লেনদেন শুরুর আগে এমএল ডাইংয়ের মুনাফা কমার তথ্য প্রকাশ

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৬:২৯ পিএম, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮

চলতি বছরের ৩০ মার্চ পর্যন্ত ৯ মাসের (২০১৭ সালের জুলাই থেকে চলতি বছরের মার্চ) হিসাবে এমএল ডাইংয়ের মুনাফা আগের বছরের তুলনায় কমেছে।
প্রাথমিক গণপ্রস্তাবের (আইপিও) মাধ্যমে পুঁজিবাজার থেকে অর্থ উত্তোলন করা এমএল ডাইংয়ের লেনদেন সোমবার (১৭ সেপ্টম্বর) থেকে শুরু হবে।

শেয়ারবাজারে লেনদেন শুরুর আগেই রোববার কোম্পানিটি অার্থিক অবস্থার এ অবনতির তথ্য প্রকাশ পেল। কোম্পানিটির কর্তৃপক্ষের দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে বিনিয়োগকারীদের উদ্দেশ্যে এ তথ্য প্রকাশ করেছে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই)।

শেয়ারবাজার সংশ্লিষ্টরা বলছেন, পুঁজিবাজার থেকে অর্থ উত্তোলনের পর লেনদেন শুরুর আগেই একটি কোম্পানির আর্থিক অবস্থার অবনতি হওয়ার তথ্য প্রকাশ পাওয়া ভালো লক্ষণ না। এটি কোম্পানির দুর্বলতার দিক প্রকাশ করে। আইপিও অনুমোদন দেয়ার বিষয়ে নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) সতর্কতা অবলম্বন করা উচিত। সেই সঙ্গে আইপিওর টাকা কোম্পানিটি সঠিক খাতে ব্যয় করছে কি না সে বিষয়ে কঠোর নজরদারি করতে হবে।

যন্ত্রপাতি ও কলকবজা ক্রয়, স্থাপন এবং প্রাথমিক গণপ্রস্তাবের খরচ মেটাতে চলতি বছরের ১৪ মে এমএল ডাইংয়কে আইপিওর মাধ্যমে পুঁজিবাজার থেকে অর্থ উত্তোলনের অনুমোদন দেয় বিএসইসি।

বিএসইসির অনুমোদন নিয়ে আইপও’র মাধ্যমে ১০ টাকা মূল্যে ২ কোটি শেয়ার ছেড়ে পুঁজিবাজার থেকে ২০ কোটি টাকা উত্তোল করা এমএল ডাইংয়ের শেয়ার সোমবার থেকে ‘এন’ গ্রুপের আওতায় ‘MLDYEING’ ট্রেডিং কোডে ডিএসইতে লেনদেন হবে। এই প্রতিষ্ঠানটির কোম্পানি কোড হবে ১৭৪৭৯।

লেনদেন শুরুর আগে রোববার ডিএসইকে কোম্পানিটি জানিয়েছে চলতি বছরের জানুয়ারি-মার্চ প্রান্তিকে ব্যবসা করে কর পরবর্তী মুনাফা হয়েছে ৬ কোটি ১৩ লাখ ৪০ হাজার টাকা। প্রতিটি শেয়ারের বিপরীতে এই মুনাফার পরিমাণ ৪৪ পয়সা।

আগের বছরের একই সময়ে প্রতিষ্ঠানটি কর পরবর্তী মুনাফা করে ৬ কোটি ৫৫ লাখ ৩০ হাজার টাকা। আর শেয়ারপ্রতি মুনাফা হয় ৪৭ পয়সা। সে হিসাবে আগের বছরের তুলনায় কোম্পানিটির মোট মুনাফা কমেছে ৪১ লাখ ৯০ হাজার টাকা এবং শেয়ারপ্রতি মুনাফা কমেছে ৩ পয়সা।

চলতি বছরের জানুয়ারি-মার্চ প্রান্তিকের মতো ২০১৭ সালের জুলাই থেকে চলতি বছরের মার্চ পর্যন্ত নয় মাসের হিসাবেও কোম্পানিটির মুনাফা কমেছে। ২০১৭ সালের জুলাই থেকে চলতি বছরের মার্চ পর্যন্ত ব্যবসা করে কোম্পানিটি মুনাফা করেছে ১৬ কোটি ৭৫ লাখ ৮০ হাজার টাকা। এতে শেয়ারপ্রতি মুনাফা হয়েছে ১ টাকা ১৯ পয়সা।

আগের হিসাব বছরের একই সময়ে কোম্পানিটি মোট মুনাফা করে ১৬ কোটি ৭৮ লাখ টাকা। এতে শেয়ারপ্রতি মুনাফা হয় ১ টাকা ২০ পয়সা। এ হিসাবে আগের বছরের তুলনায় এমএল ডাইংয়ের মোট মুনাফা কমেছে ২ লাখ ২০ হাজার টাকা। আর প্রতিটি শেয়ারের বিপরীতে মুনাফা কমেছে ১ পয়সা।

কোম্পানিটিকে পুঁজিবাজারে আনতে ইস্যু ব্যবস্থাপনার দায়িত্বে রয়েছে এনবিএল ক্যাপিটাল অ্যান্ড ইক্যুইটি ম্যানেজমেন্ট লিমিটেড এবং রূপালী ইনভেস্টমেন্ট লিমিটেড।

এমএএস/জেডএ/আরআইপি

আপনার মতামত লিখুন :