দেড় হাজার ডলার রেমিট্যান্সে বিনা প্রশ্নে প্রণোদনা

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৯:২৪ পিএম, ০৫ আগস্ট ২০১৯

কোনো প্রবাসী এক হাজার ৫০০ ডলার রেমিট্যান্স পাঠালে তাকে কোনো প্রশ্ন না করে পাঠানো অর্থের বিপরীতে শতকরা ২ ভাগ আর্থিক সহায়তা দেয়া হবে। কিন্তু কেউ যদি এর বেশি অর্থ পাঠান তার কাছে কিছু কাগজপত্র চাওয়া হবে। তবে রেমিট্যান্স পাঠানোর কোনো ঊর্ধ্বসীমা বা আপার লিমিট থাকবে না বলে জানিয়েছেন অর্থ সচিব আবদুর রউফ তালুকদার।

সোমবার (৫ আগস্ট) সচিবালয়ে অর্থ মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে অর্থমন্ত্রী মুস্তফা কামালের সভাপতিত্বে রফতানির বিপরীতে সরকারপ্রদত্ত নগদ সহায়তার বিদ্যমান হারসমূহ পুনঃনির্ধারণ ও নতুন নতুন খাতে নগদ সহায়তা প্রদান বিষয়ক সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভা শেষে অর্থ সচিব সাংবাদিকদের এসব তথ্য জানান।

আরও পড়ুন >> রেমিট্যান্স পালে ঈদের হাওয়া

রেমিট্যান্স খাতে প্রণোদনা প্রসঙ্গে অর্থ সচিব বলেন, প্রবাসীদের পাঠানো রেমিট্যান্সে সরকার এখন থেকে ২ শতাংশ প্রণোদনার ঘোষণা দিয়েছে বাজেটে। এক্ষেত্রে একটি নিয়ম অনুসরণ করে সকলকে রেমিট্যান্স পাঠাতে হবে। সেটা হলো এক হাজার ৫০০ ডলারের বেশি রেমিট্যান্স পাঠালেই তাদের নিরীক্ষার আওতায় আসতে হবে। এ বিষয়ে আজ অনুমোদন দেয়া হলো। এ সপ্তাহের মধ্যেই বাংলাদেশ ব্যাংক প্রজ্ঞাপন জারি করে সকলকে জানিয়ে দেবে।

remittance

গত বুধবার বাংলাদেশ ব্যাংকের ডেপুটি গভর্নর আহমেদ জামাল বলেছিলেন, বছরে এক হাজার ডলার পর্যন্ত রেমিট্যান্স দেশে পাঠালে বিনা প্রশ্নে প্রণোদনা পাবেন প্রবাসী বাংলাদেশিরা। এ বিষয়ে একটি খসড়া নীতিমালা করে অর্থ মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়েছে। এখন অর্থ মন্ত্রণালয় থেকে সায় দিলেই তা বাস্তবায়ন হবে।

ছোট ছোট গ্রাহকদের জন্য সিলিং নির্ধারণ করা হচ্ছে উল্লেখ করে আহমেদ জামাল বলেন, এটি প্রস্তাব আকারে দেয়া হয়েছে, সেটা হতে পারে ৫০০, ৬০০ বা সর্বোচ্চ এক হাজার ডলার। এর বেশি যারা রেমিট্যান্স পাঠাবেন তাদের ক্ষেত্রে অতিরিক্ত ডকুমেন্ট প্রদর্শনের প্রয়োজন হবে।

আরও পড়ুন >> প্রবাসী আয়ে রেকর্ড : বছরে রেমিট্যান্স ১ হাজার ৬৪২ কোটি ডলার

চলতি অর্থবছরের (২০১৯-২০) বাজেটে রেমিট্যান্সের ওপর ২ শতাংশ হারে প্রণোদনার ঘোষণা দেয়া হয়। নীতিমালা না হওয়ায় এখনও এটি কার্যকর করতে পারেনি সরকার।

সম্প্রতি সচিবালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল জানান, ১ জুলাই থেকে যারা রেমিট্যান্স পাঠাচ্ছেন তাদের ২ শতাংশ হারে প্রণোদনা দেয়া হবে। অর্থমন্ত্রী আরও বলেন, গত ৩০ জুন সংসদে বাজেট পাস হয়েছে। ১ জুলাই থেকে এটি কার্যকর হয়েছে। তবে এগুলো ফাংশনালের জন্য কিছু সময় লাগে। লিগ্যালওয়েতে রেমিট্যান্স বাড়ানোর জন্য চলতি অর্থবছর থেকেই ২ শতাংশ নগদ প্রণোদনা দেয়া হবে। এটা আমরা বাজেটে পাস করেছি। কিন্তু সিস্টেম এখনও ডেভেলপ করতে পারিনি। প্রণোদনা দেয়ার জন্য সিস্টেম আপডেট করতে আরও দু-তিন মাস সময় লাগবে।

আরও পড়ুন >>সুস্থ শরীরে প্রবাসে, স্বপ্ন পূরণের আগেই ফিরছেন লাশ হয়ে

তিনি সেসময় আরও বলেন, সামনে ঈদ, অনেকেই ধারণা করছেন যে, এখন দেশে রেমিট্যান্স পাঠালে তারা প্রণোদনা পাবেন না, এটা কিন্তু ঠিক নয়। এটা যেহেতু বাজেটে পাস হয়েছে সেহেতু এখন রেমিট্যান্স পাঠালেও ২ শতাংশ প্রণোদনা ছয় মাস পর হলেও পাবেন। এখন পাঠালেও পাবেন, পরে পাঠালেও পাবেন। অর্থাৎ ১ জুলাই থেকেই যারা রেমিট্যান্স পাঠাচ্ছেন তারাই ২ শতাংশ হারে প্রণোদনা পাবেন। এক্ষেত্রে সিস্টেমটা ডেভেলপমেন্ট করতে আমরা দ্রুত কাজ করে যাচ্ছি।

এমইউএইচ/এমএআর/এমএস


আরও পড়ুন