নোয়াখালীতে সরকারি চাল পাচারের সময় গ্রেফতার ২

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি নোয়াখালী
প্রকাশিত: ০১:১১ এএম, ১৩ মে ২০২২
গ্রেফতার মো. দেলোয়ার হোসেন ও ডিলার হাফিজ উল্যাহ

সরকারের খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির ২০০ কেজি চাল খোলাবাজারে বিক্রির জন্য পাচারকালে ডিলারসহ দুইজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। নোয়াখালীর কবিরহাটে এ ঘটনা ঘটে।

বৃহস্পতিবার (১২ মে) সন্ধ্যায় উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক (অ.দা) মোহাম্মদ ছালেহ উদ্দিনের দায়ের করা বিশেষ ক্ষমতা আইনের মামলায় তাদের গ্রেফতার করা হয়।

গ্রেফতাররা হলেন- ১০ টাকা কেজির খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির ডিলার মো. হাফিজ উল্যাহ ওরফে শেখ সাহেব (৩৩)। তিনি কবিরহাট উপজেলার বাটইয়া ইউনিয়নের হাঁসদি গ্রামের মো. শরিয়ত উল্যাহর ছেলে। অপরজন একই এলাকার মৃত আবদুর রবের ছেলে রিকশাচালক মো. দেলোয়ার হোসেন (৩৭)।

জাগো নিউজকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন কবিরহাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. রফিকুল ইসলাম।

তিনি বলেন, ভোরে রিকশাচালক দেলোয়ার ২০০ কেজি (চার বস্তা) সরকারি চাল নিয়ে যাচ্ছিলেন।
এসময় এলাকার লোকজন চালের বস্তা আটক করে পুলিশে খবর দেয়।

পরে পুলিশ এসে দেলোয়ারকে আটক করে থানায় নিয়ে যায়। এরপর তার দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে ডিলার মো. হাফিজ উল্যাহকে করা হয় আটক।

কবিরহাট উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক (অ.দা) মোহাম্মদ ছালেহ উদ্দিন জাগো নিউজকে বলেন, ওই ডিলারের বিরুদ্ধে আগেও চাল পাচারের অভিযোগ ছিল। প্রমাণের অভাবে তখন ব্যবস্থা নেওয়া যায়নি। এবার হাতেনাতে প্রমাণ পেয়ে করা হয়েছে মামলা।

এর আগে গত ২৫ এপ্রিল বাটইয়া ইউনিয়ন পরিষদ থেকে ভিজিএফের দুই টন চাল চুরি হয়ে যায়। পরে ২৭ এপ্রিল ইউপি সচিব আবদুল কাইয়ুমের দায়ের করা মামলায় গ্রামপুলিশ হারুনকে গ্রেফতার করা হয়। এ ঘটনায় ওই ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মো. জসিম উদ্দিন শাহীনকে শোকজ করে তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি করেছে উপজেলা প্রশাসন।

ইকবাল হোসেন মজনু/জেডএইচ/

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]