কিশোরের বুদ্ধিতে দুর্ঘটনা থেকে রক্ষা পেলো ট্রেন

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি ঠাকুরগাঁও
প্রকাশিত: ০২:৩৮ এএম, ২৩ নভেম্বর ২০২১

ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার চিলারং ইউনিয়নের ঘুন্টি এলাকায় রেললাইনের জয়েন্ট প্রায় আট ইঞ্চি ভেঙে গেছে। ধারণা করা হচ্ছে দুপুরে ঢাকাগামী পঞ্চগড় এক্সপ্রেস যাবার সময় এই লাইনটি ভেঙে যায়। তবে এক কিশোরের বুদ্ধিতে ওই ভাঙা রেললাইনে ঘটতে যাওয়া দুর্ঘটনা থেকে রক্ষা পেয়েছে কাঞ্চন ট্রেন।

রেললাইন দিয়ে চার বন্ধুসহ হাঁটছিল মাসুদ রানা (১৫)। হঠাৎ চোখে পড়ে রেললাইনের ওই ভাঙা অংশ। বাড়ির পাশে রেললাইন হওয়ায় সে জানে একটু পরেই চলে আসবে ট্রেন। ফলে দেখা মাত্রই দৌড়ে খবর দেয় রেললাইনের গেটম্যানকে।

রেললাইনের গেটম্যান এসে মাসুদসহ অন্যান্যদের সহায়তায় লাল পতাকা উড়িয়ে আটকালেন কাঞ্চন ট্রেনকে। এর ফলে কিশোর মাসুদ রানার বুদ্ধিতে দুর্ঘটনা থেকে রক্ষা পেলো ট্রেনটি। মাসুদ রানা চিলারং আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণীর ছাত্র৷

সোমবার (২২ নভেম্বর) কিশোর মাসুদ রানা জানায়, আমরা কয়েকজন বন্ধু মিলে রেললাইন দিয়ে হাঁটছিলাম। হঠাৎ দেখি রেললাইন ভাঙা। সঙ্গে সঙ্গেই দৌড়ে গিয়ে বিষয়টি গেটম্যানকে জানায়৷

কিশোর মাসুদ রানাগেটম্যান আজিজুল ইসলাম বলেন, মাসুদ খবর দেওয়ার পরে আমরা কাঞ্চন ট্রেনকে আটকায়। আমি ঊর্ধ্বতন কর্মকতা কল দিয়ে বিষয়টি অবহিত করি৷ তারা এসে বিষয়টির সমাধান করেন। পরে কাঞ্চন ট্রেনকে পার করে দেওয়া হয়৷

মাসুদ রানা বিষয়টি না জানালে বড় ধরনের দুর্ঘটনা ঘটতে পারতো৷ সে যে কাজটি করছে সেটা প্রশংসনীয়। তার এই মহৎ কাজের জন্য ঝুঁকি থেকে ট্রেন ও যাত্রীগুলো নিরাপদে যেতে পারলো, যোগ করেন আজিজুল ইসলাম।

স্থানীয় রেজাউল করিম বলেন, আমরা রাস্তা দিয়ে যাওয়ার পথে দেখি ট্রেন আটকে আছে, সামনে কিছু লোক। এরপর সেখানে গিয়ে দেখি রেললাইনের কিছু অংশ ভেঙে গেছে৷ মাসুদ আমাদের এলাকার সন্তান, সে যে কাজটি করেছে সেটি প্রশংসনীয়৷

রেলওয়ের (ঠাকুরগাঁও) সাব অ্যাসিট্যান্ট ইঞ্জিনিয়ার আব্দুল মতিন জানান, মাসুদ গেটম্যানকে বিষয়টি অবগত করার পরপরেই আমাদের লোকজন সেখানে যায়। এরপর আটকে থাকে ৪২ কাঞ্চনকে ভাঙা রেল ও স্লিপারের সাহায্য পার করা হয়। এছাড়া কাঞ্চন চলে যাবার পর ৭০৫ একতা আসার আগেই লাইন ঠিক করার জন্যে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হয়।

তানভীর হাসান তানু/কেএসআর

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]