ডিএসইর পরিচালক নির্বাচন মঙ্গলবার

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৯:১০ পিএম, ২০ মার্চ ২০১৭ | আপডেট: ০৫:৫৫ পিএম, ১৯ অক্টোবর ২০১৭
ডিএসইর পরিচালক নির্বাচন মঙ্গলবার

ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) শেয়ারহোল্ডার পরিচালক নির্ধারণে মঙ্গলবার (২১ মার্চ) নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। ডিমিউচ্যুয়ালাইজেশনের পর এটি ডিএসই’র তৃতীয় নির্বাচন। দুই পদের বিপরীতে এবারের নির্বাচনে চারজন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

ওইদিন সকাল সাড়ে ১০টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত বিরতিহীনভাবে চলবে ভোটগ্রহণ। ডিএসই’র ২৪৫ জন শেয়ারহোল্ডার ভোটাধিকার প্রয়োগের সুযোগ পাবেন। এদের মধ্যে তিনজন এবারই প্রথম ভোটাধিকার পেয়েছেন। এই তিন শেয়ারহোল্ডার হলেন- ওসমান গণি চৌধুরী, আফরোজা বেগম এবং সৈয়দ তানবির হাসান।

আইন অনুযায়ী, বর্তমান শেয়ারহোল্ডার পরিচালক খাজা গোলাম রসুল ও মোহাম্মদ শাহজাহানের মেয়াদ শেষ হওয়ায় এই দুই শূন্য পদে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

সুপ্রিম কোর্টের অবসরপ্রাপ্ত বিচারপতি মো. আবদুস সামাদের নেতৃত্বে নির্বাচন কমিশনের সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন হারুন সিকিউরিটিজ লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. হারুন-উর-রশিদ এবং এম অ্যান্ড জেড সিকিউরিটিজ লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক এম মনজুর উদ্দিন আহমেদ।

নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করা ডিএসইর চার শেয়ারহোল্ডার হলেন- সার সিকিউরিটিজের ব্যবস্থাপনা পরিচালক শরীফ আতাউর রহমান, রেপিড সিকিউরিটিজের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো হানিফ ভূঁইয়া, ধানমন্ডি সিকিউরিটিজের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. মিজানুর রহমান খান এবং কান্ট্রি স্টকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক খাজা আসিফ আহমেদ।

তবে প্রথমবারের মতো ডিএসইর কোনো নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন খাজা আসিফ আহমেদ। বাকি তিন প্রার্থী ডিমিউচ্যুয়ালাইজেশনের আগে  ডিএসইর পরিচালক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন।

জানা যায়, এবারের নির্বাচনে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই হবে। চার প্রার্থীর যে কেউ জয় পেতে পারেন। তবে ব্যক্তি ইমেজে শরিফ আতাউর রহমান কিছুটা এগিয়েছে আছেন। আর বাকি তিন প্রর্থীর পক্ষেই ডিএসইর প্রভাবশালী শেয়ারহোল্ডাররা সক্রিয় রয়েছেন।

ডিএসইর প্রভাবশালী হিসেবে পরিচত ‘খাজা গ্রুপ’খাজা আসিফ আহমেদের পক্ষে বেশ সক্রিয়।ডিএসইর একজন পরিচালকও আফিসের পক্ষে বেশ সক্রিয় ভূমিকা পালন করছেন। ওই পরিচালিক হানিফ ভূঁইয়া ও মিজানুর রহমানের পক্ষেও ভেতরে ভেতরে কাজ করছেন।

শরীফ আতাউর রহমান জাগো নিউজকে বলেন, প্রতিদ্বন্দ্বী চারজনই পরিচালক নির্বাচিত হওয়ার যোগ্য। আমি আগেও একাধিকবার পর্ষদে ছিলাম। ভোটাররা চাইলে এবারও আসবো।  আর পরিচালক নির্বাচিত হলে ডিএসই ও পুঁজিবাজারের স্বার্থে সামর্থ অনুযায়ী কাজ করবো।

নিজের জয়ের ব্যাপারে আশাবাদী প্রার্থী মো. হানিফ ভূঁইয়াও। আর খাজা আসিফ আহমেদ বলেন, নির্বাচিত হয়ে পুঁজিবাজারের কল্যাণে   কিছু করতে চাই। আশা করছি শেয়ারহোল্ডারা সে রায় দেবেন।

ডিমিউচুয়ালাইজেশন আইন অনুযায়ী, স্টক এক্সচেঞ্জের পরিচালনা পর্ষদে মোট ১৩ জন সদস্য থাকেন। এর মধ্যে স্বতন্ত্র পরিচালক হবেন ৭ জন। আর ৪ জন থাকবেন শেয়ারহোল্ডার পরিচালক । বাকি দুইজনের মধ্যে একজন স্টক এক্সচেঞ্জের ব্যবস্থাপনা পরিচালক এবং একজন কৌশলগত বিনিয়োগকারী পরিচালক।

শেয়ারহোল্ডার পরিচালকরা স্টক এক্সচেঞ্জের সদস্যদের প্রত্যক্ষ ভোটে তিন বছরের জন্য নির্বাচিত হন। কারও মেয়াদ শেষ হওয়ার পর শূন্যপদ পূরণের জন্য নির্বাচন অনুষ্ঠি হয়।

এমএএস/এমএমএ/এমএস