সর্বাধুনিক বোয়িং ৭৩৭ ম্যাক্স-৮ চালাবে ইউএস-বাংলা

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৬:০৮ পিএম, ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

বাংলাদেশে প্রথম সর্বাধুনিক বোয়িং ৭৩৭ ম্যাক্স-৮ পরিচালনা করবে ইউএস-বাংলা। নেদারল্যান্ডসভিত্তিক আন্তর্জাতিক এয়ারক্রাফট লিজিং কোম্পানি এয়ারক্যাপ থেকে দীর্ঘমেয়াদি লিজে আনা হচ্ছে এয়ারক্রাফটি। বোয়িং কোম্পানিও রয়েছে এই উদ্যোগের সঙ্গে।

ঘোষণা অনুযায়ী, খুব শিগগিরই বিশ্বের সর্বাধুনিক এয়ারক্রাফট বোয়িং ৭৩৭ ম্যাক্স ৮ ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্স-এর বহরে যুক্ত হচ্ছে।

মঙ্গলবার রাজধানীর লা মেরিডিয়ান হোটেলে সংবাদ সম্মেলনে ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্সের প্রধান নির্বাহী (সিইও) ইমরান আসিফ এসব তথ্য জানান।

তিনি বলেন, ইউএস-বাংলা প্রতিষ্ঠার শুরু থেকেই যাত্রী সাধারণের জন্য আরামদায়ক, আধুনিক ও গ্রহণযোগ্য বিমান সংযুক্ত করাই ছিল প্রধান লক্ষ্য। বিশ্বের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠিত এয়ারলাইন্সগুলোতে বর্তমানে অত্যন্ত গ্রহণযোগ্য এয়ারক্রাফট বোয়িং ৭৩৭ ম্যাক্স যুক্ত হচ্ছে। ইউএস-বাংলা বাংলাদেশে প্রথম বোয়িং ৭৩৭ ম্যাক্স-৮ এয়ারক্রাফট দিয়ে ফ্লাইট পরিচালনা করতে যাচ্ছে। যা ২০১৮ সালের বিমান পরিবহন সেবায় অন্তর্ভুক্ত হয়েছে। সর্বাধুনিক বোয়িং ৭৩৭ ম্যাক্স এর অন্তর্ভুক্তিকরণের সিদ্ধান্ত নেয়ায় এয়ারলাইন্সের অগ্রযাত্রা। ইউএস-বাংলার বিমান বহরে এমন কোনো এয়ারক্রাফট ব্যবহৃত হয় না, যে এয়ারক্রাফট বর্তমানে উৎপাদন প্রক্রিয়ার মধ্যে নেই।

তিনি জানান, খুব শিগগিরই দুটি ব্র্যান্ড নিউ এটিআর ৭২-৬০০ মডেলের এয়ারক্রাফট ইউএস-বাংলার বিমান বহরে যুক্ত হতে চলেছে। যাত্রী সাধারণের চাহিদা অনুযায়ী, ইউএস-বাংলা-ই প্রথম কোনো বেসরকারি এয়ারলাইন্স, যা ফ্যাক্টরি থেকে সরাসরি এয়ারক্রাফট সংগ্রহ করতে যাচ্ছে।

US Bangla

বোয়িং ৭৩৭ ম্যাক্স এয়ারক্রাফটে সর্বকালের সবচেয়ে জনপ্রিয় জেট বিমানটিতে সর্বশেষ প্রযুক্তি সরবরাহ করে বোয়িং ৭৩৭। ৭৩৭ ম্যাক্স এয়ারক্রাফটে সংযুক্ত অত্যাধুনিক কেবিন ডিজাইন ও ইন-ফ্লাইট এন্টারটেননমেন্ট সিস্টেম বিশ্বব্যাপী নতুন নতুন গন্তব্যে জনপ্রিয় হয়ে উঠছে। তুলনামূলক কম খরচ, পরিবেশবান্ধব ও সময়ের কারণে বিশ্বব্যাপী এয়ারালাইন্স কোম্পানির কাছে গ্রহণযোগ্য হয়ে উঠছে।

নামকরা এয়ারলাইন্স ইতোমধ্যে বোয়িং ৭৩৭ ম্যাক্স এয়ারক্রাফট ব্যবহার শুরু করেছে। উল্লেখযোগ্য এয়ারলাইন্সগুলোর মধ্যে রয়েছে- মালয়েশিয়া এয়ারলাইন্স, টার্কিশ এয়ারলাইন্স, ওমান এয়ার, কাতার এয়ারওয়েজ, ইউনাইটেড এয়ারলাইন্স, আমেরিকান এয়ারলাইন্স, চায়না ইস্টার্ন, চায়না সাউদার্ন, জেট এয়ারওয়েজ, স্পাইস জেট, ফ্লাই দুবাইসহ আরও অনেক এয়ারলাইন্স।

এছাড়া আগামী ৩১ মার্চ থেকে ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্স দক্ষিণ এশিয়ার অন্যতম গন্তব্য ভারতের চেন্নাইতে সপ্তাহে তিনদিন ফ্লাইট পরিচালনা শুরু করতে যাচ্ছে। চেন্নাই মূলত চিকিৎসাসেবার জন্য বাংলাদেশিদের কাছে অত্যন্ত আকর্ষণীয় গন্তব্য। প্রথমবারের মতো বাংলাদেশি কোনো এয়ারলাইন্স সরাসরি বাংলাদেশ থেকে চেন্নাই ফ্লাইট পরিচালনা শুরু করতে যাচ্ছে।

সংবাদ সম্মেলনে এয়ারক্যাপ এর প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ও চিফ কমার্শিয়াল অফিসার ফিলিপ স্ক্রাগস, লিজিং কোম্পানির সুতেশ সেলভারাতনাম, দি বোয়িং কোম্পানির ডাইরেক্টর সেলস অ্যান্ড মার্কেটিং আহসেন রাজপুতসহ ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্সের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

আরএম/এমবিআর/এমএস

আপনার মতামত লিখুন :