করোনায় শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে শ্রেণি পাঠের নতুন গাইডলাইন

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৩:০৩ পিএম, ২৩ জানুয়ারি ২০২১

করোনার কারণে বন্ধ থাকা দেশের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দিতে ৪ ফেব্রুয়ারির মধ্যে পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন করার নির্দেশ দেয়া হয়েছে। স্বাস্থ্যবিধি মেনে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার কথা বলা হলেও স্থানীয় বাস্তবতার সঙ্গে সামঞ্জস্য বিধান এবং প্রতিটি শিক্ষার্থীর শিখন, স্বাস্থ্য ও নিরাপত্তার চাহিদা পূরণের নির্দেশ দিয়েছে কর্তৃপক্ষ।

শনিবার (২৩ জানুয়ারি) এ গাইডলাইন প্রকাশ করে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদফতর (মাউশি)।

নির্দেশিকা প্রণয়নে অনুসরণ করা মূলনীতির মধ্যে রয়েছে-

>> শিক্ষার্থীদের নিরাপত্তা ও সুরক্ষাকে সর্বোচ্চ প্রাধান্য দেয়া।

>> জাতীয় পর্যায়ের সব স্বাস্থ্যবিধি ও নির্দেশনা মেনে এবং আন্তর্জাতিক স্বাস্থ্যবিধি বিবেচনায় রেখে সর্বোচ্চ নিরাপত্তা ও সুরক্ষা নিশ্চিত করে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান পুনরায় চালু করতে হবে

>> এক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট অংশীজনদের (শিক্ষক, অভিভাবক, শিক্ষার্থী, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান কর্তৃপক্ষ, স্থানীয় স্বাস্থ্য ও প্রশাসন এবং কমিউনিটি) সম্পৃক্ত করতে হবে

>> স্থানীয় প্রশাসন, স্বাস্থ্য বিভাগ ও সংশ্লিষ্ট অন্যান্য সংস্থার সঙ্গে সমন্বয় করে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান চালুকরণ এবং সার্বক্ষণিক যোগাযোগের মাধ্যমে সঠিক তথ্যপ্রাপ্তি, বাছাই ও তা প্রতিষ্ঠানের জন্য প্রাসঙ্গিক করতে হবে।

>> দরিদ্র ও সুবিধাবঞ্চিত, জেন্ডার, নৃ-গোষ্ঠী, প্রতিবন্ধিতা বিবেচনা করে সবার জন্য প্রযোজ্য ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে।

>> প্রতিটি শিক্ষার্থীর শারীরিক ও মানসিক স্বাস্থ্যের বিষয়কে গুরুত্ব দিয়ে আনন্দঘন শিখন পরিবেশ নিশ্চিত করতে হবে।

>> প্রতিটি শিক্ষার্থীর পুষ্টি উন্নয়নের মাধ্যমে রোগ প্রতিরোধ করার বিষয়টিকে গুরুত্ব দিয়ে পুষ্টি শিক্ষা এবং পুষ্টিসেবা প্রদান নিশ্চিত করার কথাও বলা হয়েছে।

>> কোভিড-১৯ পরিস্থিতিকে নতুন স্বাভাবিকতা হিসেবে বিবেচনা করতে হবে।

>> শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অধীন সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের (সরকারি/বেসরকারি, আবাসিক/অনাবাসিক শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, কলেজ, মাদ্রাসা ও কারিগরি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান) জন্য বিবেচনা করতে হবে।

>> সর্বোপরি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের অবস্থান, প্রাতিষ্ঠানিক ও আর্থিক সক্ষমতা, জনবল ও দক্ষতা ইত্যাদি বিবেচনায় বাস্তবসম্মতভাবে নির্দেশনা প্রণয়ন করতে হবে।

নির্দেশিকা প্রণয়নে যেসব স্বাস্থ্য ও সুরক্ষা সূচককে প্রাধান্য দেয়া হয়েছে সেগুলো হলো-

>> শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে অবস্থানকালে সব শিক্ষার্থী, শিক্ষক, স্টাফ ও সংশ্লিষ্ট সবার সর্বদা মাস্ক পরিধান নিশ্চিত করা।

>> প্রতিষ্ঠান ও শিক্ষা কার্যক্রম পরিচালনা এবং সংশ্লিষ্ট অন্যান্য কার্যক্রমে নির্দেশিত (৩ ফুট) শারীরিক দূরত্ব বজায় রাখতে হবে।

>> একসঙ্গে অধিক সংখ্যক মানুষের জমায়েতকে নিরুৎসাহিত করা হয়েছে।

>> প্রতিষ্ঠানগুলোতে নির্দিষ্ট সময় পর পর নিয়ম মেনে সাবান দিয়ে হাত ধোয়া ও পরিষ্কারের ব্যবস্থা রাখতে হবে।

>> হাঁচি-কাশির শিষ্টাচার পালন করা ও উৎসাহিত করতে হবে।

>> শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের মেঝেসহ সব এলাকা প্রতিদিন নিয়মিত পরিষ্কার ও জীবাণুমুক্ত করতে হবে।

>> শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে নিয়মিত পানি, স্যানিটেশন এবং বর্জ্য ব্যবস্থাপনার সুবিধা রাখা এবং পরিচ্ছন্ন ও দূষণমুক্ত পরিবেশ বজায় রাখার পদ্ধতি অনুসরণ করতে হবে।

>> শরীরের তাপমাত্রা পরিমাপ করা এবং কেউ অসুস্থ/আক্রান্ত থাকলে/হলে তাৎক্ষণিক ব্যবস্থার পাশাপাশি কন্টাক্ট ট্রেসিং করে অন্যদের সুরক্ষা নিশ্চিত করতে হবে।

>> শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ও কমিউনিটির মধ্যে নিয়মিত যোগাযোগ ও সহযোগিতার মাধ্যমে গুজবের আতঙ্ক ও মহামারির বিস্তার রোধে শিক্ষার্থীসহ সবার অংশগ্রহণ নিশ্চিত করার কথাও গাইডলাইনে বলা হয়েছে।

শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অধীনস্থ সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান (সরকারি/বেসরকারি, আবাসিক/অনাবাসিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, কলেজ, মাদ্রাসা ও কারিগরি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান) এই নির্দেশিকা ব্যবহার করতে পারবে।

সার্বিক পরিস্থিতি বিবেচনায় দেশের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো কবে থেকে পুনরায় চালু হবে তা কেন্দ্রীয়ভাবে ঘোষণা করবে সরকার। তবে পূর্বপ্রস্তুতি হিসেবে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো বেশকিছু উদ্যোগ (বিশেষ করে বিস্তারিত পরিকল্পনা প্রণয়ন, অর্থসংস্থান এবং প্রয়োজনীয় সামগ্রী সংগ্রহ) গ্রহণ করবে। প্রতিষ্ঠান খোলার সরকারি ঘোষণা অনুসরণের পাশাপাশি প্রধান শিক্ষক, অন্যান্য শিক্ষক ও ব্যবস্থাপনা কমিটিকে নিয়ে এলাকার কোভিড-১৯ পরিস্থিতি বিশ্লেষণ করতে হবে। পরে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান পুনরায় খোলার বিষয়ে সবাইকে প্রয়োজনীয় উদ্যোগ নিতে হবে।

এক্ষেত্রে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এলাকার কোভিড-১৯ পরিস্থিতি বিশ্লেষণ, করোনা সংক্রমণের বিস্তার বিবেচনায় নিরাপদে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার ক্ষেত্রে প্রতিষ্ঠানের সক্ষমতা বিশ্লেষণ করে দেখার কথা বলা হয়েছে। সব প্রতিষ্ঠান স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে পারবে কিনা, প্রতিষ্ঠানটি বন্ধ রাখার প্রভাব সেখানকার শিক্ষার্থীদের ওপর কীভাবে পড়েছে এবং প্রতিষ্ঠান খোলা হলে এবং চালু রাখলে, তা ওই এলাকায় সংক্রমণ আরও বাড়িয়ে দিতে পারে কিনা ইত্যাদি ভালোভাবে বিশ্লেষণ করে দেখতে হবে।

সব পরিস্থিতি ও তথ্য বিশ্লেষণের মাধ্যমে মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা অনুযায়ী প্রতিষ্ঠান চালু রাখতে পদক্ষেপ গ্রহণের সিদ্ধান্ত নেয়ার কথা বলা হয়েছে নির্দেশিকায়।

এমএইচএম/এসএস/এমএস

করোনা ভাইরাস - লাইভ আপডেট

১১,৪৭,৬০,৫৭৪
আক্রান্ত

২৫,৪৪,৪৮২
মৃত

৯,০৩,১২,১১৬
সুস্থ

# দেশ আক্রান্ত মৃত সুস্থ
বাংলাদেশ ৫,৪৬,২১৬ ৮,৪০৮ ৪,৯৬,৯২৪
মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ২,৯২,৫৬,৫৬০ ৫,২৫,৮০৮ ১,৯৬,৯৪,৩৩৭
ভারত ১,১১,১২,২৪১ ১,৫৭,১৯৫ ১,০৭,৮৬,৪৫৭
ব্রাজিল ১,০৫,৫১,২৫৯ ২,৫৫,০১৮ ৯৪,১১,০৩৩
রাশিয়া ৪২,৫৭,৬৫০ ৮৬,৪৫৫ ৩৮,২৩,০৭৪
যুক্তরাজ্য ৪১,৭৬,৫৫৪ ১,২২,৮৪৯ ২৯,০৫,৩১৭
ফ্রান্স ৩৭,৫৫,৯৬৮ ৮৬,৪৫৪ ২,৫৪,৮৬৮
স্পেন ৩১,৮৮,৫৫৩ ৬৯,১৪২ ২৬,৪৭,৪৪৬
ইতালি ২৯,২৫,২৬৫ ৯৭,৬৯৯ ২৪,০৫,১৯৯
১০ তুরস্ক ২৭,০১,৫৮৮ ২৮,৫৬৯ ২৫,৭২,২৩৪
১১ জার্মানি ২৪,৫০,২৯৪ ৭০,৬৮৭ ২২,৫৫,৫০০
১২ কলম্বিয়া ২২,৫১,৬৯০ ৫৯,৭৬৬ ২১,৪৮,২৪৯
১৩ আর্জেন্টিনা ২১,০৭,৩৬৫ ৫১,৯৬৫ ১৯,০৫,০২১
১৪ মেক্সিকো ২০,৮৬,৯৩৮ ১,৮৫,৭১৫ ১৬,৩৩,৯০০
১৫ পোল্যান্ড ১৭,১১,৭৭২ ৪৩,৭৯৩ ১৪,৩০,৮৬১
১৬ ইরান ১৬,৩৯,৬৭৯ ৬০,১৮১ ১৩,৯৯,৯৩৪
১৭ দক্ষিণ আফ্রিকা ১৫,১৩,৩৯৩ ৪৯,৯৯৩ ১৪,৩০,২৫৯
১৮ ইউক্রেন ১৩,৫২,১৩৪ ২৬,০৫০ ১১,৭১,৭২৪
১৯ ইন্দোনেশিয়া ১৩,৪১,৩১৪ ৩৬,৩২৫ ১১,৫১,৯১৫
২০ পেরু ১৩,২৯,৮০৫ ৪৬,৪৯৪ ১২,৩২,৫২৮
২১ চেক প্রজাতন্ত্র ১২,৪০,০৫১ ২০,৪৬৯ ১০,৭০,৬২২
২২ নেদারল্যান্ডস ১০,৮৮,৬৯০ ১৫,৫৬৩ ২৫০
২৩ কানাডা ৮,৬৬,৫০৩ ২১,৯৯৪ ৮,১৩,৭৭৮
২৪ চিলি ৮,২৫,৬২৫ ২০,৫৭২ ৭,৮০,৫৩০
২৫ পর্তুগাল ৮,০৪,৫৬২ ১৬,৩১৭ ৭,১৮,৯৭৭
২৬ রোমানিয়া ৮,০৪,০৯০ ২০,৪০৩ ৭,৪১,৪৭১
২৭ ইসরায়েল ৭,৭৮,১৭২ ৫,৭৫৮ ৭,৩৩,৯৩৪
২৮ বেলজিয়াম ৭,৭১,৫১১ ২২,০৭৭ ৫২,৫২৪
২৯ ইরাক ৬,৯৯,০৮৮ ১৩,৪২৮ ৬,৩৯,৬৩৯
৩০ সুইডেন ৬,৫৭,৩০৯ ১২,৮২৬ ৪,৯৭১
৩১ পাকিস্তান ৫,৮১,৩৬৫ ১২,৮৯৬ ৫,৪৬,৩৭১
৩২ ফিলিপাইন ৫,৭৮,৩৮১ ১২,৩২২ ৫,৩৪,৩৫১
৩৩ সুইজারল্যান্ড ৫,৫৭,৪৯২ ৯,৯৭১ ৫,১১,৪৩৭
৩৪ মরক্কো ৪,৮৩,৬৫৪ ৮,৬২৩ ৪,৬৯,০৪৬
৩৫ অস্ট্রিয়া ৪,৬০,৮৪৯ ৮,৫৭৪ ৪,৩২,০১৬
৩৬ সার্বিয়া ৪,৫৯,২৫৯ ৪,৪৪৩ ৪,০০,৩৪৭
৩৭ হাঙ্গেরি ৪,৩২,৯২৫ ১৫,০৫৮ ৩,২২,৯৫৬
৩৮ জাপান ৪,৩১,৭৪০ ৭,৮৬০ ৪,০৯,৩১৯
৩৯ সংযুক্ত আরব আমিরাত ৩,৯৪,০৫০ ১,২৩৮ ৩,৮২,৩৩২
৪০ জর্ডান ৩,৯১,০৯০ ৪,৭০১ ৩,৪৮,৫৯৯
৪১ সৌদি আরব ৩,৭৭,৩৮৩ ৬,৪৯৪ ৩,৬৮,৩০৫
৪২ লেবানন ৩,৭৫,০৫০ ৪,৬৯২ ২,৯১,৫৯০
৪৩ পানামা ৩,৪০,৯১৫ ৫,৮৪৫ ৩,২৬,২১৩
৪৪ স্লোভাকিয়া ৩,০৮,০৮৩ ৭,১৮৯ ২,৫৫,৩০০
৪৫ মালয়েশিয়া ৩,০২,৫৮০ ১,১৩৫ ২,৭৫,৯০৩
৪৬ বেলারুশ ২,৮৮,২৬৭ ১,৯৮৫ ২,৭৮,৬৬১
৪৭ ইকুয়েডর ২,৮৬,১৫৫ ১৫,৮১১ ২,৪৭,৮৯৮
৪৮ নেপাল ২,৭৪,২১৬ ২,৭৭৭ ২,৭০,৪৭১
৪৯ জর্জিয়া ২,৭০,৯১৮ ৩,৫২০ ২,৬৫,৫২৩
৫০ বলিভিয়া ২,৪৯,০১০ ১১,৬৪৯ ১,৯৩,০৩২
৫১ বুলগেরিয়া ২,৪৭,০৩৮ ১০,১৯১ ২,০৫,৫৪৫
৫২ ক্রোয়েশিয়া ২,৪৩,০৬৪ ৫,৫৩৭ ২,৩৪,৬৩৫
৫৩ ডোমিনিকান আইল্যান্ড ২,৩৯,৬১৭ ৩,১০০ ১,৯১,৩৩৮
৫৪ আজারবাইজান ২,৩৪,৫৩৭ ৩,২২০ ২,২৮,৭৬৮
৫৫ তিউনিশিয়া ২,৩৩,২৭৭ ৮,০০১ ১,৯৮,০০৬
৫৬ আয়ারল্যান্ড ২,১৯,৫৯২ ৪,৩১৯ ২৩,৩৬৪
৫৭ কাজাখস্তান ২,১৩,৪৩১ ২,৫৪০ ১,৯৬,৮৮৯
৫৮ ডেনমার্ক ২,১১,১৯৫ ২,৩৬১ ২,০২,১৮১
৫৯ কোস্টারিকা ২,০৪,৩৪১ ২,৮০০ ১,৭৭,০৯৯
৬০ লিথুনিয়া ১,৯৭,৩৪৩ ৩,২৩৪ ১,৮৩,৩২৪
৬১ গ্রীস ১,৯১,১০০ ৬,৫০৪ ১,৬৫,৭১৮
৬২ কুয়েত ১,৯০,৮৫২ ১,০৮৩ ১,৭৯,২০৯
৬৩ স্লোভেনিয়া ১,৯০,৩২৪ ৩,৮৫৪ ১,৭৫,২১০
৬৪ মলদোভা ১,৮৫,৪৫৩ ৩,৯৪৯ ১,৬৬,১৭৮
৬৫ ফিলিস্তিন ১,৮৩,৬১২ ২,০৪২ ১,৬৬,৯৩৬
৬৬ মিসর ১,৮২,৪২৪ ১০,৬৮৮ ১,৪০,৮৯২
৬৭ গুয়াতেমালা ১,৭৪,৫৪২ ৬,৩৯৩ ১,৬১,৫১১
৬৮ আর্মেনিয়া ১,৭২,২১৬ ৩,১৯৫ ১,৬৩,৫১১
৬৯ হন্ডুরাস ১,৭০,৩০৪ ৪,১৫১ ৬৬,৫১৩
৭০ কাতার ১,৬৩,৬৬৪ ২৫৮ ১,৫৩,৬২১
৭১ প্যারাগুয়ে ১,৫৯,৪৭৪ ৩,১৮১ ১,৩৩,৪৩৫
৭২ ইথিওপিয়া ১,৫৯,০৭২ ২,৩৬৫ ১,৩৪,৮৫৮
৭৩ নাইজেরিয়া ১,৫৫,৬৫৭ ১,৯০৭ ১,৩৩,৭৬৮
৭৪ মায়ানমার ১,৪১,৮৯৬ ৩,১৯৯ ১,৩১,৪৮০
৭৫ ওমান ১,৪১,৮০৮ ১,৫৭৭ ১,৩২,৬৮৫
৭৬ ভেনেজুয়েলা ১,৩৯,১১৬ ১,৩৪৪ ১,৩০,৮৩৪
৭৭ লিবিয়া ১,৩৪,১২৭ ২,২১০ ১,২১,১১৬
৭৮ বসনিয়া ও হার্জেগোভিনা ১,৩০,৯৭৯ ৫,০৭১ ১,১৫,৮৪৭
৭৯ বাহরাইন ১,২২,৩৯৪ ৪৪৯ ১,১৫,০৮৯
৮০ আলজেরিয়া ১,১৩,০৯২ ২,৯৮৩ ৭৮,০৯৮
৮১ আলবেনিয়া ১,০৭,১৬৭ ১,৭৯৬ ৬৯,৭৭৩
৮২ কেনিয়া ১,০৫,৯৭৩ ১,৮৫৬ ৮৬,৬৭৮
৮৩ উত্তর ম্যাসেডোনিয়া ১,০২,৭৮৭ ৩,১৩৭ ৯১,২৩৩
৮৪ দক্ষিণ কোরিয়া ৯০,০৩১ ১,৬০৫ ৮১,০৭০
৮৫ চীন ৮৯,৯১২ ৪,৬৩৬ ৮৫,০৬৬
৮৬ লাটভিয়া ৮৬,৪৫৮ ১,৬২১ ৭৫,২৫৫
৮৭ কিরগিজস্তান ৮৬,২৫১ ১,৪৯৮ ৮৩,২১০
৮৮ ঘানা ৮৪,০২৩ ৬০৭ ৭৭,৯৭২
৮৯ শ্রীলংকা ৮৩,২৪২ ৪৬৪ ৭৮,৯৪৭
৯০ উজবেকিস্তান ৭৯,৯২৬ ৬২২ ৭৮,৪৯৬
৯১ জাম্বিয়া ৭৯,০০২ ১,০৯৮ ৭৫,০৮৭
৯২ মন্টিনিগ্রো ৭৫,৮৩৪ ১,০০৩ ৬৬,২২৬
৯৩ নরওয়ে ৭১,০০৬ ৬২২ ৬৩,৭৮৩
৯৪ এস্তোনিয়া ৬৬,৬২৮ ৫৯৮ ৫০,১০৩
৯৫ সিঙ্গাপুর ৫৯,৯৪৮ ২৯ ৫৯,৮২৩
৯৬ এল সালভাদর ৫৯,৮৬৬ ১,৮৬১ ৫৫,৩১২
৯৭ মোজাম্বিক ৫৯,৩৫০ ৬৪১ ৪১,০৯৬
৯৮ ফিনল্যাণ্ড ৫৮,০৬৪ ৭৪২ ৪৬,০০০
৯৯ উরুগুয়ে ৫৭,৯৯৪ ৬০৮ ৫০,০৩৯
১০০ আফগানিস্তান ৫৫,৭৫৯ ২,৪৪৬ ৪৯,৩৪৪
১০১ লুক্সেমবার্গ ৫৫,৪৩৫ ৬৩৮ ৫১,৪৮৭
১০২ কিউবা ৪৯,৭৭৯ ৩২২ ৪৫,২৪২
১০৩ উগান্ডা ৪০,৩৫৭ ৩৩৪ ১৪,৬৬৬
১০৪ নামিবিয়া ৩৮,৮৪৫ ৪২৪ ৩৬,২৬১
১০৫ জিম্বাবুয়ে ৩৬,০৮৯ ১,৪৬৩ ৩২,৬৬৬
১০৬ ক্যামেরুন ৩৫,৭১৪ ৫৫১ ৩২,৫৯৪
১০৭ সেনেগাল ৩৪,৭৩২ ৮৮০ ২৯,১৬১
১০৮ সাইপ্রাস ৩৪,৭০৭ ২৩১ ২,০৫৭
১০৯ আইভরি কোস্ট ৩২,৭৫৪ ১৯২ ৩২,৬২৪
১১০ মালাউই ৩১,৯৪৫ ১,০৪৪ ১৮,৮৭৪
১১১ অস্ট্রেলিয়া ২৮,৯৭৫ ৯০৯ ২৬,১৭৫
১১২ বতসোয়ানা ২৮,৩৭১ ৩১০ ২৩,২৪৪
১১৩ সুদান ২৮,৩৫১ ১,৮৮০ ২২,৯০৭
১১৪ থাইল্যান্ড ২৬,০৩১ ৮৩ ২৫,৩২৪
১১৫ ড্যানিশ রিফিউজি কাউন্সিল ২৫,৯১৩ ৭০৭ ১৮,৯৫১
১১৬ জ্যামাইকা ২৩,২৬৩ ৪২২ ১৩,৪১০
১১৭ মালটা ২২,৬৫৭ ৩১৬ ১৯,৬৬৩
১১৮ অ্যাঙ্গোলা ২০,৮০৭ ৫০৮ ১৯,৩২২
১১৯ মাদাগাস্কার ১৯,৮৩১ ২৯৭ ১৯,২৯৬
১২০ মালদ্বীপ ১৯,৭৯৩ ৬২ ১৭,২৪৯
১২১ রুয়ান্ডা ১৮,৮৫০ ২৬১ ১৭,৩১৩
১২২ ফ্রেঞ্চ পলিনেশিয়া ১৮,৩৮৭ ১৩৯ ৪,৮৪২
১২৩ মায়োত্তে ১৭,৬০০ ১১০ ২,৯৬৪
১২৪ মৌরিতানিয়া ১৭,২০৭ ৪৪১ ১৬,৫৬৩
১২৫ ইসওয়াতিনি ১৭,০১৪ ৬৫২ ১৪,৬৭৬
১২৬ ফ্রেঞ্চ গায়ানা ১৬,৬২৭ ৮৫ ৯,৯৯৫
১২৭ গিনি ১৫,৯৯২ ৮৯ ১৪,৮৯৭
১২৮ সিরিয়া ১৫,৫৮৮ ১,০২৭ ৯,৮০১
১২৯ কেপ ভার্দে ১৫,৪০০ ১৪৭ ১৪,৮১৪
১৩০ গ্যাবন ১৪,৫৬৪ ৮৩ ১৩,১৪৩
১৩১ তাজিকিস্তান ১৩,৩০৮ ৯০ ১৩,২১৮
১৩২ হাইতি ১২,৪৪৮ ২৪৯ ৯,৭১২
১৩৩ রিইউনিয়ন ১২,৪১৬ ৫২ ১১,২৭০
১৩৪ বেলিজ ১২,২৯৩ ৩১৫ ১১,৮৩৬
১৩৫ বুর্কিনা ফাঁসো ১১,৯৮২ ১৪২ ১১,৪৯৩
১৩৬ হংকং ১১,০২০ ২০০ ১০,৫৪৭
১৩৭ এনডোরা ১০,৮৬৬ ১১০ ১০,৪৪৬
১৩৮ লেসোথো ১০,৪৯১ ২৯২ ৩,৭৪৫
১৩৯ গুয়াদেলৌপ ৯,৭৪৬ ১৫৯ ২,২৪২
১৪০ সুরিনাম ৮,৯২৯ ১৭২ ৮,৪০৬
১৪১ কঙ্গো ৮,৮২০ ১২৮ ৭,০১৯
১৪২ গায়ানা ৮,৫৮৫ ১৯৫ ৭,৯৭২
১৪৩ বাহামা ৮,৫১৯ ১৭৯ ৭,৩০৯
১৪৪ মালি ৮,৩৭৬ ৩৫৩ ৬,৪০২
১৪৫ দক্ষিণ সুদান ৮,০১০ ৯৪ ৪,২১৭
১৪৬ আরুবা ৭,৮৯১ ৭৩ ৭,৫৯৫
১৪৭ ত্রিনিদাদ ও টোবাগো ৭,৭১৩ ১৩৯ ৭,৪৬৬
১৪৮ সোমালিয়া ৭,২৫৭ ২৩৯ ৩,৮০৮
১৪৯ টোগো ৬,৯০১ ৮৪ ৫,৬৬০
১৫০ মার্টিনিক ৬,৬৮৭ ৪৫ ৯৮
১৫১ নিকারাগুয়া ৬,৪৪৫ ১৭৩ ৪,২২৫
১৫২ ইকোয়েটরিয়াল গিনি ৬,০৯৫ ৯২ ৫,৬৩২
১৫৩ জিবুতি ৬,০৬৬ ৬৩ ৫,৮৯৭
১৫৪ আইসল্যান্ড ৬,০৫৪ ২৯ ৬,০১২
১৫৫ বেনিন ৫,৪৩৪ ৭০ ৪,২৪৮
১৫৬ সেন্ট্রাল আফ্রিকান রিপাবলিক ৫,০০৪ ৬৩ ৪,৯২০
১৫৭ নাইজার ৪,৭৪০ ১৭২ ৪,২৫০
১৫৮ কিউরাসাও ৪,৭৩০ ২২ ৪,৬৪১
১৫৯ গাম্বিয়া ৪,৭১২ ১৫০ ৪,০৮৯
১৬০ জিব্রাল্টার ৪,২৩৯ ৯৩ ৪,১২৪
১৬১ চ্যানেল আইল্যান্ড ৪,০৩৮ ৮৬ ৩,৯২৮
১৬২ চাদ ৩,৯৭৩ ১৪০ ৩,৪৭৫
১৬৩ সিয়েরা লিওন ৩,৮৮৭ ৭৯ ২,৬২১
১৬৪ সান ম্যারিনো ৩,৭১৬ ৭৪ ৩,২৫৭
১৬৫ কমোরস ৩,৫৭১ ১৪৪ ৩,৩১৪
১৬৬ সেন্ট লুসিয়া ৩,৩৯০ ৩৫ ৩,০১৩
১৬৭ গিনি বিসাউ ৩,২৬২ ৪৮ ২,৬১৩
১৬৮ বার্বাডোস ৩,০৬৮ ৩৩ ২,৪০৭
১৬৯ মঙ্গোলিয়া ২,৯৫২ ২,২৯৯
১৭০ ইরিত্রিয়া ২,৮৪৭ ২,২৫৩
১৭১ সিসিলি ২,৬১৮ ১১ ২,২৮৭
১৭২ লিচেনস্টেইন ২,৫৭৫ ৫৪ ২,৪৮৪
১৭৩ ভিয়েতনাম ২,৪৪৮ ৩৫ ১,৮৭৬
১৭৪ ইয়েমেন ২,৪৩৬ ৬৬০ ১,৫৮০
১৭৫ নিউজিল্যান্ড ২,৩৭৮ ২৬ ২,২৮৫
১৭৬ বুরুন্ডি ২,২০৯ ৭৭৩
১৭৭ টার্কস্ ও কেইকোস আইল্যান্ড ২,১১৪ ১৪ ১,৮৭৩
১৭৮ সিন্ট মার্টেন ২,০৫৭ ২৭ ২,০০০
১৭৯ লাইবেরিয়া ২,০১৪ ৮৫ ১,৮৮৪
১৮০ মোনাকো ১,৯৫৬ ২৪ ১,৭১০
১৮১ সেন্ট ভিনসেন্ট ও গ্রেনাডাইন আইল্যান্ড ১,৫৫৬ ৯৩২
১৮২ সেন্ট মার্টিন ১,৫৪৪ ১২ ১,৩৯৯
১৮৩ পাপুয়া নিউ গিনি ১,২৭৫ ১২ ৮৪৬
১৮৪ তাইওয়ান ৯৫৫ ৯১৯
১৮৫ ভুটান ৮৬৭ ৮৬৫
১৮৬ কম্বোডিয়া ৮২০ ৪৭৭
১৮৭ অ্যান্টিগুয়া ও বার্বুডা ৭৩০ ১৪ ৩০১
১৮৮ ডায়মন্ড প্রিন্সেস (প্রমোদ তরী) ৭১২ ১৩ ৬৯৯
১৮৯ বারমুডা ৭০৫ ১২ ৬৮২
১৯০ ফারে আইল্যান্ড ৬৫৮ ৬৫৭
১৯১ মরিশাস ৬১০ ১০ ৫৭১
১৯২ সেন্ট বারথেলিমি ৫৭৩ ৪৬২
১৯৩ তানজানিয়া ৫০৯ ২১ ১৮৩
১৯৪ আইল অফ ম্যান ৪৮৪ ২৫ ৪৫১
১৯৫ কেম্যান আইল্যান্ড ৪৪৪ ৪১৩
১৯৬ ক্যারিবিয়ান নেদারল্যান্ডস ৪২৯ ৪০২
১৯৭ ব্রুনাই ১৮৬ ১৮১
১৯৮ ব্রিটিশ ভার্জিন দ্বীপপুঞ্জ ১৫৩ ১৩১
১৯৯ গ্রেনাডা ১৪৮ ১৪৭
২০০ ডোমিনিকা ১৪২ ১২৭
২০১ পূর্ব তিমুর ১১৩ ৯০
২০২ ফিজি ৫৯ ৫৪
২০৩ নিউ ক্যালেডোনিয়া ৫৮ ৫৫
২০৪ ফকল্যান্ড আইল্যান্ড ৫৪ ৪৬
২০৫ ম্যাকাও ৪৮ ৪৭
২০৬ লাওস ৪৫ ৪২
২০৭ সেন্ট কিটস ও নেভিস ৪১ ৪০
২০৮ গ্রীনল্যাণ্ড ৩০ ৩০
২০৯ ভ্যাটিকান সিটি ২৭ ১৫
২১০ সেন্ট পিয়ের এন্ড মিকেলন ২৪ ১৬
২১১ মন্টসেরাট ২০ ১৩
২১২ এ্যাঙ্গুইলা ১৮ ১৮
২১৩ সলোমান আইল্যান্ড ১৮ ১৪
২১৪ পশ্চিম সাহারা ১০
২১৫ জান্ডাম (জাহাজ)
২১৬ ওয়ালিস ও ফুটুনা
২১৭ মার্শাল আইল্যান্ড
২১৮ সামোয়া
২১৯ ভানুয়াতু
তথ্যসূত্র: চীনের জাতীয় স্বাস্থ্য কমিশন (সিএনএইচসি) ও অন্যান্য।
করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]