স্মৃতি-অন্বেষার ঘরে ঠাঁই হলো সেই নবজাতকের

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি খাগড়াছড়ি
প্রকাশিত: ১২:৪৮ এএম, ০৮ সেপ্টেম্বর ২০২১

খাগড়াছড়ি সরকারি কলেজের ছাত্রীদের কমনরুমের টয়লেট থেকে উদ্ধার হওয়া সেই নবজাতকের ঠাঁই হলো স্মৃতি বিকাশ চাকমা ও অন্বেষা খীসা দম্পতির ঘরে।

ছয় প্রার্থীর আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে সকলের বক্তব্য ও শুনানি শেষে আদালত স্মৃতি বিকাশ চাকমা দম্পতিকে লালন-পালন ও ভরণপোষণের রায় দেন।

মঙ্গলবার (৭ সেপ্টেম্বর) দুপুরের দিকে খাগড়াছড়ির জেলা ও দায়রা জজ নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক মুহা. আবু তাহের এ রায় দেন।

সকল প্রার্থীর সম্পত্তি, সামাজিক অবস্থান ও শিক্ষাসহ সব বিষয়ে অবগত হওয়ার পর চিকিৎসক ও প্রফেশনাল অফিসারসহ সকলের বক্তব্য পর্যবেক্ষণ শেষে বিচারক এ রায় দেন।

নবজাতক কোন সম্প্রদায়ের তা আদালতকে নিশ্চিত করেন খাগড়াছড়ি আধুনিক জেলা সদর হাসপাতালের চিকিৎসক ডা. রিপল বাপ্পি চাকমা।

রায়ে সন্তোষ প্রকাশ করে আবেদনকারী স্মৃতি বিকাশ চাকমার আইনজীবী আফসার হোসেন রনি বলেন, নবজাতকটিকে নিজেদের সন্তান হিসেবে পেয়ে স্মৃতি বিকাশ চাকমা ও অন্বেষা খীসা দম্পতি খুব খুশি।

আইনজীবি আফসার হোসেন রনি ছাড়াও খাগড়াছড়ি জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি ও সিনিয়র আইনজীবী অ্যাডভোকেট আশুতোষ চাকমা শুনানিতে অংশ নেন।

খাগড়াছড়ি শহর সমাজসেবা অফিসার নাজমুল হাসান বলেন, আদালতের আদেশের অনুলিপি পাওয়ার পর শিশুটিকে স্মৃতি বিকাশ চাকমা ও অন্বেষা খীসা দম্পতির কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

মুজিবুর রহমান ভুইয়া/এএইচ/এমএইচআর

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]