নীলফামারীতে শেষ হলো জেলা ইজতেমা

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি নীলফামারী
প্রকাশিত: ০৪:১০ পিএম, ২৬ নভেম্বর ২০২২

নীলফামারীতে আয়োজিত তিন দিনব্যাপী জেলা ইজতেমা শেষ হয়েছে। শনিবার (২৬ নভেম্বর) দুপুরে সদর উপজেলার দারোয়ানী টেক্সটাইল মিলস কলোনি মাঠে জোহরের নামাজের পর আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে এর আনুষ্ঠানিকতা শেষ হয়।

এর আগে বৃহস্পতিবার (২৪ নভেম্বর) ফজরের নামাজের পরে বয়ান পেশের মাধ্যমে ইজতেমার আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন ঢাকা কাকরাইল জামে মসজিদের খতিব ও বাংলাদেশ তাবলিগ জামাতের সুরা সদস্য মাওলানা মো. মোশারফ হোসেন।

নীলফামারীতে শেষ হলো জেলা ইজতেমা

আয়োজক কমিটি সূত্রে জানা যায়, এবারের ইজতেমায় কাকরাইল মসজিদের খতিবসহ বিভিন্ন দেশের অনেক ইসলামিক চিন্তাবিদরা উপস্থিত হয়েছিলেন। মানব কল্যাণের পাশাপাশি তারা দ্বীনের দাওয়াত, ধর্ম ও আখিরাত সম্বন্ধে মূল্যবান বয়ান পেশ করেছেন। এছাড়া ইজতেমা শুরুর একদিন আগে থেকেই সেখানে দেশের প্রতি জেলার তাবলিগ জামাত কমিটির সদস্য ও ধর্মপ্রাণ মুসলমানরা উপস্থিত হয়েছিলেন।

জেলা তাবলীগ জামাতের আমির ও নীলফামারী সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ দিদারুল ইসলাম বলেন, বৃহস্পতিবার সকালে বয়ান পেশের মধ্য দিয়ে ইজতেমার আনুষ্ঠানিকতা শুরু হয় এবং আজ জোহর নামাজের পর আখেরি মোনাজাতের মাধ্যমে এর আনুষ্ঠানিকতা শেষ হয়েছে। দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে এখানে লোকজন এসেছেন। কোনোপ্রকার বিশৃঙ্খলা ছাড়াই শান্তিপূর্ণভাবে এটি শেষ হয়েছে।

নীলফামারীতে শেষ হলো জেলা ইজতেমা

ইজতেমা ঘিরে পুরো এলাকায় নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছিল। ইজতেমা এলাকায় সার্বক্ষণিক নজরদারি করা হয়েছে। পুলিশসহ অন্য আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা দায়িত্ব পালন করেছেন।

নীলফামারীতে শেষ হলো জেলা ইজতেমা

এ বিষয়ে নীলফামারীর পুলিশ সুপার মোস্তাফিজুর রহমান জাগো নিউজকে বলেন, ইজতেমা ঘিরে পাঁচ স্তরের কঠোর নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছিল। পোশাকধারী পুলিশের পাশাপাশি সাদা পোশাকের পুলিশ, গোয়েন্দা, ডিবিসহ অন্য বাহিনী কাজ করেছে। যে কোনো অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে আমাদের কড়া নজরদারি ছিল। শান্তিপূর্ণভাবে এটি শেষ হয়েছে।

এমআরআর/জেআইএম

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন [email protected] ঠিকানায়।