কুমিল্লায় মঞ্চ ভেঙে স্বতন্ত্র প্রার্থীর কর্মীকে মারধরের অভিযোগ

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি কুমিল্লা
প্রকাশিত: ১০:৫৫ পিএম, ২১ জানুয়ারি ২০২২
কুমিল্লায় ইউপি নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থীর মঞ্চ ভাঙচুর

কুমিল্লার দেবিদ্বারে ইউপি নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থীর কর্মীকে পিটিয়ে নির্বাচনী মঞ্চ ভাঙচুরের অভিযোগ উঠেছে নৌকার প্রার্থীর সমর্থকদের বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থীর অন্তত ১০ সমর্থক আহত হয়েছেন বলে জানা গেছে।

শুক্রবার (২১ জানুয়ারি) দুপুরে উপজেলার ধামতী ইউনিয়নের ধামতী গ্রামে ইউপি নির্বাচনের প্রচারণাকে কেন্দ্র করে এ হামলার ঘটনা ঘটে। আহতদের দেবিদ্বার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ (কুমেক) হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

স্থানীয়রা জানান, ধামতী গ্রামে স্থানীয়দের উদ্যোগে শুক্রবার বিকেলে স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী মহিউদ্দিন মিঠুর নির্বাচনী মতবিনিময় সভার আয়োজন করা হয়। এ উপলক্ষে তৈরি করা হয় মঞ্চ। খবর পেয়ে দুপুরে নৌকার প্রার্থী জসিম উদ্দিনের ভাই শাহপরানের নেতৃত্বে তরিকুল, সোহাগ, কামাল, মাহফুজ, মারুফ, দুলাল, নয়ন, মেবারক, মনির, রুবেল, রুহুল আমিন, সেলিম ও হালিমসহ অন্তত ২০ থেকে ৩০ জনের একটি দল দেশীয় অস্ত্র নিয়ে হামলা চালিয়ে সভা মঞ্চ ও নির্বাচনী অফিস ভাঙচুর করেন।

এসময় তাদের বাধা দেওয়ার চেষ্টা করলে আইয়ুব আলী, শরীফ, সফিকুল ইসলাম, শান্ত, জিল্লুর রহমান, বিল্লাল, ইমরান, মেহেদী, রুমান, তফাজ্জল, রাকিব মুন্সী, খোকনসহ অন্তত ১০ জনের ওপর হামলা চালিয়ে আহত করেন নৌকার সমর্থকরা। এর মধ্যে গুরুতর আহত আইয়ুব আলী নামে একজনকে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। অপর আহতদের উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হয়েছে। বাকিরা প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়ে বাড়িতে রয়েছেন।

এ বিষয়ে মহিউদ্দিন মিঠু অভিযোগ করে বলেন, নৌকা প্রার্থীর লোকজন তার সমর্থকদের তিনটি মোটরসাইকেল ও সভা মঞ্চ ভাঙচুর করেন। এসময় আরও ছয়টি মোবাইল লুটে নেন তারা।

তিনি বলেন, ‘আমি মনোনয়নপত্র দাখিলের পর থেকেই নৌকার প্রার্থীর লোকজন নানাভাবে আমার সমর্থকদের হুমকি এবং প্রচারণায় বাঁধা দিয়ে আসছে। ভোটারদের বলা হচ্ছে- নৌকা প্রতীক ছাড়া ভোট দিলে লাশ ফেলে দেওয়া হবে।’

তবে নৌকার প্রার্থী জসিম উদ্দিন এসব অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, ‘এ ঘটনার সঙ্গে আমার লোকজন নেই। কারা হামলা চালিয়েছে তাও আমি জানি না।’

দেবিদ্বার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আরিফুর রহমান বলেন, ‘হামলার বিষয়টি মৌখিকভাবে জেনেছি। লিখিত অভিযোগ পেলে দোষীদের বিরুদ্ধে আইনগত পদক্ষেপ নেওয়া হবে।’

জাহিদ পাটোয়ারী/এমআরআর

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]