয়ে আমাদের নামে মিথ্যা অভিযোগ মামলা করেছেন।’

মো. আমিনুল ইসলাম/আরএইচ/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]