চুরির অপবাদে শিকলে বেঁধে নির্যাতন, নিখোঁজ কিশোর

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি পটুয়াখালী
প্রকাশিত: ০৩:০৫ পিএম, ১৩ মে ২০২২
শিকলে বাঁধা কিশোর ও তার পায়ে জখমের চিহ্ন

পটুয়াখালীর গলাচিপায় চুরি অপবাদ দিয়ে এক কিশোরকে শিকলে বেঁধে নির্যাতনের ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হয়েছে।

৯ মে উপজেলা সদর ইউনিয়নে এ ঘটনা ঘটে। তবে নির্যাতনের পর থেকে নিখোঁজ রয়েছে ওই কিশোর।

ভাইরাল ভিডিওতে দেখা যায়, কিশোরকে একটি গাছের সঙ্গে লোহার শিকলে বেঁধে বোয়ালিয়া রাড়ি বাড়ির হজরত আলী নামে এক ব্যক্তি তাকে মারধর করছেন আর আশপাশে দাঁড়িয়ে দেখেছেন ওই বাড়ির লোকজন। এ সময় অনেককে ভিডিও করতেও দেখা গেছে। মারধরে কিশোরের শরীরে রক্তাক্ত জখম হতেও দেখা গেছে।

ভুক্তভোগী কিশোরের পরিবারের অভিযোগ, ৯ মে থেকে ১১ মে মধ্যরাত পর্যন্ত দফায় দফায় তার ওপর অমানবিক নির্যাতন চালানো হয়। তবে ১১ মে রাতের পর থেকে ওই কিশোরকে আর খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না।

নির্যাতিত কিশোরের সৎ মা বলেন, ‘আমরা ঢাকায় থাকি। ছেলে বাড়িতে থাকতো। খবর পেয়ে বাড়িতে এসেছি। আমার ছেলেকে টাকা চুরির অপবাদ দিয়ে ধরে নিয়ে যাওয়া হয়। তাকে দফায় দফায় তিনদিন হজরত আলী, ফেরদৌস, মমতাজ এবং তানিয়া অমানবিক নির্যাতন করেন। এরপর থেকে ছেলেকে খুঁজে পাচ্ছি না।’

এ বিষয়ে অভিযুক্ত ব্যক্তিকে খুঁজে পাওয়া যায়নি। এমনকি তার মোবাইল নম্বরও বন্ধ পাওয়া যায়।

গলাচিপা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এম আর সওকত আনোয়ার ইসলাম জাগো নিউজকে বলেন, আমরা অভিযোগ পেয়েছি। এ বিষয়ে আইনগত পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে।

পটুয়াখালীর পুলিশ সুপার মোহম্মদ শহীদুল্লাহ জাগো নিউজকে বলেন, বিষয়টি গুরুত্ব দিয়ে দেখা হচ্ছে।

আব্দুস সালাম আরিফ/এসজে/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]