পুনর্বাসন কেন্দ্রে জাঁকালো আয়োজনে ইমদাদুল-সুমনার বিয়ে

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক বগুড়া
প্রকাশিত: ১২:২৫ পিএম, ১৯ অক্টোবর ২০২১

বগুড়ার টিএমএসএস (ঠেঙ্গামারা মহিলা সবুজ সংঘ) অটিজম ও বুদ্ধিপ্রতিবন্ধী স্কুল এবং পুনর্বাসন কেন্দ্রে তিন বছর আগে ইমদাদুল হকের সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে সুমনা খাতুনের। অবশেষে পরিবারের সম্মতিতে জমকালো আয়োজনে তাদের বিয়ে সম্পন্ন হয়। এতে উপস্থিত ছিলেন হাজারো অতিথি।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, ২৪ বছর বয়সী ইমদাদুল হক ও ২০ বছর বয়সী সুমনা খাতুন স্নায়বিক বিকাশ সংক্রান্ত রোগে আক্রান্ত (অটিস্টিক)। দুজনই ওই পুনর্বাসন কেন্দ্রের বাসিন্দা। তাদের দুই পরিবারের সম্মতিতে বিয়ে দেওয়া হয়েছে।

সোমবার (১৮ অক্টোবর) দুপুরে সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, বর-কনের বরণ মঞ্চে লাল শাড়ি পরে বধূর বেশে বসেছিলেন সুমনা। তার পাশেই লাল পাঞ্জাবি পরে বরের সাজে বসে আছেন ইমদাদুল হক। তাদের ঘিরে আছেন উভয় পরিবারের আত্মীয়-স্বজন ও প্রতিষ্ঠানটির আমন্ত্রিত অতিথিরা। দুপুর থেকেই তাদের বিয়ের অনুষ্ঠান শুরু হয়। জমকালো বিয়ের এ আয়োজনে প্রীতিভোজে আমন্ত্রিত ছিলেন এক হাজারেও বেশি অতিথি।

এর আগে, রোববার গায়ে হলুদের অনুষ্ঠানও জাকজমকভাবে করা হয়। ওই অনুষ্ঠানেও বর-কনের পরিবারের ২০ জন ছাড়াও ৫০০ অতিথি উপস্থিত ছিলেন বলে জানা গেছে।

জানতে চাইলে পুনর্বাসন কেন্দ্রের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক সাঈদ যুবায়ের জাগো নিউজকে বলেন, ইমদাদুল ও সুমনার মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠেছিল। তাদের মধ্যে তিন বছর ধরে প্রেমের সম্পর্ক ছিল। ওই সম্পর্ক থেকেই এ দুজন বিয়ের সিদ্ধান্ত নেন। দুই পরিবারের সম্মতিতে বিয়ের আয়োজন করা হয়। উৎসবমুখর পরিবেশে তাদের বিয়ে সম্পন্ন হয়েছে। এই বিয়েতে দুই পরিবারের সদস্যসহ হাজারের বেশি অতিথি উপস্থিত ছিলেন।

এসজে/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]