জমি লিখে না দেওয়ার জেরে মাকে ইট দিয়ে থেঁতলে দিলেন ছেলে

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি মানিকগঞ্জ
প্রকাশিত: ০৮:৫৫ পিএম, ১৪ মে ২০২২
হাসপাতালে ভর্তি আহত ডালিমন বেগম

মানিকগঞ্জের ঘিওরে বসতবাড়ির জমি লিখে না দেওয়ার জেরে মাকে পিটিয়ে এবং ইট দিয়ে শরীরের বিভিন্ন জায়গায় থেঁতলে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে রতন মিয়া (৪৮) নামে এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে। আঘাতের ক্ষত নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি মা ডালিমন বেগম (৬৬)।

এ ঘটনায় শনিবার (১৪ মে) বিকেলে রতন মিয়া ও তার স্ত্রী রাশেদা আক্তারের বিরুদ্ধে থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন ভুক্তভোগী নারীর এক স্বজন।

আহত ডালিমন বেগম ও তার স্বজনরা জানান, তার একমাত্র ছেলে রতন। দুই মেয়ে থাকলেও তাদের বিয়ে হয়ে গেছে। ছেলের সঙ্গে একই বাড়িতে বসবাস করতেন তিনি। বসতবাড়ি মায়ের নামে থাকায় ছেলে রতন লিখে নিতে দীর্ঘদিন ধরে চাপ দিয়ে আসছিলেন।

শুক্রবার (১৩ মে) সন্ধ্যায় নলকূপ থেকে পানি আনতে গেলে পুত্রবধূ রাশেদা আক্তার শাশুড়িকে বাধা দেন। এ নিয়ে ডালিমন প্রতিবাদ জানালে ছেলে রতন তার ওপর চড়াও হন। একপর্যায়ে মাকে পিটিয়ে ও ইট দিয়ে শরীরের বিভিন্ন জায়গায় থেঁতলে গুরুতর জখম করেন। এ সময় মা ডালিমন মাটিতে লুটিয়ে পড়েন। প্রতিবেশীরা তাকে উদ্ধার করে ঘিওর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন।

স্থানীয় ইউপি সদস্য মো. আব্দুল লতীফ জাগো নিউজকে বলেন, রতন এর আগেও একাধিকবার তার মাকে মারধর করেন। গ্রাম্য শালিসে তাকে কয়েকবার সতর্কও করা হয়। কথায় কথায় মাকে মারধরের প্রতিবাদ জানালে গ্রামের লোকজনকে উল্টো হুমকি দেন রতন।

অভিযোগের বিষয়ে জানতে রতন মিয়ার মোবাইল নম্বরে কল দিলে বন্ধ পাওয়া যায়। বাড়িতে গিয়েও তাকে পাওয়া যায়নি।

ঘিওর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. রিয়াজ উদ্দিন আহম্মেদ বিপ্লব জাগো নিউজকে বলেন, এ ঘটনায় রতন ও তার স্ত্রীর বিরুদ্ধে থানায় লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। বিষয়টি তদন্ত করে দ্রুত আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

বি.এম খোরশেদ/এসজে/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]