সাবেক অর্থমন্ত্রী ওয়াহিদুল হকের ইন্তেকাল

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১০:৫০ পিএম, ০৪ জুলাই ২০২০

সাবেক অর্থমন্ত্রী, কানাডার টরেন্টো বিশ্ববিদ্যালয়ের ইমিরেটাস অধ্যাপক ও বিশিষ্ট অর্থনীতিবিদ ড. ওয়াহিদুল হক ইন্তেকাল করেছেন (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। শুক্রবার (৩ জুলাই) ৮৭ বছর বয়সে তার মৃত্যু হয় বলে পারিবারিক সূত্র জানিয়েছে।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ১৯৫৫ সালে মাস্টার্স শেষে যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়ার স্ট্যানফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পিএইচডি করেন ড. ওয়াহিদুল হক। প্রথমে কিছুদিন তিনি বার্কেলি বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যাপনা করেন ও পরে টরেন্টো বিশ্ববিদ্যালয়ে যোগদান করে সেখানেই স্থায়ীভাবে বসবাস শুরু করেন।

১৯৮৮ সালের সেপ্টেম্বর থেকে ১৯৯০ সালের মে পর্যন্ত দেশের অর্থমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করেন ড. ওয়াহিদুল হক।

ড. ওয়াহিদুল হকের মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন। এক শোকবার্তায় তিনি বলেন, অত্যন্ত মেধাবী ও শ্রদ্ধাভাজন ব্যক্তিত্ব ড. ওয়াহিদুল হক আমার শিক্ষক ছিলেন। ১৯৬৯ সালে পাকিস্তানের রাওয়ালপিন্ডিতে প্রেসিডেন্ট আইয়ুব খানের গোলটেবিল বৈঠকে উপস্থাপনের জন্য বঙ্গবন্ধুর ছয় দফার পক্ষে এ এম এ মুহিত, আব্দুর রব চৌধুরীসহ কিছু সিএসপি অফিসার একটি খসড়া দলিল প্রস্তুত করেছিলেন। এ খসড়া দলিল প্রস্তুত করার সময় ইসলামাবাদ বিশ্ববিদ্যালয়ে অর্থনীতির শিক্ষক ড. ওয়াহিদুল হক অংশগ্রহণ করেন।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী মরহুমের শোকসন্তপ্ত পরিবার ও তার শুভানুধ্যায়ীদের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করেছেন। সেই সঙ্গে মরহুমের বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা করেন তিনি।

এদিকে আরেক শোকবার্তায় ড. ওয়াহিদুল হকের মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল। মরহুমের বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা করেছেন।

এছাড়া ব্যক্তিগতভাবে ও অর্থমন্ত্রণালয়ের সর্বস্তরের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের পক্ষ থেকে মরহুমের পরিবার-পরিজন, সন্তানসহ সবাইকে গভীর সমবেদনা জানিয়েছেন তিনি।

এমইউএইচ/এমএসএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]