জালিয়াতি করে আসামির মুক্তি, আইনজীবী কারাগারে

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি জয়পুরহাট
প্রকাশিত: ১০:০৪ পিএম, ০৫ ডিসেম্বর ২০২২

জয়পুরহাটে জালিয়াতির মাধ্যমে আসামিকে মুক্তি পাইয়ে দেওয়ার অপরাধে আইনজীবী আনিছুর রহমান নামের এক আইনজীবীকে কারাগারে পাঠিয়েছেন আদালত।

সোমবার (৫ ডিসেম্বর) বিকেলে চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে জামিন আবেদন করলে বিচারক নীশিথ রঞ্জন বিশ্বাস তাকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।

মামলার বিবরণে জানা যায়, সোহেল রানা নামে এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে চেকে জালিয়াতির মামলা হয়। সে মামলায় সোহেলকে কারাগারে পাঠান আদালত। তবে কারারক্ষী, আইনজীবী ও এক মুহুরি যোগসাজশে কাগজপত্র জালিয়াতির মাধ্যমে আসামিকে কারাগার থেকে মুক্ত করেন। এ ঘটনা তদন্তের পর আইনজীবী, মুহুরি ও কারারক্ষীসহ ছয়জনের সম্পৃক্ততা পায় গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশ।

তাদের বিরুদ্ধে জয়পুরহাট সদর থানায় মামলা করেন ডিবির উপ-পরিদর্শক (এসআই) আমিরুল ইসলাম। মামলায় অন্য আসামিরা হাজতে থাকলেও আইনজীবী আনিছুর রহমান ভারতে পলাতক ছিলেন। সোমবার জয়পুরহাট চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে হাজির জামিন আবেদন করেন আনিছুর। বিচারক জামিন না মঞ্জুর করে তাকে জেলহাজতে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

জয়পুরহাট আইনজীবী সমিতির সভাপতি রফিকুল ইসলাম তরুণ জাগো নিউজকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

জয়পুরহাট পুলিশ সুপার মোহাম্মদ নুরে আলম জাগো নিউজকে বলেন, ফিড ব্যবসায়ী সোহেল রানার নামে আদালতে একটি চেক জালিয়াতির মামলা হয়। আইনজীবী আনিছুর রহমান কাগজপত্র জালিয়াতি করে সোহেল রানাকে জামিন পাইয়ে দেন। পরবর্তীতে সন্দেহ হলে মামলার বাদী পুলিশকে জানান। তদন্তের পর আইনজীবী আনিছুরসহ ছয়জনের সম্পৃক্ততা পাওয়ায় মামলা করে গোয়েন্দা পুলিশ।

গোয়েন্দা পুলিশ আরও বলেন, আনিছুর ভারতে পলাতক ছিলেন। দেশে এসে সোমবার জামিন নিতে গেলে আদালত না মঞ্জুর করে তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

রাশেদুজ্জামান/এসজে/এএসএম

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন [email protected] ঠিকানায়।