নোয়াখালীতে নববধূ হত্যায় স্বামীর যাবজ্জীবন

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি নোয়াখালী
প্রকাশিত: ০৯:৫৫ পিএম, ২৫ অক্টোবর ২০২১

নোয়াখালীর কবিরহাটের নববধূ নাজমা আক্তার নাজুকে (১৮) হত্যার ঘটনায় স্বামী মনির হোসেন বাবুর (৩২) যাবজ্জীবন কারাদণ্ডাদেশ দিয়েছেন আদালত। একই সঙ্গে তাকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানাও করা হয়।

সোমবার (২৫ অক্টোবর) দুপুরে আসামির উপস্থিততে নোয়াখালী জেলা দায়রা জজ আদালতের বিচারক সালেহ আহমদ এ রায় ঘোষণা করেন। পরে তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন বিচারক।

আসামি মনির হোসেন বাবু কবিরহাট উপজেলার বাটইয়া ইউনিয়নের ৭ নম্বর ওয়ার্ডের দয়ারামদি গ্রামের আলী আহম্মদের নতুন বাড়ির মৃত আলী আহম্মদের ছেলে।

বিষয়টি জাগো নিউজকে নিশ্চিত করেন রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী ও নোয়াখালী জেলা পিপি (পাবলিক প্রসিকিউটর) গুলজার আহমেদ জুয়েল। আসামি পক্ষে মামলা পরিচালনা করেন অ্যাডভোকেট মোহাম্মদ সাহাব উদ্দিন জুয়েল।

মামলার সূত্রে জানা গেছে, ২০১৮ সালের ৩০ এপ্রিল নববধূ নাজমা আক্তার ওরফে নাজুকে শ্বাসরোধে করে হত্যা করেন বাবু। ১ মে তার মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। ওই দিন রাতে বাবু এলাকার স্থানীয় চেয়ারম্যানের কাছে গিয়ে তার স্ত্রীকে হত্যার দায় স্বীকার করেন। এরপর সেখান থেকে তাকে পুলিশে সোপর্দ করা হয়।

এ ঘটনায় ওই দিন রাতেই নিহতের বড় ভাই বাদী হয়ে বাবুকে আসামি করে কবিরহাট থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা করেন। এজাহারে বলা হয় তার বোনকে যৌতুকের দাবিতে হত্যা করা হয়েছে। পরে মামলাটি তদন্ত করে আসামি বাবুর বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র জমা দেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা কবিরহাট থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মাসুদ আলম পাটোয়ারী।

অভিযোগ পত্রে বলা হয়, যৌতুকের দাবিতে নয়, একই এলাকার মরিয়ম আক্তার পপি নামে এক নারীর সঙ্গে পরকীয়া প্রেমের জের ধরেই নববধূ নাজুকে হত্যা করে তার স্বামী আসামি মনির হোসেন বাবু।

ইকবাল হোসেন মজনু/এসজে/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]