গ্রাহকসেবার মনোভাব বাড়ানোর আহ্বান আহসান খান চৌধুরীর

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৭:৫২ এএম, ২২ ডিসেম্বর ২০১৫

কর্মীদের গ্রাহকসেবার মনোভাব বাড়াতে বললেন দেশের অন্যতম বৃহৎ শিল্পগোষ্ঠী প্রাণ-আরএফএল গ্রুপের উপ-ব্যবস্থাপনা পরিচালক আহসান খান চৌধুরী। প্রতিষ্ঠানের কর্মীদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, প্রাণ-আরএফএল গ্রুপের প্রত্যেক কর্মীকে গ্রাহকসেবার মনোভাব নিয়ে কাজ করতে হবে। সবাইকে বিক্রয়কর্মীর দায়িত্ব পালন করতে হবে। এভাবেই কোম্পানি এগিয়ে যাবে। আর কোম্পানি আপনাদের (কর্মীদের) স্বার্থ সুরক্ষা দেবে। আপনাদের কল্যাণে উদ্যোগ নিতেও আরো বেশি এগিয়ে যাবে।

মঙ্গলবার রাজধানীর ট্রাস্ট মিলনায়তনে প্রাণ এর সহযোগী কোম্পানি অ্যাগ্রিকালচার মাকের্টিং কোম্পানি লিমিটেডের বার্ষিক সাধারণ সভা শেষে কর্মীদের সঙ্গে অনানুষ্ঠানিক আলোচনায় তিনি এ সব কথা বলেন।

আহসান খান চৌধুরী বলেন, প্রাণ-আরএফএল গ্রুপ কর্মীদের সুরক্ষা দিতে প্রস্তুত। আমরা কর্মীদের কল্যাণে নানা উদ্যোগ নিয়েছি, আরো উদ্যোগ নেয়া হচ্ছে। এই গ্রুপ আপনাদের। সবাই নিবেদিতভাবে কাজ করুন। কোম্পানি আপনাকে দেখবে।

Pran

তিনি আরো বলেন, সবাইকে বিক্রয়কর্মীর দায়িত্ব পালন করতে হবে। যেকোনো শাখাতেই কাজ করুন না কেন, গ্রাহকসেবার মনোভাব রাখতে হবে। দুর্নীতির ঊর্ধ্বে থেকে পেশাদারিত্ব নিয়ে কাজ করবেন সবাই। এভাবেই কোম্পানি এগিয়ে যাচ্ছে। আমরা আরো এগিয়ে যেতে চাই।

ডিএমডি বলেন, সবাই মিলে চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করতে হবে। কোম্পানির চ্যালেঞ্জে চাপ বোধ করবেন না। বিচলিত হবেন না। সবাই একসঙ্গে সেটি মোকাবেলা করবো। বিচলিত হয়ে কোম্পানিকে বিচলিত করে ফেলবেন না।

প্রতিযোগিতায় টিকে থাকার সক্ষমতা বাড়ানোর নির্দেশনা দিয়ে আহসান খান চৌধুরী বলেন, প্রতিযোগিতায় টিকে থাকতে সবাইকে কাজ করতে হবে। কথা বলতে হবে। সিদ্ধান্ত নিতে হবে। মানবসম্পদসহ সব বিভাগকে প্রযুক্তি নির্ভর ও আরো দক্ষ হতে হবে।

ডিএমডি বলেন, কর্মীদের কল্যাণে নাটোরে ৫০ শয্যার হাসপাতাল করা হচ্ছে। খুব দ্রুত সেটির কাজ শেষ হবে। ঢাকার আশপাশে একটি ক্লিনিক করার চিন্তা রয়েছে। যাতে ঢাকার কর্মীরা ও তাদের পরিবার চিকিৎসা সেবা পান। আবাসন সুবিধা দিতে ঢাকার অদূরে দেড়শ` বিঘা জমি কেনা হয়েছে। সেখানে কর্মীরা ফ্ল্যাট পাবেন। তার কাজও এগিয়ে চলছে।

তিনি আরো বলেন, নারীর অংশগ্রহণ কোম্পানিতে বাড়ছে। আরো বাড়ানো হবে। নারী সহকর্মীদের কোম্পানি পরিচালনায় অংশীদারিত্ব বাড়াতে হবে। নারীদের নেতৃত্বে আসতে হবে।

Pran

নারী কর্মীরা যাতে মাতৃত্বকালীন ছুটিসহ কাজের পরিবেশ পান সেটি নিশ্চিত করারও তাগিদ দেন আহসান খান চৌধুরী। তিনি বলেন, গ্রুপ আরো এগিয়ে যাবে। আপনারাও এগিয়ে যাবেন। তাই সবাই যার যার ভালো কাজটুকু করে যাবেন।

অনুষ্ঠানে প্রাণ-আরএফএল গ্রুপের পরিচালক (অর্থ) উজমা চৌধুরী বলেন, কর্মীদের ইতিবাচক মনোভাব নিয়ে কাজ করতে হবে। সমস্যা থাকতে পারে। সেটি সমাধানে উদ্যোগ নিতে হবে। এভাবেই প্রতিষ্ঠান এগিয়ে যাবে।

বিপণন বিভাগের পরিচালক চৌধুরী কামরুজ্জামান বলেন, কর্মীদের কল্যাণে উদ্যোগ নেয়া হচ্ছে। এই চেষ্টা অব্যাহত থাকবে।

এ সময় উন্মুক্ত আলোচনায় গ্রুপের বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মীরা নানা পরামর্শ তুলে ধরেন। এর আগে অ্যাগ্রিকালচার মার্কেটিং কোম্পানি লিমিটেডের এজিএম পরিচালনা করেন গ্রুপের চেয়ারম্যান লে. কর্ণেল (অব.) মাহতাবউদ্দিন আহমেদ।

এসএ/আরএস/এআরএস/এসআইএস/এমএস

আপনার মতামত লিখুন :